ঢাকা, সোমবার, ৩০ শ্রাবণ ১৪২৯, ১৫ আগস্ট ২০২২, ১৬ মহররম ১৪৪৪

অর্থনীতি-ব্যবসা

পর্দা নামলো ঢাকা বাইক শো ও ইন্ডিয়া এক্সপোর

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১০০৯ ঘণ্টা, জুন ২৬, ২০২২
পর্দা নামলো ঢাকা বাইক শো ও ইন্ডিয়া এক্সপোর ছবি: রাজীন চৌধুরী

ঢাকা: পর্দা নামলো ৬ষ্ঠ ঢাকা বাইক শো ও বেস্ট অব ইন্ডিয়া এক্সপোর। শনিবার (২৫ জুন) আন্তর্জাতিক কনভেনশন সেন্টার, বসুন্ধরায় (আইসিসিবি) মেলার শেষ দিনে ছিল দর্শনার্থীতে মুখরিত।

‘৬ষ্ঠ ঢাকা বাইক শো-২০২২’-এর সঙ্গে অনুষ্ঠিত হচ্ছে ‘১৫তম ঢাকা মোটর শো ২০২২’, ‘৫ম ঢাকা অটোপার্টস শো-২০২২’ ও ‘৪র্থ ঢাকা কমার্শিয়াল অটোমোটিভ শো-২০২২’। একইসঙ্গে অনুষ্ঠিত হচ্ছে ‘বেস্ট অব ইন্ডিয়া এক্সপো ২০২২’।

দর্শনার্থী মারুফ তাজিম ধানমন্ডি থেকে এসেছেন মেলায়। তিনি বলেন, বিভিন্ন কোম্পানির মোটরবাইক এখানে এসেছে। নতুন বাইকগুলো কী সুযোগ-সুবিধা দিচ্ছে আর কী পরিমাণ ছাড় দিচ্ছে এটা দেখতে এসেছি। বাজেট আর সুবিধামতো ছাড় পেলে এখান থেকেই মোটরবাইক কিনবো।  

মেলার এইচ পাওয়ার মোটরসের কর্মকর্তা জহিরুল ইসলাম বাংলানিউজকে বলেন, মেলায় মোটামুটি ভালোই সাড়া পেয়েছি। মেলার তিন দিন মিলিয়ে ১১টি মোটরবাইক বিক্রি করেছি। এখানে দর্শনার্থীরা মোটরবাইক দেখতে আর ঘুরতে বেশি আসেন। তুলনামূলক কেনেন কম। অফারের খবর নেন বেশি।

ঢাকা বাইক শোতে এসে চিত্রনায়ক আরেফিন শুভ বলেন, মেলায় এসে ভালো লেগেছে। এখানে আনেক বাইক রাইডারকে দেখলাম স্ট্যান্ড করতে। আমি নিজেও স্ট্যান্ড করেছি। আমি বাইক স্ট্যান্ড করতে গিয়ে বুঝেছি যে কী পরিমাণ কষ্ট হয় স্ট্যান্ড করতে। এখানে যারা প্রতিনিয়ত বাইক স্ট্যান্ড করছেন তারা আসলেই সত্যিকারের হিরো।

এ প্রদর্শনী আয়োজনের বিষয়ে মেহেরুন এন ইসলাম বলেন, কোভিড-১৯ মহামারির কারণে ২০২০ ও ২০২১ সালে ঢাকা মোটর শো আয়োজন করা সম্ভব হয়নি। এ মহামারির কারণে সারা বিশ্বের ইভেন্ট ও এক্সিবিশন সেক্টর ব্যাপকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এবার মহামারির প্রাদুর্ভাব কমে যাওয়ায় আমরা ঘুরে দাঁড়াতে চাইছি এবং আমাদের প্রতিষ্ঠান 'সেমস গ্লোবাল ইউএসএ এ বছর প্রতিষ্ঠার ৩০ বছরে পা দিতে যাচ্ছে। তাই আমরা বড় পরিসরে ঢাকা মোটর শো আয়োজন করেছি।

যৌথভাবে একই সময়ে অনুষ্ঠিতব্য এ প্রদর্শনীতে ভারত, মালয়েশিয়াসহ আরও ১৫টি দেশের বিভিন্ন ব্র্যান্ড, ২৮৭টি প্রদর্শক, ৫৩০টি বুথের মাধ্যমে অংশ নেয়।

এদিকে আইসিসিবি'তে ‘বেস্ট অব ইন্ডিয়া এক্সপো ২০২২’ প্রদর্শনী হয়েছে। বাংলাদেশের শীর্ষ ১০-১২টি খাতের ভারতীয় সেরা জনপ্রিয় পণ্যেগুলোর প্রদর্শন করা হয়। প্রদর্শনীতে হস্তশিল্প ও তাঁত, তুলা ও পাট, গৃহস্থালি সামগ্রী, টেকসই ভোক্তা সামগ্রী, প্লাস্টিকের সামগ্রী, প্রকৌশল সামগ্রী, খাদ্য ও কৃষি পণ্য (মসলা, চা ও কফি, ইত্যাদি), বিল্ডিং এবং নির্মাণ সামগ্রী প্রদর্শন করা হচ্ছে। এছাড়া বিভিন্ন ধরনের পণ্য যেমন- সিরামিক, হোমওয়্যার ও কিচেনওয়্যার, অ্যালুমিনিয়াম, রং ও কালি, কৃষি উপকরণ এবং সংশ্লিষ্ট পণ্যও প্রদর্শিত হয়।

‘দি ফেডারেশন অব ইন্ডিয়ান এক্সপোর্ট অর্গানাইজেশনস (এফআইইও)’ এর আয়োজনে ভারতীয় হাইকমিশন, বাংলাদেশ ও ভারতের বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সহযোগিতায় এবং ‘ইন্ডিয়া বাংলাদেশ চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রি (আইবিসিসিআই)’ এর পৃষ্ঠপোষকতায় আয়োজিত প্রদর্শনীটি গত ২৩ জুন থেকে শুরু হয়। প্রদর্শনীর সার্বিক ব্যবস্থাপনায় ছিল ‘সেমস গ্লোবাল ইউএসএ’।
 
আয়োজকরা বলেন, বাংলাদেশ-ভারতের ইতিহাস ও সংস্কৃতির মিল দুই দেশের মধ্যে দৃঢ় সম্পর্ক সৃষ্টি করেছে। সম্প্রীতির ৫০ বছর পূর্তি পালন করেছে প্রতিবেশী এ দুই দেশ। রাজনৈতিক, অর্থনৈতিক, বাণিজ্যিক এবং সাংস্কৃতিক সম্পর্ক আরও জোরদার করতে বাংলাদেশ-ভারত একসঙ্গে কাজ করছে। ‘বেস্ট অব ইন্ডিয়া এক্সপো ২০২২’ এ বন্ধুত্বকে আরও এগিয়ে নিয়েছে।
 
বাংলাদেশ সময়: ১০০৮ ঘণ্টা, জুন ২৬, ২০২২
এমএমআই/আরবি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa