ঢাকা, মঙ্গলবার, ৩১ শ্রাবণ ১৪২৯, ১৬ আগস্ট ২০২২, ১৭ মহররম ১৪৪৪

অর্থনীতি-ব্যবসা

কোরবানির হাট মাতাবে হানি সিং ও তুফান

মুশফিক সৌরভ, স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০০১ ঘণ্টা, জুন ২৮, ২০২২
কোরবানির হাট মাতাবে হানি সিং ও তুফান

বরিশাল: ঘনিয়ে আসছে কোরবানির ঈদের সময়। তাই আগে থেকেই গ্রামাঞ্চলের পাশাপাশি শহরাঞ্চলেও খামারিরা তাদের পশুগুলো বিক্রির উদ্দেশ্যে প্রস্তুত করে ফেলেছেন।

 বিগত কয়েক বছর ধরে বরিশাল অঞ্চলে মাঝারি আকারের গরুর কদর দেখা গেলেও আলোচনায় থাকে বিশালাকৃতির গরুগুলো।

এবারে এরইমধ্যে গোটা জেলাজুড়ে আলোচনায় রয়েছে বেশ কয়েকটি গরু। এর মধ্যে বরিশালের বাকেরগঞ্জ উপজেলার রানীরহাট বাজার এলাকার ইট ব্যবসায়ী এমদাদুল হক রায়হানের খামারে বেড়ে ওঠা তুফান ও আগৈলঝাড়ায় বারপাইকা গ্রামের কাঠমিস্ত্রি অরুণ পাণ্ডের খামারে বেড়ে ওঠা হানি সিং।

ব্যবসায়ী এমদাদুল হক রায়হান বলেন, শখের বসে তিনি ইট ভাটার পাশের খালি জায়গায় শেড তৈরি করে গবাদিপশু বিশেষ করে গরুর লালন-পালন শুরু করেন। যেখান দুই বছর ধরে হলিস্টোন ফ্রিজিয়ান জাতের সাদার মধ্যে কালো ছোপ ছোপ রঙের গরুটি লালন-পালন করছেন তিনি।

এখন বিশাল আকৃতির এই গরুটির লালন-পালনে দিনে ১২শ টাকার মতো খরচ করছেন জানিয়ে তিনি বলেন, সম্পূর্ণ প্রাকৃতিক নিয়মে গরুটিকে পালন করা হচ্ছে। বিশাল আকৃতির গরুটি এবারে কোরবানির হাটে ওঠানোর চিন্তা করেছি। দাম ১০ লাখ টাকা চাইলেও নেওয়ার ইচ্ছে থাকা ক্রেতাদের প্রতি সূদৃষ্টি দেওয়ার চিন্তা-ভাবনা রয়েছে।

তিনি বলেন, গরুটি দেখতে প্রতিদিন প্রচুর মানুষ ভিড় করছে খামারে। কেউ দাম বলছেন, তবে সঠিক দাম পেলে গরুটি ক্রেতাকে বুঝিয়ে দেবেন। তুফানের পরিচর্যা, দেখাশোনা, খাবার দেওয়া, গোসল করানো, খামার পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন রাখাসহ সব কাজ করে থাকেন সোহাগ।

আর তুফানের দেখভালের দায়িত্বে থাকা সোহাগ জানান, গরুটিকে প্রতিদিন নিয়ম করে ধান, গম, ভুট্টা,কাঁচা নেপিয়ার ঘাস, খুদের জাউ, খৈল ও খড় খাওয়ানো হয়। এছাড়া গরুটিকে প্রতিদিন একবার খামারের বাইরে আনা হয় এবং গোসল করানো হয়। আর গরুটির থাকার জন্য চাহিদা অনুযায়ী ব্যবস্থা করা হয়েছে খামারের ভেতরে।

সোহাগ বলেন, গত বছর কোরবানিতে এ খামার থেকে ৫টি গরু বিক্রি করা হয়েছে। তবে এবারে এই একটি গরুই বিক্রির জন্য প্রস্তুত করা হয়েছে। ৫ ফুটের থেকে বেশি উচ্চতার ৩ বছর বয়সী গরুটির লাইফ ওজন হবে ২৫ মণের কাছাকাছি। আর দাম চাওয়া হচ্ছে ১০ লাখ টাকা। এদিকে বরিশালের আগৈলঝাড়ার বারপাইকা গ্রামের কাঠমিস্ত্রি অরুণ পাণ্ডে হানি সিং নামে সাড়ে ২৭ মণ ওজনের হলিস্টোন ফ্রিজিয়ান জাতের একটি ষাঁড় কোরবানির ঈদকে সামনে রেখে প্রস্তুত করা হয়েছে। ১০ ফুট লম্বা ও ৬ ফুট উচ্চতার বিশালাকৃতির এই গরুটির দামও ১০ লাখ টাকা হাঁকাচ্ছেন তিনি। তিন বছর আগে চিটাগাং সিন্ধি দেশি জাতের গাভী থেকে প্রজননের মাধ্যমে হলিস্টোন ফ্রিজিয়ান জাতের হানি সিংয়ের জন্ম হয়।

হানি সিং ছাড়াও অরুণের খামারে রয়েছে টাইগার নামের আরেকটি ষাঁড়। লম্বায় ৭ ফুট টাইগারের উচ্চতা প্রায় ৫ ফুট। সম্পূর্ণ দেশীয় খাবার খাওয়ানো হয় গরু দুটিকে। দিনমজুর অরুণ পাণ্ডে জানান, হলিস্টোন ফ্রিজিয়ান গরুটির ‘হানি সিং নাম রেখেছি শখ করে। ১০ লাখে বিক্রি করব তাকে। প্রতিদিন বিভিন্ন স্থান থেকে ব্যবসায়ী, ক্রেতা ও দর্শনার্থীরা দেখতে আসছেন বিশালাকৃতির ‘হানি সিংকে দেখতে।

উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা মনিরুজ্জামান তরফদার বলেন, সম্পূর্ণ প্রাকৃতিক উপায়ে হানি সিং ষাঁড়টিকে লালন-পালন করা হয়েছে। হানি সিং ছাড়াও জেলা উপজেলার সব খামারির গরু নিয়মিত মনিটরিংসহ উপজেলা প্রাণিসম্পদ অফিস থেকে বিভিন্ন পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে।

বাংলাদেশ সময়: ২০০১ ঘণ্টা, জুন ২৮, ২০২২
এমএস/এএটি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa