ঢাকা, শুক্রবার, ৭ মাঘ ১৪২৮, ২১ জানুয়ারি ২০২২, ১৭ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

শিক্ষা

চবিতে নতুন আসন বেড়েছে ১৯৪টি

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২১৩১ ঘণ্টা, আগস্ট ১২, ২০১২

চট্টগ্রাম: চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে ২০১২-১৩ শিক্ষাবর্ষে নতুন ইনস্টিটিউটসহ ৮ বিভাগে প্রায় ১৯৪টি আসন বাড়ানো হয়েছে। এ নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ে আসন সংখ্যা দাঁড়ালো প্রায় ৩ হাজার ৯৮৫টি।

প্রথম বর্ষ সম্মান শ্রেণিতে ৭টি অনুষদের আটটি বিভাগ ও নতুনসহ ৫টি ইনস্টিটিউটে এসব আসনে শিক্ষার্থী ভর্তি করানো হবে।

এবারই প্রথম চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের আধুনিক ভাষা ইনস্টিটিউট ও শিক্ষা প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউটে অনার্স প্রোগ্রামে শিক্ষার্থী ভর্তি করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে কর্তৃপক্ষ। তবে আধুনিক ভাষা ইনস্টিটিউটের আসন সংখ্যা পরবর্তীতে নির্ধারণ করা হবে বলে জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ।  

ভর্তি কমিটির সদস্য ও আর্ন্তজাতিক সম্পর্ক বিভাগের সভাপতি এম ফয়সাল বাংলানিউজকে বলেন, প্রতিযোগিতামূলক বিশ্বে শিক্ষার মানোন্নয়নের বিষয়টি বিবেচনা করে নতুন শিক্ষা প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউটে এবারই প্রথম মানবিক ও সমাজবিজ্ঞানে ৪০, বাণিজ্য বিভাগে ৪০ এবং বিজ্ঞানে ২৫ জন শিক্ষার্থী সম্মান শ্রেণিতে ভর্তি করা হবে।

এছাড়াও আধুনিক ভাষা ইনস্টিটিউটে এ বছর ছাত্র-ছাত্রী ভর্তি করা হবে বলে জানিয়েছেন তিনি।

বিশ্ববিদ্যালয়ের ডেপুটি রেজিস্ট্রার (একাডেমিক শাখা) এসএম আকবর হোসাইন বাংলানিউজকে বলেন, ২০১২-১৩ শিক্ষাবর্ষে ৯টি ইউনিটে ভর্তি প্রক্রিয়া ১ সেপ্টেম্বর থেকে শুরু হবে। এদিন থেকে টেলিটক মোবাইল বার্তার মাধ্যমে ভর্তিচ্ছুরা ভর্তি ফরম পূরণ করতে পারবে আগামী ৫ অক্টোবর পর্যন্ত।

তিনি বলেন, সপ্তাহব্যাপী ১১ নভেম্বর পরীক্ষা শুরু হয়ে ১৮ নভেম্বর পর্যন্ত চলবে। এবার নতুন ইনস্টিটিউটসহ কয়েকটি বিভাগে আসন সংখ্যা বাড়ানো হয়েছে।

এর মধ্যে ফার্সি ভাষা ও সাহিত্য বিভাগে ১০, উদ্ভিদ বিদ্যায় ১২, প্রাণিবিদ্যায় ১২, ওশনোগ্রাফি ১০, প্রাণ রসায়নে ২, অনুপ্রাণবিদ্যায় ২, যোগাযোগ ও সাংবাদিকতায় ২১, আর্ন্তজাতিক সম্পর্ক বিভাগে ২০ আসন বৃদ্ধি করা হয়েছে।

এছাড়াও শিক্ষা, গবেষণা ও প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউটে ১০৫টি আসন ভর্তি করা হবে বলে জানান ডেপুটি রেজিস্ট্রার আকবর।

আসন বাড়ানো প্রসঙ্গে বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার (ভারপ্রাপ্ত) প্রফেসর ড. সফিউল আলম বাংলানিউজকে বলেন, শিক্ষার্থীদের প্রয়োজনীয়তার কথা চিন্তা করেই বিভিন্ন অনুষদের অধীনে ৮ বিভাগে আসন সংখ্যা বাড়ানো হয়েছে।
                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                       
বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি কমিটি সূত্রে জানা গেছে, গত শিক্ষাবর্ষে (২০১১-১২) ফলিত পদার্থ ইলেক্ট্রনিক্স ও কমিউনিকেশন ইঞ্জিনিয়ারিং এবং কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগে ৫টি করে ১০টি আসনে শিক্ষার্থী ভর্তি করা হয়।

কলা ও মানববিদ্যা অনুষদের অধীনে ইতিহাস, আরবি ও ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগে ১০টি করে এবং প্রাচ্যভাষা বিভাগে ২০টি আসন বাড়িয়ে শিক্ষার্থী ভর্তি করা হয়।

এছাড়াও আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগে ৬টি, নৃবিজ্ঞান বিভাগে ২৫টি, ভূগোল ও পরিবেশবিদ্যা, মৃত্তিকা বিজ্ঞান এবং মনোবিজ্ঞান বিভাগে ৫টি করে আসন বাড়ানো হয়।

ভর্তি কমিটির সদস্য এম ফয়সাল বলেন, গত বছর যেসব বিভাগে আসন বাড়ানো হয়েছিল তার মধ্যে আর্ন্তজাতিক সম্পর্ক বিভাগ ছাড়া অন্য বিভাগে ফের কোন আসন বাড়ানো হয়নি।

বিশ্ববিদ্যালয়ে গত বছর (২০১১-১২ শিক্ষাবর্ষে) ছয়টি অনুষদের ৩৮টি বিভাগ ও তিনটি ইনস্টিটিউটের অধীনে মোট ৩ হাজার ৭৯১ জন শিক্ষার্থী ভর্তি করা হয়। এবার নতুন ইনস্টিটিউটসহ অন্যান্য বিভাগে প্রায় ৩ হাজার ৭৯১টি আসনে শিক্ষার্থী ভর্তি করা হবে।

বাংলানিউজকে রেজিস্ট্রার (ভারপ্রাপ্ত) ড. সফিউল আলম জানান, ২০১২-১৩ শিক্ষাবর্ষে একটি নতুনসহ মোট ৯টি ইউনিটের মধ্যে ১১ নভেম্বর ব্যবসায় প্রশাসন অনুষদের (সি ইউনিট) পরীক্ষার মধ্য দিয়ে ভর্তি যুদ্ধ শুরু হবে।

তিনি বলেন, ১২ নভেম্বর সকালে জীব বিজ্ঞান অনুষদ (এইচ ইউনিট) এবং বিকেলে মৎস্য ও সমুদ্র বিজ্ঞান ইনস্টিটিউটের (জি ইউনিট), ১৩ নভেম্বর সকালে বিজ্ঞান অনুষদ (এ ইউনিট) এবং বিকেলে বন ও পরিবেশবিদ্যা ইনস্টিটিউটের (এফ ইউনিট), ১৪ নভেম্বর সকালে কলা ও মানববিদ্যা অনুষদ (বি ইউনিট), বিকেলে নতুন চালু হওয়া প্রকৌশল অনুষদের (আই ইউনিট) পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।

ড. সফিউল আরো জানান, ১৫ নভেম্বর সকালে আইন অনুষদের (ই ইউনিট) ও ১৭ নভেম্বর সকালে কলা অনুষদের (বি ইউনিট) আরবী, প্রাচ্যভাষা, চারুকলা,নাট্যকলা এবং সবশেষ ১৮ নভেম্বর অনুষ্ঠিত হবে সমাজ বিজ্ঞান অনুষদের (ডি ইউনিট) পরীক্ষা।

ভর্তি পরীক্ষায় প্রতি ভুল উত্তরের জন্য দশমিক ২৫ নম্বর ও ৪টির জন্যে ১ নম্বর কাটা যাবে, বলেও উল্লেখ করেন তিনি।

পরীক্ষায় অংশগ্রহণের যোগ্যতা প্রসঙ্গে ভর্তি কমিটি জানায়, এ,জি, ই ও এইচ ইউনিটে এসএসসি ও এইচএসসি বা সমমান পরীক্ষায় চতুর্থ বিষয় বাদে নূন্যতম জিপিএ-৭, বি ও ডিÔতে জিপিএ-৬, ‘সি’ ইউনিট জিপিএ-৬ দশমিক ৫০ এবং ‘এফ’ ইউনিট জিপিএ-৭ থাকতে হবে।

প্রসঙ্গত, বিশ্ববিদ্যালয়ে গত ২ বছরের মত এবারও টেলিটক ফোনের মাধ্যমে ক্ষুদেবার্তা (এসএমএস) পাঠিয়ে ভর্তি পরীক্ষার রেজিস্ট্রেশন করতে হবে। প্রতি ফরম পূরণ করতে ৪০০ ব্যয় হবে ভর্তিচ্ছুকে।

ভর্তি সংক্রান্ত বিস্তারিত বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইট www.cu.ac.bd তে জানা যাবে বলে বিশ্ববিদ্যালয় সূত্র জানিয়েছে।

বাংলাদেশ সময় : ২১২৮ ঘণ্টা, আগস্ট ১২, ২০১২
এমবিএম/সম্পাদনা : সুকুমার সরকার, কো-অর্ডিনেশন এডিটর  
[email protected]

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa