ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ০২ ডিসেম্বর ২০২১, ২৬ রবিউস সানি ১৪৪৩

শিক্ষা

ভয়েস অব আমেরিকার বাংলা বিভাগের প্রথম নারীকে সংবর্ধনা

সিজারাজ জাহান মিমি | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০১৫২ ঘণ্টা, মার্চ ৩, ২০১২
ভয়েস অব আমেরিকার বাংলা বিভাগের প্রথম নারীকে সংবর্ধনা

রোকেয়া হায়দার বাংলার ইতিহাসের সংবাদ মাধ্যমের এক উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত, ভয়েস অব আমেরিকার বাংলা বিভাগের প্রথম নারী সাংবাদিক। যিনি বাংলার ঐতিহাসিক সময়কালে তথ্য সহায়তার মাধ্যমে বাঙালি জাতির অনুপ্রেরণা শক্তি এবং দুর্দান্ত সাহস জুগিয়েছিল।



৫৮ সালে যাত্রা শুরু হওয়া মাধ্যমটি ৫৪ বছরে পা ফেলল। তখন থেকে এখন পর্যন্ত এই নারীর বিশেষ অবদান আর কৃতিত্বের জন্য সংবর্ধনা অনুষ্ঠানের আয়োজন করে ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির সাংবাদিকতা ও গণযোগাযোগ বিভাগ এবং ভয়েস অব আমেরিকা ফ্যান ক্লাব।

অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি তথ্য ও সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রী আবুল কালাম আজাদ রোকেয়া হায়দারের হাতে সম্মাননা স্মারক তুলে দেন। মন্ত্রী এ সময় এ মাধ্যমটির উত্তরোত্তর সাফল্য কামনা করেন পাশাপাশি সহযোগিতার আশ্বাস দেন। সাংবাদিকদের উদ্দেশ্যে বলেন, রাজনৈতিক কোন দলের হয়ে কাজ না করে জনগণের হয়ে কাজ করুন এবং গঠনমূলক ও তথ্যভিত্তিক সমালোচনার মাধ্যমে বস্তুনিরপেক্ষ প্রতিবেদন করুন। অন্য বক্তাদের সাথে সায় দিয়ে শিক্ষার্থীদের লেখাপড়ার পাশাপাশি প্রচুর পরিশ্রম ও অনুশীলন করার আহবান জানান। কারণ ক্রম পরিবর্তনশীল শিক্ষা বিষয়ে পর্যাপ্ত জ্ঞান লাভ করে দেশের সীমিত সম্পদকে সমৃদ্ধ এবং বিশ্বে দেশের ভাব মূর্তি উজ্জল করার দৃঢ় প্রত্যয় রাখতে হবে ।

তিনি আরো বলেন, বর্তমান সরকার অবাধ তথ্য প্রবাহে বিশ্বাসী। তাই ক্ষমতায় আসার পরপরই তথ্যাধিকার আইন পাশ করেন। জনসচেতনতা বাড়াতে বর্তমানে তথ্য কমিশন গঠন করা হয়েছে।

অনুষ্ঠানে রোকেয়া হায়দার বলেন, শুধু বাংলাদেশের জন্য নয় বিশ্বের জন্য কাজ করতে হবে তরুণ সমাজকে। এছাড়া ভিওএ এর সেবা বর্তমানে ইন্টারনেট, টিভি, ফেসবুকে চালু করা হয়েছে তাই আরো সুদুরপ্রসারী করতে সকলের অনুপ্রেরণা কামনা করেন।

বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. এম. লুৎফর রহমান মন্ত্রীকে সম্মাননা স্মারক প্রদান করেন। তিনি সাংবাদিকতা বিভাগের শিক্ষার্থীদের জন্য বিভিন্ন সহযোগিতা প্রত্যাশা করেন মাধ্যমটির কাছে। অন্যান্য বক্তারা বলেন, দেশের দুর্দিনে সবকিছু যখন নিয়ন্ত্রণে তখন এ মাধ্যমটি পাশে ছিল এখন পর্যন্ত বাংলাদেশভিত্তিক বিভিন্ন সেবায় নিয়োজিত রয়েছে ভিএও। এজন্য তারা কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।

উপস্থিত ছিলেন, বাংলাদেশ বেতারের মহাপরিচালক এ কে এম শামীম চৌধুরী, ভিওএ এর বাংলাদেশ প্রতিনিধি ও মানবজমিন সংবাদপত্রের সম্পাদক মতিউর রহমান চৌধূরী, ভিওএ এর সংবাদ উপস্থাপিকা দিলারা হাশেম,  ভিওএ এর ফ্যান ক্লাবস  ইন বাংলাদেশ এর কো-অর্ডিনেটর জহুরুল আলম, ডিআইই এর মানবিক ও সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের ডিন অধ্যাপক গোলাম রহমান,  জেএমসি এর বিভাগীয় প্রধান রাশেদুল হাসান, গ্লোবাল ইন্টরন্যাশনাল ফ্যান ক্লাবের সভাপতি নাসরিন হুদা বিথী প্রমুখ।

উল্লেখ্য, বাংলাভাষাভাষী বৃহত্তর জনগোষ্ঠীর চাহিদা মেটাতে দীর্ঘ ৫৪ বছর ধরে ভয়েজ অব আমেরিকার বাংলা মাধ্যমটি সেবা দিচ্ছে ।

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa