ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৯, ২৯ নভেম্বর ২০২২, ০৪ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

শিক্ষা

রাবিতে ফুটবল খেলাকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষ: ২ শিক্ষার্থী আহত 

রাবি করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১১৫৯ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ২৯, ২০২২
রাবিতে ফুটবল খেলাকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষ: ২ শিক্ষার্থী আহত 

রাবি: রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) চলমান আন্তঃবিভাগ ফুটবল টুর্নামেন্ট খেলাকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এতে দু’জন শিক্ষার্থী আহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে।

বুধবার (২৮ সেপ্টেম্বর) রাতে বিশ্ববিদ্যালয়ের শেখ কামাল স্টেডিয়ামে এ ঘটনা ঘটে।

আহত শিক্ষার্থীরা হলেন- আব্দুর রাকিব ও বায়েজিদ। তারা ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগের তৃতীয় ও দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী।  

প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, বুধবার বিকেলে ইসলামিক স্টাডিজ এবং ফার্সি ভাষা ও সাহিত্য বিভাগের কোয়ার্টার ফাইনাল খেলা অনুষ্ঠিত হয়। নির্ধারিত সময়ের মধ্যে কোনো দল গোল না পেলে খেলা টাইব্রেকারে গড়ায়। টাইব্রেকারে ফার্সি বিভাগ পাঁচটি শটের মধ্যে চারটি গোল দেয় এর বিপরীতে ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগ চারটির মধ্যে তিন গোল করে। তবে পঞ্চম শট গোলবারে লেগে ওপরে উঠে যায়। এতে ফার্সি বিভাগের গোলকিপার ও খেলোয়াড়েরা আনন্দ উদযাপন করতে থাকেন। পরে বলটি মাটিতে পড়ে পুনরায় গোলবারের দিকে আসতে লাগলে ওই বিভাগের অন্য খেলোয়াড় বলটি শট মেরে বাইরে পাঠিয়ে দেন।  

এ নিয়ে শুরু হয় বাগবিতণ্ডা। পরে ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগের কয়েকজন শিক্ষার্থী স্টেডিয়ামের মূল ফটকে আসার চেষ্টা করলে ফার্সি বিভাগের শিক্ষার্থীরা তাদের ওপর হামলা করেন। এতে দু’জন আহত হন। আহতদের বিশ্ববিদ্যালয় মেডিকেলে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।  

ভুক্তভোগী শিক্ষার্থী আব্দুর রাকিব বলেন, খেলা নিয়ে ঝামেলা শুরু হলে আমরা কয়েকজন স্টেডিয়ামের মূল ফটকে খেলোয়াড়দের রিসিভ করতে যাওয়ার চেষ্টা করলে, তোরা এখানে কেন?-এটা বলে ফার্সি বিভাগের শিক্ষার্থী ও বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সোহরাওয়ার্দী হল সহ-সভাপতি শাখাওয়াত হোসেন শাকিলের নেতৃত্বে ২০-২৫ জন সাইকেল তালা দেওয়ার চেন খুলে মারধর শুরু করে। এসময় আমার মাথা ও মুখে এলোপাতাড়ি আঘাত করা হয়। এতে আমি ও আমার আরেক ছোট ভাই বায়েজিদ মাটিতে পড়ে যাই। পরে সহপাঠীরা আমাদের বিশ্ববিদ্যালয় মেডিকেলে নিয়ে যায়।

ফার্সি ভাষা ও সাহিত্য বিভাগের সভাপতি অধ্যাপক ওসমান গণি বলেন, ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগের শিক্ষার্থীরাই আগে লাঠি-সোঁটা নিয়ে এসেছে। এরপর দু-পক্ষের মধ্যে কথা কাটাকাটি হলে একপর্যায়ে ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগের একজন আরেকজনের দ্বারা আঘাত পেয়ে আহত হয়।

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর ড. আসাবুল হক বলেন, আমি ছেলেটির সঙ্গে কথা বলেছি। তার মাথায় ও মুখে আঘাতের নমুনা দেখেছি। তারা এখনো লিখিত অভিযোগ দেয়নি। অভিযোগ দিলে তদন্ত করে যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়া হবে। তবে খেলা নিয়ে যে ঝামেলা হয়েছে, তা টুর্নামেন্ট কমিটি বরাবর অভিযোগ দিলে তারা ব্যবস্থা নেবে।

বাংলাদেশ সময়: ১১৫৮ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ২৯, ২০২২
এসআই

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa