ঢাকা, বুধবার, ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ০৮ ডিসেম্বর ২০২১, ০৩ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৩

বিনোদন

ফেইসবুক নিয়ে ছবি: দ্য সোশ্যাল নেটওয়ার্ক

লাবিন রহমান | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৯০৩ ঘণ্টা, অক্টোবর ৫, ২০১০
ফেইসবুক নিয়ে ছবি:  দ্য সোশ্যাল নেটওয়ার্ক

বিশ্বের সবচে জনপ্রিয় সামাজিক যোগাযোগ ওয়েবসাইট ফেইসবুক এবার জায়গা করে নিল চলচ্চিত্রের দুনিয়ায়। এ মাসের ১ তারিখে মুক্তি পেল ফেইসবুকের জন্মের পেছনের কাহিনী নিয়ে চলচ্চিত্র ‘দ্য সোশ্যাল নেটওয়ার্ক’।



মার্কিন লেখক বেন মেজরিখের নন-ফিকশন বই ‘দ্য একসিডেন্টাল বিলিওনেয়ারস’ অবলম্বনে ছবিটির চিত্রনাট্য তৈরি করেছেন এরন সরকিন। এর আগে সরকিন জর্জ ক্রাইলের বেস্ট-সেলিং উপন্যাস ‘চার্লি উইলসনস ওয়ার’-এর চিত্রনাট্য তৈরির জন্য ২০০৭-এ গোল্ডেন গ্লোব মনোনয়ন পেয়েছিলেন।

‘দ্য সোশ্যাল নেটওয়ার্ক’-এর কাহিনী গড়ে উঠেছে ফেইসবুকের সূচনালগ্ন এবং পর্দার আড়ালে এর স্রষ্টাদের ব্যক্তিগত সমস্যা-দ্বন্দ্বের বর্ণনা নিয়ে। ২০০৩-এর শরতের এক রাতে হার্ভার্ড স্নাতক, মেধাবী প্রোগ্রামার মার্ক জুকারবার্গ তার কম্পিউটারে বসে একটি নতুন পরিকল্পনা নিয়ে কাজ শুরু করেন। বন্ধুদের সঙ্গে যোগাযোগ রাখার একটি সহজ উপায় তিনি খুঁজতে থাকেন। ব্লগিং আর প্রোগ্রামিংয়ের বেড়াজাল পেরিয়ে হার্ভার্ডের এই ঘটনা বিশ্বব্যাপী সামাজিক  নেটওয়ার্ক ও যোগাযোগের দুনিয়ায় বিপ্লব ঘটিয়ে দেয়। মাত্র ছয় বছর ৫০০ মিলিয়ন বন্ধু যুক্ত হয় তার এই নেটওয়ার্কে। বিশ্বের ইতিহাসে জুকারবার্গের ঠাঁই হয় সবচেয়ে কমবয়সী বিলিওনিয়ার হিসেবে। কিন্তু এই উদ্যোক্তার জন্য সোশ্যাল নেটওয়ার্ক তৈরির সাফল্য নিয়ে আসে ব্যক্তিগত ও আইনি বিড়ম্বনা।

২০০৯-এর আগস্টের শুরুর দিকে ‘দ্য সোশ্যাল নেটওয়ার্ক’ ছবির প্রি-প্রোডাকশন কাজ শুরু হয়। ছবির শুটিং শুরু হয় একই বছরের অক্টোবরে কেমব্রিজ ও ম্যসাচুসেটসে। তবে ‘ফেইসবুক’ উদ্ভাবনের কাহিনীর জন্য অতি গুরুত্বপূর্ণ স্থান হার্ভার্ডে এর শুটিং করা সম্ভব হয়নি। ১৯৭০-এ ‘লাভ স্টোরি’ ছবির দৃশ্যায়নের সময় ব্যাপক তি হওয়ায় পর হার্ভার্ড কর্তৃপ ক্যম্পাসে আর কখনই কোনও ছবির শুটিংয়ের অনুমতি দেননি। ছবিতে হার্ভার্ডের প্রয়োজনীয় দৃশ্যগুলো ধারণ করা হয় জন হপকিন্স বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্যাম্পাসে।

এ ছবিতে ফেইসবুকের প্রতিষ্ঠাতা মার্ক জুকারবার্গের ভূমিকায় অভিনয় করেছেন ‘এডভেঞ্চারল্যান্ড’ খ্যাত অভিনেতা জ্যেসে আইসেনবার্গ। ছবির আরেকটি উল্লেখযোগ্য ভূমিকায় আছেন মার্কিন পপ সঙ্গীতশিল্পী জাস্টিন টিম্বারলেক।

ছবিটির সঙ্গে ফেইসবুকের কোনও কর্মকর্তা-কর্মচারী, এমনকি মার্ক জুকারবার্গও কোনওভাবে জড়িত ছিলেন না। তবে ‘দ্য একসিডেন্টাল বিলিওনেয়ারস’ নামের মূল গ্রন্থটির পরামর্শদাতা হিসেবে কাজ করেন ফেইসবুকের সহ-প্রতিষ্ঠাতা এডুয়ার্ডো স্যাভেরিন। তাই বলা যায় চলচ্চিত্রটি নির্মাণে পরোক্ষভাবে তার খানিকটা অবদান রয়েছে।

প্রায় ৪০ মিলিয়ন ডলার বাজেটের এই চলচ্চিত্রটি পরিচালনা করেছেন ডেভিড ফিঞ্চার। ১৯৯২ সালে ফিঞ্চার চলচ্চিত্র পরিচালনা শুরু করেন  রিডলি স্কট এবং জেমস ক্যামেরন খ্যাত ‘এলিয়েন’ সিরিজের তৃতীয় চলচ্চিত্র ‘এলিয়েন-৩’ দিয়ে। ছবিটি দর্শকপ্রিয়তা পায় খুব কম আর সমালোচকরাও এটি নিয়ে তেমন মাতামাতি করেননি। এরপর পরই ফিঞ্চার তার বিখ্যাত সাইকোলজিক্যাল থ্রিলার ‘সেভেন’ পরিচালনা করেন যা তাকে সমালোচক-দর্শক সবার কাছে জনপ্রিয় করে তোলে। তার আলোচিত ছবির মধে রয়েছে ফাইট কাব, দ্য গেইম, প্যানিক রমে, জোডিয়াক প্রভৃতি। ২০০৮ সালে   ডেভিড ফিঞ্চার ‘দ্য কিউরিয়াস কেইস অব বেনজামিন বাটন’ চলচ্চিত্রের সুবাদে প্রথমবারের মতো সেরা পরিচালক ক্যাটাগরিতে অস্কারের জন্য মনোনয়ন পান। ছবিটি সেরা চলচ্চিত্র মনোনয়নসহ সর্বমোট ১৩টি অস্কার ও ৫টি গোল্ডেন গ্লোব মনোনয়ন পায়।

ফেইসবুকের বিশ্বব্যাপী জনপ্রিয়তার কারণেই ‘দ্য সোশ্যাল নেটওয়ার্ক’ ছবিটি দর্শকপ্রিয়তা পাবে বলে মনে করছেন হলিউডের অনেকে। ‘দ্য সোশ্যাল নেটওয়ার্ক’ ছবির পোস্টারটিতে আকর্ষণীয় একটি বাক্য ব্যবহার করা হয়েছে : ‘তুমি কিছু শত্রু না বানিয়ে ৫০০ মিলিয়ন বন্ধু  পেতে পারো না। ’ সত্যিই এটি একটি ভাববার মতো বিষয়!        


বাংলাদেশ স্থানীয় সময় ১৮৫০,  অক্টোবর ০৫, ২০১০

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa