ঢাকা, রবিবার, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৯, ০৪ ডিসেম্বর ২০২২, ০৯ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

আন্তর্জাতিক

হামলাকারীর সন্তানও থাকত ওই থাই ডে-কেয়ার সেন্টারে

আন্তর্জাতিক ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৯০৯ ঘণ্টা, অক্টোবর ৬, ২০২২
হামলাকারীর সন্তানও থাকত ওই থাই ডে-কেয়ার সেন্টারে

থাইল্যান্ডের উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় প্রদেশ নং বুয়া লম্ফুতে একটি ডে-কেয়ার সেন্টারে সাবেক এক পুলিশ সদস্যের এলোপাতাড়ি গুলি চালানোর ঘটনায় নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৩৮ জনে দাঁড়িয়েছে। স্থানীয় সময় বৃহস্পতিবার (৬ অক্টোবর) দুপুরে এই হামলা চালানো হয়।

স্থানীয় পুলিশের বরাত দিয়ে এ তথ্য জানিয়েছে ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি।  

এই ঘটনায় জড়িত সাবেক ওই পুলিশ সদস্য তার স্ত্রী ও সন্তানকে খুন করার পর নিজেও আত্মহত্যা করেছেন।

থাইল্যান্ডের পুলিশ জানিয়েছে, হামলার সময় হামলাকারী নাইন এমএম পিস্তল ও ছুরি ব্যবহার করেছেন।  

ওই ডে-কেয়ারের শিক্ষকরা জানিয়েছেন, ওই হামলাকারীর সন্তানও ডে-কেয়ার সেন্টারের শিক্ষার্থী ছিল।  

জেলা কর্মকর্তা জিদাপা বুনসোম জানান, মাদকসংশ্লিষ্টতার কারণে হামলাকারীকে পুলিশ বাহিনী থেকে বরখাস্ত করা হয়।  ডে-কেয়ার সেন্টারটিতে দুপুরের খাবার সময় ৩০টি শিশু ছিল। হামলাকারী প্রথমে ওই ডে-কেয়ার সেন্টারের পাঁচ থেকে ছয়জন কর্মীকে গুলি করেন। আশপাশের মানুষ প্রথম ভেবেছিল এটি কোনো আতশবাজি ফোটানোর ঘটনা।   

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে পোস্ট করা ভিডিওতে দেখা যায়, উথাই সাওয়ান শহরে শিশুদের মরদেহ পড়ে আছে। তবে এই ভিডিও সত্যতা যাচাই করা যায়নি।

থাইল্যান্ডে এমন বন্দুক হামলার ঘটনা বিরল। ২০২০ সালে সম্পত্তি নিয়ে বিরোধের জেরে দেশটিতে এক সেনা সদস্যের গুলিতে ২৯ জন নিহত ও ৫৭ জন আহত হন।  

সূত্র: বিবিসি

বাংলাদেশ সময়: ১৯০৫ ঘণ্টা, অক্টোবর ০৬, ২০২২
ইআর

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa