ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৪ আশ্বিন ১৪২৯, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০২ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪

আইন ও আদালত

ধর্ষণ মামলায় টাঙ্গাইলে একজনের যাবজ্জীবন

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট   | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২১৫৭ ঘণ্টা, আগস্ট ১৬, ২০২২
ধর্ষণ মামলায় টাঙ্গাইলে একজনের যাবজ্জীবন প্রতীকী ছবি

টাঙ্গাইল: কলেজছাত্রীকে অপহরণ করে দীর্ঘদিন আটকে রেখে ধর্ষণের অভিযোগে টাঙ্গাইলে মো. বাদল মিয়া (৪৫) নামে এক ব্যক্তিকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। একই সঙ্গে তাকে এক লাখ টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও এক বছর কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

মঙ্গলবার (১৬ আগস্ট) বিকেলের দিকে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক খালেদা ইয়াসমিন এ রায় দেন।  

দণ্ডপ্রাপ্ত বাদল জেলার সখীপুর উপজেলার রতনপুর গ্রামের দরবেশ আলীর ছেলে।

নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের সহকারী সরকারি কৌঁসুলি (এপিপি) মোহাম্মদ আব্দুল কুদ্দুস জানান, ২০১৭ সালের ১১ জানুয়ারি সখীপুরের উচ্চ মাধ্যমিক দ্বিতীয়বর্ষের এক ছাত্রীকে ফুসলিয়ে অপহরণ করে নিয়ে যান বাদল। পরে তাকে পরিত্যক্ত একটি ঘরে আটকে রাখেন। ওই ঘরে ছয় মাস আটকে রেখে তাকে ধর্ষণ করেন তিনি। ওই বছর ২৯ জুলাই ভিকটিমকে গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় ওই ঘর থেকে উদ্ধার করা হয়। পরে ওই ছাত্রীর ভাই বাদী হয়ে সখীপুর থানায় বাদলকে আসামি করে মামলা দায়ের করেন। বাদল গ্রেফতার হওয়ার আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন। তদন্ত শেষে গোয়েন্দা পুলিশের উপ-পরিদর্শক (এসআই) শামসুল ইসলাম ২০১৮ সালের ০১ জুন বাদলের নামে আদালতে চার্জশিট (অভিযোগপত্র) জমা দেন।

মামলা চলাকালে বাদল জামিনে মুক্তি পান। তারপর থেকে তিনি পলাতক রয়েছেন।

বাংলাদেশ সময়: ২১৫৫ ঘণ্টা, আগস্ট ১৬ৎ, ২০২২
এসআরএস

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa