ঢাকা, সোমবার, ১৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৯, ২৮ নভেম্বর ২০২২, ০৩ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

আইন ও আদালত

বড় ভাইকে হত্যার দায়ে ছোট ভাইয়ের যাবজ্জীবন

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট  | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৩৪১ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ২৭, ২০২২
বড় ভাইকে হত্যার দায়ে ছোট ভাইয়ের যাবজ্জীবন আসামি মান্নান।

লক্ষ্মীপুর: লক্ষ্মীপুরে বড় ভাই আবদুল হান্নানকে (২৫) কুপিয়ে হত্যার দায়ে ছোটভাই আবদুল মান্নানকে (২৩) যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। একই সঙ্গে ১০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে এক বছরের কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

মঙ্গলবার (২৭ সেপ্টেম্বর) সকাল ১১টার দিকে জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক মো. রহিবুল ইসলাম আসামির উপস্থিতিতে এ রায় ঘোষণা করেন। পরে আদালত তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।  

জেলা জজ আদালতের সরকারি কৌঁসুলি অ্যাডভোকেট জসিম উদ্দিন রায়ের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।  

তিনি বলেন, বড় ভাই হান্নানকে হত্যার ঘটনায় আদালতে দোষী সাব্যস্ত হওয়ায় তার ছোটভাই মান্নানকে যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদণ্ড, ১০ হাজার টাকা জরিমানা, অনাদায়ে এক বছর কারাদণ্ড দেন আদালত।  

মামলার এজাহার এবং আদালত সূত্র জানায়, লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলার পার্বতীনগর ইউনিয়নের চর পার্বতীনগর গ্রামের আনু মুন্সি বাড়ির বাসিন্দা আবুল কালামের দুই ছেলে আবদুল হান্নান ও আবদুল মান্নান। হান্নানকে বিয়ে করানের পর থেকে দুই ভাইয়ের মধ্যে বিরোধ সৃষ্টি হয়। বড় ভাই হান্নান তার স্ত্রীকে নিয়ে মান্নানের প্রতি সন্দেহ পোষণ করেন। ২০১৯ সালের ১৯ ফ্রেব্রুয়ারি ঘটনার রাত পৌনে ১২টার দিকে হান্নান তার ছোটভাইকে নিজের বসতঘরের জানালার পাশে দেখতে পান। এ নিয়ে তার স্ত্রীর সঙ্গে ঝগড়া শুরু হয়। একপর্যায়ে তাকে মারধর করেন। এ সময় জানালার পাশে থাকা ছোট ভাই মান্নান একটি দা নিয়ে হান্নানের ঘরে ঢোকেন। কথা-কাটাকাটির একপর্যায়ে মান্নান তার বড়ভাই হান্নানের ঘাড়ে দা দিয়ে কোপ দেন। দায়ের কোপে হান্নানের ঘাড়ে বেশিরভাগ অংশ আলাদা হয়ে যায়। এতে ঘটনাস্থলে তার মৃত্যু হয়।  

ভোর রাতে পুলিশ মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য জেলা সদর হাসপাতালে পাঠায়।  

এ ঘটনায় তাদের বাবা আবুল কালাম বাদী হয়ে ২০ ফেব্রুয়ারি ছোট ছেলে মান্নানকে আসামি করে সদর থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন। পরদিন পুলিশ মান্নানকে গ্রেফতার করে। পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদে তিনি ঘটনার সঙ্গে সম্পৃক্ততার কথা স্বীকার করে আদালতে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দেন।  

২০১৯ সালের ১৫ এপ্রিল মামলার তদন্ত কর্মকর্তা সেই সময়ের সদর থানার উপপরিদর্শক (এসআই) রানা দাস আসামি মান্নানকে অভিযুক্ত করে আদালতে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করেন।  

আদালত সাক্ষ্য প্রমাণের ভিত্তিতে মান্নানকে দোষী সাব্যস্ত করে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেন।  

এদিকে আসামিপক্ষের আইনজীবী রেজাউল করিম রাজু পাটওয়ারী বলেন, আদালতে আমরা ন্যায় বিচার পাইনি। আমরা উচ্চ আদালতে যাব।

বাংলাদেশ সময়: ১৩৩৯ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ২৭, ২০২২

আরএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa