ঢাকা, শনিবার, ২১ মাঘ ১৪২৯, ০৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ১২ রজব ১৪৪৪

জাতীয়

মৈত্রী এক্সপ্রেস লাইনচ্যুত, সচল রয়েছে উত্তরাঞ্চলের রেল যোগাযোগ 

উপজেলা করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০১১৬ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ৮, ২০২২
মৈত্রী এক্সপ্রেস লাইনচ্যুত, সচল রয়েছে উত্তরাঞ্চলের রেল যোগাযোগ  ছবি: সংগৃহীত

পাবনা (ঈশ্বরদী): ট্রেনের চাকার ক্ষয়রোধ করতে উল্টো দিকে ট্রেনের মুখ ঘোরানোর সময় ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা কলকাতাগামী মৈত্রী এক্সপ্রেস ফাঁকা ট্রেনের একটি বগির ছয়টি চাকা লাইনচ্যুত হয়েছে। এ ঘটনায় চার সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করা করা হয়েছে।

 

তবে বন্ধ হয়নি উত্তরাঞ্চলের সঙ্গে রাজধানী ঢাকার রেল যোগাযোগ। ট্রেনগুলো ঈশ্বরদী জংশন প্রবেশ করে ইঞ্জিন ঘুরিয়ে চলবে এতে স্বল্প কিছুটা সময় বিঘ্নিত হবে। যাত্রীদের ভোগান্তি কমাতে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।  

বুধবার (৭ ডিসেম্বর) রাত ১১টায় ঈশ্বরদী-আব্দুলপুর রেল সেকশনের ঈশ্বরদী-আজিমনগর রেল স্টেশনের মধ্যবর্তী ঈশ্বরদী বাইপাস স্টেশনের অদূরে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

পাকশী বিভাগীয় রেলওয়ের পরিবহন কর্মকর্তা (ডিটিও) আনোয়ার হোসেন বাংলানিউজকে এতথ্য নিশ্চিত করেছেন।

এ ঘটনায় পাকশী বিভাগীয় পরিবহন কর্মকর্তা, আনোয়ার হোসেনকে আহ্বায়ক করে তিন সদস্য বিশিষ্ট তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। অন্য তিন সদস্যরা হলেন-পাকশী বিভাগীয় প্রকৌশলী -২ বীরবল মণ্ডল, বিভাগীয় যান্ত্রিক প্রকৌশলী মমতাজুল ইসলাম, সংকেত ও টেলিযোগাযোগ প্রকৌশলী, এমএম রাজিববিল্লাহ।  

পাকশী বিভাগীয় রেলওয়ের যান্ত্রিক প্রকৌশলী মমতাজুল ইসলাম বাংলানিউজকে জানান, ট্রেনের গতিপথ অনেকদিন ধরে একই দিকে থাকলে ট্রেনের চাকার নিদিষ্ট জায়গায় ক্ষয় হয়। ট্রেনের চাকার এই ক্ষয়রোধ করতে উল্টো দিকে ট্রেন চালানো হয়। যাত্রীবাহী ট্রেনের মুখ ঘোরানোর জন্য ২/৩ বছর পর এটা করতে হয়।  

বুধবার (৭ ডিসেম্বর) রাত ১১টায় কলকাতাগামী মৈত্রী এক্সপ্রেস ট্রেন ঢাকা থেকে ছেড়ে এসে চাটমোহর অতিক্রম করে ঈশ্বরদী জংশন স্টেশনে না এসে ঈশ্বরদী বাইপাস স্টেশন থেকে গিয়ে ট্রেনটি ঘুরানোর সময় মৈত্রী এক্সপ্রেস ট্রেনের একটি বগির ছয়টি চাকা লাইনচ্যুত হয়।

পাকশী বিভাগীয় পরিবহন কর্মকর্তা আনোয়ার হোসেন বাংলানিউজকে জানান, দুর্ঘটনার পর ঈশ্বরদী লোকোমোডিভ কারখানা থেকে রিলিফ ট্রেনসহ উদ্ধারকর্মীরা ইতোমধ্যে রওনা হয়েছে, উদ্ধারকাজ শুরু হলে রেললাইন সচল করে ট্রেন চলাচলের উপযোগী করতে এক ঘণ্টা সময় লাগবে। এই রুটের ট্রেনগুলোকে বিকল্প ব্যবস্থায় চালানো হবে। যাত্রীদের ভোগান্তি কমাতে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।  

ডিটিও আরও জানান, এতে উত্তরাঞ্চলের সঙ্গে রাজধানী ঢাকার ট্রেন চলাচলে কোন বিঘ্ন ঘটবে না। ট্রেনগুলো সরাসরি  ঈশ্বরদী জংশন স্টেশনে এসে ইঞ্জিন ঘুরিয়ে ঈশ্বরদী জংশন দিয়ে আবার ছেড়ে যাবে। এতে মাত্র ২০ মিনিট সময় বিঘ্নিত হবে।  

পাকশী বিভাগীয় রেলওয়ের ব্যবস্থাপক (ডিআরএম) শাহ সুফী নুর মোহাম্মদ বাংলানিউজকে জানান, উত্তরাঞ্চলের সঙ্গে রাজধানী ঢাকার মধ্যে চলাচলকারী কোনো ট্রেন চলাচল বন্ধ হবে না। ট্রেনগুলো ঈশ্বরদী জংশন এসে ঈশ্বরদী থেকে চলাচল করবে। এ ঘটনায় চার সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করা করা হয়েছে। তিন কার্যদিবসে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করতে বলা হয়েছে।

বাংলাদেশ সময়: ০১১২ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ০৮, ২০২২
আরএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa