ঢাকা, বুধবার, ৪ বৈশাখ ১৪৩১, ১৭ এপ্রিল ২০২৪, ০৭ শাওয়াল ১৪৪৫

জাতীয়

এক মাদ্রাসা শিক্ষার্থীর গলা কেটে দিল আরেক শিক্ষার্থী

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট  | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০৮২৫ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ২১, ২০২৪
এক মাদ্রাসা শিক্ষার্থীর গলা কেটে দিল আরেক শিক্ষার্থী

ঢাকা: রাজধানীর কামরাঙ্গীরচর মুন্সিহাটি এলাকার একটি মাদ্রাসায় ধারালো অস্ত্র দিয়ে গলা কেটে ওয়ালিউল্লাহ (২২) নামে এক শিক্ষার্থীকে আহত করার ঘটনা ঘটেছে।

মঙ্গলবার (২০ফেব্রুয়ারি) সন্ধ্যা ৭টার দিকে মুন্সিহাটি জামিয়াতুল আবরার মাদ্রাসায় ঘটনাটি ঘটে।

আহত অবস্থায় অন্যান্য শিক্ষার্থীরা তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে আসে।

তাকে হাসপাতালে নিয়ে আসা শিক্ষার্থী মো. হাবিবুর রহমান জানান, তাদের মাদ্রাসা সাততলা। ওয়ালিউল্লাহ মাদ্রাসার নিচতলায় থাকে এবং কিতাব বিভাগে পড়াশুনা করে।

সন্ধ্যার দিকে হঠাৎ রক্তাক্ত অবস্থায় রুম থেকে বের হয়ে বলে আমাকে ছুরি দিয়ে গলা কেটে ফেলেছ। পরে দ্রুত তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়। তারা পরে জানতে পেরেছে পড়াশুনার বিষয় নিয়ে তর্কের এক পর্যায়ে আরেক ছাত্র আব্দুন রহমান(১৬) ধারালো অস্ত্র দিয়ে ওয়ালিউল্লার গলায় আঘাত করে পালিয়ে যায়।

ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ পরিদর্শক মো. বাচ্চু মিয়া জানান, কামরাঙ্গিরচড় এলাকার একটি মাদ্রাসা থেকে গলাকাটা এক ছাত্র আহত হয়ে হাসপাতালে এসেছে। তার গলার সামনে অনেক খানি কেটে গেছে। বর্তমানে হাসপাতালের নাক-কান-গলা বিভাগে চিকিৎসাধীন আছে। ওয়ালিউল্লাহর বাড়ি ভোলা জেলার বোরহান উদ্দিন উপজেলায়। বাবার নাম মৃত ওসমানগনি।

বাংলাদেশ সময়: ০৮২৫ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ২১, ২০২৪
এজেডএস/এমএম

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।