ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ১৯ মে ২০২২, ১৭ শাওয়াল ১৪৪৩

জাতীয়

সিলেটে করোনার সংক্রমণ বেড়ে ১৭ শতাংশে

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০১২৩ ঘণ্টা, জানুয়ারি ১৯, ২০২২
সিলেটে করোনার সংক্রমণ বেড়ে ১৭ শতাংশে

সিলেট: সিলেটে আবারও ভয়াবহ আকার ধারণ করছে করোনা পরিস্থিতি । প্রতিদিনই পাল্লা দিয়ে বাড়ছে সংক্রমণের হার।

মঙ্গলবার (১৮ জানুয়ারি) ২৪ ঘন্টায় আরও ২০৯ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। এদিন শনাক্তের হার বেড়ে ১৭ দশমিক ৭৩ শতাংশে পৌছেছে। তবে আক্রান্তরা কোন ভ্যারিয়েন্ট বহন করছে, তা নিশ্চিত নয় স্বাস্থ্য বিভাগ।

সিলেট বিভাগীয় স্বাস্থ্য অধিদফতরের তথ্যমতে, ২৪ ঘণ্টায় সিলেট বিভাগে থেকে ১ হাজার ১৭৯ জনের নমুনা পরিক্ষায় ২০৯ জনের করোনা শনাক্ত হয়। তন্মধ্যে সিলেট জেলায় ৯২৯ জনের নমুনা পরিক্ষায় শনাক্ত হন ১৪৭ জন। শনাক্তের হার ১৫ দশমিক ৮২ শতাংশ। সুনামগঞ্জে ৫৭ জনের নমুনা পরিক্ষায় ৭ জনের করোনা শনাক্ত হয়। শনাক্তের হার ১২ দশমিক ২৮ শতাংশ। হবিগঞ্জে ৯৬ জনের মধ্যে ২৬ জনের করোনা শনাক্ত হয়। শনাক্তের হার ২৭ দশমিক ৮ শতাংশ এবং মৌলভীবাজারে ৯৭টি নমুনা পরিক্ষায় ২৯ জনের করোনা শনাক্ত হয়। শনাক্তের হার ২৯ দশমিক ৯০ শতাংশ।

নতুন এই ২০৯ জনসহ সিলেট বিভাগে করোনা প্রমাণিত রোগীর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৫৬ হাজার ৬৪ জনে। এরমধ্যে শুধুমাত্র সিলেট জেলায় আক্রান্ত হয়েছেন ৩৪ হাজার ৭৩৫ জন। এছাড়া সুনামগঞ্জে ৬ হাজার ২৮১ জন, হবিগঞ্জে ৬ হাজার ৭৫১ জন ও মৌলভীবাজারে ৮ হাজার ২৯৭ জনের করোনায় আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছে।

গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ১১ জন। এরমধ্যে ৯ জন সিলেটের ও মৌলভীবাজারে বাসিন্দা ২ জন। এ নিয়ে সুস্থ হওয়ার সংখ্যা দাঁড়ালো ৫০ হাজার ১৮৫ জন। এর মধ্যে সিলেট জেলার ৩১ হাজার ৮৩৯ জন।

এছাড়া এখন পর্যন্ত সুনামগঞ্জে ৬ হাজার ১৫৩ জন, হবিগঞ্জে ৪ হাজার ৭০৬ জন ও মৌলভীবাজারে ৭ হাজার ৪৮৭ জন সুস্থ হয়েছেন।

গত ২৪ ঘণ্টায় সিলেট বিভাগের বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন ১০ জন করোনা আক্রান্ত রোগী। এরমধ্যে সিলেটের বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন ৯ জন এবং হবিগঞ্জে ১জন।

এছাড়া এখন পর্যন্ত সিলেট বিভাগের বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন ৩৮ জন। এরমধ্যে সিলেট জেলায় ৩১ জন, সুনামগঞ্জে ৩ জন, হবিগঞ্জে ২ জন, মৌলভীবাজারে আরও ২ জন।

গত ২৪ ঘণ্টায় সিলেট বিভাগে করোনায় আক্রান্ত হয়ে কারও মৃত্যু হয়নি। তবে এ যাবত বিভাগে করোনায় মৃতের সংখ্যা দাঁড়ালো ১ হাজার ১৮৬ জনে। এরমধ্যে সিলেট জেলার ৯৯১ জন, সুনামগঞ্জে ৭৫ জন, হবিগঞ্জে ৪৮ জন ও মৌলভীবাজারের ৭২ জন।

সংশ্লিষ্টরা বলেন, বিভাগীয় শহর সিলেটে ওমিক্রন শনাক্তের সুযোগ-সুবিধা নেই। ফলে ল্যাবে করোনা পজিটিভ শনাক্ত ব্যতিরেকে নতুন এই ভ্যারিয়েন্ট শনাক্তে বিকল্প কোনো সুযোগ নেই। ফলে করোনা পজিটিভ শনাক্তকৃতরা ওমিক্রন আক্রান্ত কিনা, তা নিশ্চিত হতে পারছেন না সংশ্লিষ্টরা।

বাংলাদেশ সময়: ০১২৩ ঘন্টা, জানুয়ারি ১৯, ২০২২
এনইউ/আরইউ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa