ঢাকা, বুধবার, ২১ আষাঢ় ১৪২৯, ০৬ জুলাই ২০২২, ০৬ জিলহজ ১৪৪৩

জাতীয়

ফখরুলের বক্তব্য ‘ভূতের মুখে রাম নাম’

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৪৫৩ ঘণ্টা, মে ২৩, ২০২২
ফখরুলের বক্তব্য ‘ভূতের মুখে রাম নাম’ ওবায়দুল কাদের

ঢাকা: বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুলের মুখে গণমাধ্যমের স্বাধীনতার কথা ‘ভূতের মুখে রাম নাম’ ছাড়া কিছু নয় বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

তিনি (ফখরুল) গণমাধ্যমের স্বাধীনতা নিয়ে জ্ঞান দিচ্ছেন।

অথচ প্রতিদিন তাদের নেতাদের মিথ্যাচারের সংবাদ গণমাধ্যমেপরিবেশিত হচ্ছে। ষড়যন্ত্রের পথ পরিহার করে দায়িত্বশীল ভূমিকা পালন না করলে দলটিকে মারাত্মক বিপর্যয়ের সম্মুখীন হতে হবে বলেও মন্তব্য করেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী।

সোমবার (২৩ মে) গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে এসব মন্তব্য করেন ওবায়দুল কাদের। এতে গণমাধ্যমের স্বাধীনতা নিয়ে মির্জা ফখরুলের চিরাচরিত মিথ্যাচার ও দূরভিসন্ধিমূলক বক্তব্যের নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান তিনি।

বিবৃতিতে ওবায়দুল কাদের বলেন, বিএনপি ষড়যন্ত্রের পথ পরিহার করে দায়িত্বশীল ভূমিকা পালন না করলে তাদেরকে মারাত্মক বিপর্যয়ের সম্মুখীন হতে হবে। মির্জা ফখরুল গণমাধ্যমের স্বাধীনতা নিয়ে জাতিকে জ্ঞান দিচ্ছেন! অথচ প্রতিদিন গণমাধ্যমে বিএনপি নেতাদের মিথ্যাচারের বিস্তারিত সংবাদ পরিবেশিত হচ্ছে। এমনকি টেলিভিশনে তাদের বিভিন্ন কর্মসূচি সরাসরি লাইভ সম্প্রচার করা হচ্ছে।

বিএনপি নেতাদের মনগড়া ও নির্জলা মিথ্যাচার কোনো রকম সম্পাদনা ছাড়াই গণমাধ্যমে প্রচার হচ্ছে। টক-শো’সহ বিভিন্ন প্রোগ্রামে বিএনপি নেতাদের উদ্দেশ্যপ্রণোদিত মিথ্যাচার ও অপপ্রচার প্রতিদিন সম্প্রারিত হচ্ছে। তারপরও তারা গণমাধ্যমের স্বাধীনতা নিয়ে অবান্তর প্রশ্ন তুলছেন!

আওয়ামী লীগের সাধার‌ণ সম্পাদক বলেন, আমরা দ্ব্যর্থহীন ভাষায় বলতে চাই, সফল রাষ্ট্রনায়ক শেখ হাসিনার নেতৃত্বেই গণমাধ্যমের স্বাধীনতার আকাশ উন্মুক্ত হয়েছে। এখন বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটের মাধ্যমে শুধু সরকারি টেলিভিশন চ্যানেল নয়; বেসরকারি টেলিভিশনও এটি ব্যবহার করে বাণিজ্যিক সম্প্রচারের সুবিধা ভোগ করছে।

বিবৃতিতে সরকারের মাধ্যমে গণমাধ্যমের উন্নয়নের কিছু বিষয় উল্লেখ করেন ওবায়দুল কাদের। বর্তমান সরকার সাংবাদিকদের মর্যাদা বৃদ্ধি এবং অধিকার সুপ্রতিষ্ঠার জন্য ‘গণমাধ্যম কর্মী আইন’ প্রণয়নের পদক্ষেপ নিয়েছে বলেও তিনি উল্লেখ করেন। কাদের আরও বলেন, বিএনপির শাসনামলে সাংবাদিকদের মর্যাদা ও অধিকার বিবেচনা করা হয়েছিল শ্রম আইনের আওতায়। তাদের সময় সাংবাদিকদের নূন্যতম সামাজিক মর্যাদা রক্ষা করা হয়নি।

এ সময় মির্জা ফখরুলের মুখে গণমাধ্যমের স্বাধীনতার কথা ‘ভূতের মুখে রাম নাম’ ছাড়া কিছু নয় বলে মন্তব্য করেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী। তিনি বলেন, বিএনপির শীর্ষ নেতৃত্বের দুর্নীতি ও এতিমের অর্থ আত্মসাতের দায়ে আদালত কর্তৃক সাজাপ্রাপ্ত হওয়ায় দলটি দেউলিয়া ও দিশেহারা হয়ে পড়েছে। জনবিচ্ছিন্ন বিএনপির একমাত্র অস্ত্রই মিথ্যাচার ও গুজব।

বিএনপি শাসনামলে সাংবাদিক হত্যা ও নির্যাতনের ব্যাপারে উল্লেখ করেন ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেন, দেশবাসী ভুলে যায়নি, বিএনপি-জামায়াত অশুভ জোট শাসনামলে বিবিসির মানিক চন্দ্র সাহা, খুলনা প্রেসক্লাবের সভাপতি ও দৈনিক জন্মভূমি পত্রিকার সম্পাদক হুমায়ুন কবির বালুসহ ১৬ জন সাংবাদিককে হত্যা করা হয়েছিল।

সে সময় সাংবাদিকদের বিরুদ্ধে পাঁচ শতাধিক মামলা হয়। ৮০০ হামলার ঘটনা ঘটেছিল। ব্রিটিশ টেলিভিশন চ্যানেল ফোর’র সাংবাদিক লিওপোল্ড ব্রুনো সরেন্তিনো, জেইবা মালিকসহ কয়েকজন বিদেশি সাংবাদিককে গ্রেপ্তার করে নির্যাতন চালানো হয়েছিল। এমনকি জঙ্গি হামলার ঘটনায় উদ্দেশ্যেপ্রণোদিত অনেক সাংবাদিককে আসামি করা হয়েছিল। যে কারণে ‘রিপোর্টার উইদাউট বর্ডারস’ বিএনপির শাসনামলে বাংলাদেশ সাংবাদিকদের জন্য পৃথিবীর সবচেয়ে বিপজ্জনক রাষ্ট্র হিসেবে ঘোষণা করেছিল।

বিবৃতিতে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আরও বলেন, আমরা মির্জা ফখরুল ইসলামদের মর্মবেদনা বুঝি। রাজনৈতিক ব্যর্থতার ভারে ন্যুব্জ বিএনপির কাছে স্বাধীনতার অর্থ কী তা দেশবাসী জানে। বন্দুকের নলের মুখে গণমাধ্যমকর্মীদের জিম্মি করে রেডিও-টেলিভিশন ভাষণে নিজেকে অবৈধভাবে রাষ্ট্রপতি ঘোষণার মধ্য দিয়ে অসাংবিধানিক পন্থায় রাষ্ট্র ক্ষমতাদখলকারী স্বৈরাচার জিয়াউর রহমানের হাতে প্রতিষ্ঠিত দল বিএনপি। দলটির নেতাদের মুখে গণমাধ্যমের স্বাধীনতার কথা মানায় না।

গণমাধ্যম নিয়ে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের বক্তব্য গণমাধ্যম ও সাংবাদিকতা বিরোধী নতুন ষড়যন্ত্রের বর্হিপ্রকাশ। আমরা বিএনপি নেতাদের প্রতি আহ্বান জানাবো আপনারা মিথ্যাচার ও অপপ্রচারের পথ পরিহার করে মহান মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় আস্থা রেখে দায়িত্বশীল ভূমিকা পালন করুন। আপনারা ষড়যন্ত্রের পথ পরিহার করে দায়িত্বশীল ভূমিকা পালন করলে বাংলাদেশের অগ্রগতি ও সমৃদ্ধির পথ প্রতিবন্ধকতা মুক্ত হবে। অন্যথায় দলটিকে মারাত্মক বিপর্যয়ের সম্মুখীন হতে হবে বলেও উল্লেখ করেন ওবায়দুল কাদের।

বাংলাদেশ সময়: ০২৫৩ ঘণ্টা, ২৩ মে, ২০২২
এসকে/এমজে

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa