ঢাকা, রবিবার, ১ কার্তিক ১৪২৮, ১৭ অক্টোবর ২০২১, ০৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

রাজনীতি

২৪ আগস্ট ঢাকায় ২৬ আগস্ট সারাদেশে বিএনপির বিক্ষোভ সমাবেশ

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০৭১৯ ঘণ্টা, আগস্ট ১, ২০১০
২৪ আগস্ট ঢাকায় ২৬ আগস্ট সারাদেশে বিএনপির বিক্ষোভ সমাবেশ

ঢাকা: তারেক রহমানের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার ও আরাফাত রহমান কোকোর প্যারোল বাতিলের প্রতিবাদে দু’দিনের বিক্ষোভ-সমাবেশের ডাক দিয়েছে বিএনপি।

এ লক্ষ্যে আগামী ২৪ আগস্ট জেলা শহরগুলোতে বিক্ষোভের পর ২৬ আগস্ট রাজধানীর মুক্তাঙ্গনে প্রতিবাদ সমাবেশ করবে তারা।



রোববার দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এ কর্মসূচি ঘোষণা করেন বিএনপি মহাসচিব খন্দকার দেলোয়ার হোসেন।

কোকোর প্যারোল প্রত্যাহারের সরকারি সিদ্ধান্ত বাতিল করে তার মুক্তির আদেশ পুনর্বহালের আহ্বান জানিয়ে খন্দকার দেলোয়ার বলেন, ‘আপনারা নিজেদের সকল মামলা তুলে নিয়েছেন। এবার আমাদের মামলা তুলে নিয়ে একই সমতায় আসুন। ’

তিনি বলেন, সরকার নিজেদের ত্রুটিই ধরতে পারছে না, তারা কীভাবে দেশের সমস্যার সমাধান করবে?

তিনি বলেন, তারা ক্ষমতা গ্রহণের আগে যে অঙ্গীকার করেছিল তা ভুলে গেছে। আসলে তারা দেশের মানুষের জন্য কিছু করতে ক্ষমতায় আসেনি। যারা তাদের ক্ষমতায় বসিয়েছে, তাদের স্বার্থ রক্ষায়  তারা ব্যস্ত হয়ে পড়েছে।

কোকো প্যারোলের কোনো শর্ত ভাঙেননি দাবি করে দেলোয়ার বলেন, ‘সরকার মিথ্যাচার করছে। সরকারের উদ্দেশ্য সৎ নয়। তারা আসলে কী চায়? তারা আসলে তারেক রহমান ও আরাফাত রহমান কোকোকে দেশে এনে জেলে ঢুকিয়ে মেরে ফেলতে চায়। ’

তিনি এ সরকারকে বিগত তত্ত্বাবধায়ক সরকারের চেয়েও নিষ্ঠুর আখ্যায়িত করে বলেন, বিরোধী দলের প্রতি প্রতিহিংসাবশত সরকার এ ধরনের আচরণ করছে।

তিনি বলেন, ‘আরাফাত রহমান সাবেক রাষ্ট্রপতি ও সাবেক প্রধানমন্ত্রীর সন্তান। সে বাংলাদেশের নাগরিক। তার খোঁজখবর নেওয়ার দায়িত্ব সরকারেরও। কিন্তু সরকারি দূতাবাসগুলো সহযোগিতা তো করেই না, বরং কোনো কাজে গেলে ঘণ্টার পর ঘণ্টা বসে থাকতে হয়। সরকারের এ ধরনের আচরণ অমানবিক ও বেদনাদায়ক। ’

সম্প্রতি ভারতের সঙ্গে সম্পাদিত চুক্তি সম্পর্কে দেলোয়ার বলেন, সরকার ভারতের সঙ্গে যে চুক্তি করেছে সে অনুযায়ী দেশে বাস, ট্রাক, ট্রেন সব চলবে। কী চলবে না তা জনগণ জানে না। সরকার গোপন চুক্তি করে জনগণের সাথে আলো-আঁধারে লুকোচুরি খেলছে।

সরকারে সমালোচনা করে তিনি আরও বলেন, সরকার ক্ষমতায় এসে লুটে-পুটে খাচ্ছে আর আবোল তাবোল বলছে। জনগণ তাদের ক্ষমা করবে না। তাদের কোনো কাজ নেই, ইস্যু নেই। তারা মিথ্যাচার ও মিথ্যা মামলা দিতে ব্যস্ত।

প্রণব মুখার্জীর বাংলাদেশ সফরকালে শেখ হাসিনাকে প্রশংসা করার বিষয়টি উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘২২ তারিখের নির্বাচন বানচাল করে, ষড়যন্ত্র করে আওয়ামী লীগকে ক্ষমতায় এনেছেন কার স্বার্থে? আপনাদের স্বার্থ হাসিলের জন্য। জনগণ এখন আর আপনাদের বিশ্বাস করে না। ’

তিনি সরকারকে উদ্দেশ্য করে বলেন, হত্যা, ধর্ষণ, সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড করে আপনারা দেশকে অন্ধকারে ঠেলে দিচ্ছেন।

সরকারকে প্রতিহিংসার রাজনীতি পরিহারের আহ্বান জানিয়ে দেলোয়ার বলেন, ৩৯ বছরে আমরা কতটুকু এগুতে পেরেছি? কেন পারিনি। আমরা যদি প্রতিহিংসার রাজনীতি পরিহার না করি তবে দেশ কখনই উন্নত হবে না।

তিনি বলেন, ‘২১ আগস্টের ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত করে অপরাধীদের যথাযথ বিচার হোক তা আমরাও চাই। এটি নির্মম ও দুঃখজনক ঘটনা। তবে এর তদন্ত ও বিচারে যেন রাজনৈতিক রঙ দেওয়া না হয়।

তিনি সরকারকে বিচারের নামে রাজনৈতিক নেতা-কর্মীদের হয়রানি, অগণতান্ত্রিক আচরণ ও কার্যকলাপ থেকে বিরত থাকার আহ্বান জানান।

সরকারের প্রতি হুঁশিয়ারি উচ্চরিণ করে তিনি বলেন, আপনারা ভারতের সাথে যে দেশবিরোধী চুক্তি করেছেন তা জনগণ কখনো মেনে নেবে না।

সংবাদ সম্মেলনে আরো উপস্থিত ছিলেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব মীর্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা মীর মোহম্মদ নাসিরউদ্দিন, সাংগঠনিক সম্পাদক ফজলুল হক মিলন, যুবদল সভাপতি মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল প্রমুখ।

বাংলাদেশ সময়: ১৮০৮ ঘণ্টা, আগস্ট ২২, ২০১০

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa