ঢাকা, শনিবার, ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৯, ০৩ ডিসেম্বর ২০২২, ০৮ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

রাজনীতি

৯ দফা নিয়ে যুগপৎ আন্দোলনে নামবে বিএনপি

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১০৫৪ ঘণ্টা, অক্টোবর ৪, ২০২২
৯ দফা নিয়ে যুগপৎ আন্দোলনে নামবে বিএনপি

ঢাকা: নয় দফা দাবি সম্বলিত আন্দোলনের রূপরেখার খসড়া প্রস্তুত করেছে বিএনপি। সংশ্লিষ্ট সব প্লাটফর্ম ও দলের সঙ্গে আলোচনা করে এ রূপরেখা চূড়ান্ত করা হবে।

এরপর খুব শিগগিরই তা জাতির সামনে উপস্থাপন করা হবে বলে দলীয় সূত্রে জানা গেছে। এ নয় দফা সামনে নিয়ে যুগপৎ আন্দোলনে নামবে বিএনপিসহ সমমনা দলগুলো।

বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, খুব শিগগিরই আন্দোলনের রূপরেখা প্রকাশ করা হবে। স্বৈরাচারী, কর্তৃত্ববাদী অবৈধ সরকারকে সরিয়ে জনগণের সরকার প্রতিষ্ঠা করার জন্য জাতীয় ঐক্য গড়ে তোলার প্রক্রিয়া আগেই শুরু হয়েছে। দ্বিতীয় দফায় আন্দোলনের দাবিগুলো নিয়ে আলোচনা চলছে। আলোচনা শেষ হলে সবাই একমত হয়ে দাবিগুলো জনগণের সামনে উত্থাপন করা হবে।

জানা গেছে, নয় দফা দাবি চূড়ান্ত করতে সমমনা রাজনৈতিক দলগুলোর সঙ্গে দ্বিতীয় দফায় সংলাপ শুরু করেছে বিএনপি। গত ২ অক্টোবর থেকে শুরু হওয়া দ্বিতীয় দফা সংলাপে ইতোমধ্যে তিনটি দলের সঙ্গে আলোচনা শেষ হয়েছে। তারা সবাই সরকার পতনের লক্ষ্যে নয় দফার সঙ্গে একমত পোষণ করেছেন।  

জানা গেছে, অক্টোবর মাসের মধ্যেই সব দলের সঙ্গে আলোচনা শেষে রূপরেখা চূড়ান্ত করে নভেম্বরে সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে জাতির সামনে তুলে ধরা হতে পারে। আর ডিসেম্বর মাসে মাঠের আন্দোলনে নামতে পারে যুগপৎভাবে।  

বিএনপি ও সমমনাদলগুলো যেসব দাবি নিয়ে যুগপৎভাবে মাঠে নামবে বলে জানা গেছে সেগুলো হলো-বর্তমান সরকারকে পদত্যাগ করে নির্দলীয় অথবা অন্তর্বর্তীকালীন সরকারের কাছে ক্ষমতা হস্তান্তর করতে হবে। বর্তমান সংসদ বাতিল করতে হবে। নির্দলীয় অথবা অন্তর্বর্তীকালীন সরকারের তত্ত্বাবধানে নতুন নির্বাচন কমিশন গঠন ও নতুন নির্বাচন কমিশনের অধীনে জাতীয় সংসদের নির্বাচনের ব্যবস্থা করা। নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যের মূল্য কঠোরভাবে নিয়ন্ত্রণ করা এবং সহনীয় পর্যায়ে রাখা। ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন, বিশেষ ক্ষমতা আইন এবং অন্যান্য সকল কালো আইন বাতিল করা। খালেদা জিয়াসহ রাজনৈতিক নেতা, আলেম ওলামা ও সাংবাদিকদের বিরুদ্ধে দায়ের করা মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার করা ও যারা কারাগারে আছেন তাদের মুক্তি দেওয়া। জোরপূর্বক গুমের শিকার হওয়া ব্যক্তিদেরকে তাদের পরিবারের কাছে ফিরিয়ে দেওয়া। গুম ও খুনের জন্য দায়ী ব্যক্তিদের চিহ্নিত করা এবং তাদের শাস্তি নিশ্চিত করা। যারা বিদেশে অর্থ পাচার করেছে তাদেরকে চিহ্নিত করে আইনের আওতায় নিয়ে আসা।

দ্বিতীয় দফা সংলাপ শেষে বিএনপির সর্বোচ্চ নীতিনির্ধারণী ফোরাম জাতীয় স্থায়ী কমিটির বৈঠকে চূড়ান্ত অনুমোদনের পর আগামী নভেম্বর মাসের যে কোনো সময়ে দেশবাসীর সামনে এ রূপরেখা উপস্থাপন করা হবে বলে দলীয় সূত্র জানিয়েছে।

বাংলাদেশ সময়: ১০৫৩ ঘণ্টা, অক্টোবর ০৪, ২০২২
এমএইচ/এনএইচআর

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa