ঢাকা, শুক্রবার, ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ২৪ মে ২০২৪, ১৫ জিলকদ ১৪৪৫

খেলা

জার্মান লিগে অংশ নিতে ঢাকা ছাড়ছেন হকির রোমান-মাহবুব

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট, স্পোর্টস | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০২৮ ঘণ্টা, এপ্রিল ২২, ২০২৪
জার্মান লিগে অংশ নিতে ঢাকা ছাড়ছেন হকির রোমান-মাহবুব

সদ্য সমাপ্ত ঢাকা প্রিমিয়ার ডিভিশন হকি লিগে দারুণ পারফরম্যান্সের পুরস্কার হাতে-নাতে পেলেন জাতীয় দলের দুই তারকা হকি খেলোয়াড় মিডফিল্ডার রোমান সরকার এবং ফরোয়ার্ড মাহবুব হোসেন। দেশের গণ্ডি পেরিয়ে প্রথমবার দেশের বাইরের লিগে খেলার আমন্ত্রণ পেলেন বাংলাদেশ নৌবাহিনীর এ দুই চৌকষ খেলোয়াড়।

জার্মানির এভি বুবলিনজেন হকি ক্লাবের (বুন্দেসলিগা হকি) হয়ে খেলবেন তারা। লিগে অংশ নিতে আজ ভোরে (২৩ এপ্রিল) জার্মানির উদ্দেশে ঢাকা ছাড়বেন রোমান এবং মাহবুব। লিগ শেষে জুলাইয়ে ফেরার কথা রয়েছে তাদের।

এক যুগের বেশি সময় ধরে ঘরোয়া এবং আন্তর্জাতিক হকিতে দেশের প্রতিনিধিত্ব করছেন রোমান সরকার। ২০২২ সালে প্রথমবার আয়োজিত ফ্রাঞ্চাইজি হকি লিগে আইকন খেলোয়াড় হিসেবে মেট্রো এক্সপ্রেস বরিশালকে নেতৃত্ব দিয়েছেন। ২০১৩ সালে জাতীয় দলের জার্সি গায়ে তোলার পর থেকে আর বাদ পড়েননি এ মিডফিল্ডার। প্রথমবার জার্মান লিগে খেলতে যাওয়া প্রসঙ্গে রোমান বলেন, ‘এটা অনেক বড় সম্মানের। জার্মানিতে আমাদের সিনিয়র অনেকে এর আগে খেলেছেন। তারা দেশকে সম্মানিত করেছেন। সেই ধারাবাহিকতায় এবার আমি এবং আমার দুই জুনিয়র সতীর্থ (মাহবুব হোসেন ও সোহানুর রহমান সবুজ) খেলার আমন্ত্রণ পেয়েছি। আগামীকাল ভোরে আমি আর মাহবুব জার্মানির উদ্দেশে ঢাকা ছাড়বে। সবুজ এই মুহূর্তে বাংলাদেশ বিমান বাহিনীর হয়ে এখন ভারতে অবস্থান করছেন। পরে হয়তো তিনিও অংশ নিবেন। সবাই আমাদের জন্য দোয়া করবেন। যাতে আমরা দেশবাসীর মুখ উজ্জ্বল করতে পারি। দেশের পতাকার মান উঁচুতে তুলে ধরতে পারি। আমরা এমন একটা অবস্থান সেখানে তৈরি করতে চাই যাতে ভবিষ্যতে জার্মান লিগে বাংলাদেশের প্রতিনিধির সংখ্যা আরো বৃদ্ধি পায়। ’ 

একই অভিমত মাহবুব হোসেনেরও। তিনিও দেশবাসীসহ হকিপ্রেমী ভক্ত-সমর্থকদের কাছে দোয়া চেয়েছেন।  

সদ্য সমাপ্ত প্রিমিয়ার লিগ হকিতে আবাহনী লিমিটেডের জার্সিতে খেলেছেন রোমান সরকার। মাহবুব ছিলেন ঊষা ক্রীড়া চক্রের টেন্টে। লিগের মাঝপথেই জার্মানিতে খেলার আমন্ত্রণ পান তারা। বুবলিনজেন হকি ক্লাবের কোচ টমাস থাউনারের কাছ থেকে এ আমন্ত্রণ পত্র আসে বাংলাদেশ হকি ফেডারেশন বরাবর। এরপর যাবতীয় কাজ সম্পন্ন করে আজ জার্মানির বিমানে চেপে বসবেন রোমান ও মাহবুব। যাওয়াত থেকে থাকা-খাওয়া সম্পূর্ণ খরচ জার্মান ক্লাব বহন করছে। এরপর সম্মানীর বিষয় তো থাকছেই। এ ব্যাপারে রোমান বলেন, ‘সফরে আমাদের কোনো অর্থ ব্যয় করতে হচ্ছে না। সব কিছুই জার্মানির ক্লাব থেকে দেয়া হচ্ছে।

 লিগের সূচি এখনো হাতে পাইনি। আমরা সেখানে গিয়ে দলের সঙ্গে আগে অনুশীলনে যোগ দেব। যথাসম্ভব চলতি মাসের একেবারে প্রান্তিকে লিগ শুরুর কথা। আমাদের আগে-ভাগে নেয়া হচ্ছে যাতে কন্ডিশন এবং দলের সঙ্গে মানিয়ে নিতে পারি। ঢাকা প্রিমিয়ার ডিভিশন লিগে আমরা টানা ম্যাচ খেলেছি। লিগ শেষে যে দুদিন সময় পেয়েছি সেখানেও আমরা অনুশীলনে সময় ব্যয় করেছি। জার্মান লিগে আমাদের খেলার সুযোগ করে দেয়া জন্য সবার প্রতি আমার অনেক ধন্যবাদ, কৃতজ্ঞতা। ’ রোমানের সুরে সুর মেলান মাহবুবও। তিনিও সকলের নিকট ধন্যবাদ এবং কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।  

দেশের একজন পরীক্ষিত, মেধাবী-অভিজ্ঞ খেলোয়াড় হিসেবে রোমান সরকারের সুনাম সর্বজনবিদিত। শৃঙ্খলার ব্যাপারে দারুণ সচেষ্ট এ মিডফিল্ডার। জাতীয় দল থেকে ক্লাব- যখন যেখানে খেলেছেন নিজের শতভাগ দিয়ে খেলার চেষ্টা করে গেছেন। ভবিষ্যতেও এটা অব্যাহত থাকবে বলে ব্যক্ত করেছেন নারায়নগঞ্জ থেকে ঢাকার হকিতে উঠে আসা কুমিল্লার ছেলে রোমান সরকার। একজন পরীক্ষিত ফরোয়ার্ড হিসেবে মাহবুবও নিজেকে প্রমাণ করেছেন। এক দশকের ক্যারিয়ারে দারুণ সব পারফরম্যান্স উপহার দিয়ে নিজেকে অন্য এক উচ্চতায় নিয়ে গেছেন মানিকগঞ্জের ছেলে মাহবুব।

বাংলাদেশ সময়: ২০২৭ ঘণ্টা, এপ্রিল ২২, ২০২৪
এআর/আরইউ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।