ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৬ মাঘ ১৪২৮, ২০ জানুয়ারি ২০২২, ১৬ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

শেয়ার

পতন অব্যাহত, বিনিয়োগকারীদের বিক্ষোভ

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১১০৩ ঘণ্টা, মার্চ ২৪, ২০১৪
পতন অব্যাহত, বিনিয়োগকারীদের বিক্ষোভ

ঢাকা: দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) সপ্তাহের দ্বিতীয় কার্যদিবস সোমবার মূল্য সূচকের বড় পতনের মধ্য দিয়ে দিনের কার্যক্রম শেষ হয়েছে।
 
অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) সূচক ও লেনদেন উভয়ই কমেছে।


 
এদিকে, টানা দরপতনের প্রতিবাদে ডিএসই ভবনের সামনে বিক্ষোভ করেছেন সাধারণ বিনিয়োগকারীরা। দুপুর সোয়া ১টায় বিনিয়োগকারী ঐক্য পরিষদের সভাপতি মিজানুর রশীদ চৌধুরীর নেতৃত্বে বিনিয়োগকারীরা রাস্তায় নেমে বিক্ষোভ করেন।

দীর্ঘ একমাস ধরে মন্দা এবং অধিকাংশ সময় শেয়ারের দরপতনের প্রতিবাদে বিনিয়োগকারীরা ব্রোকারেজ হাউজ ছেড়ে রাজপথে নেমে আসেন।

এ সময় বিক্ষোভরত বিনিয়োগকারীরা নীতি নির্ধারণী মহলের বিরুদ্ধে বিভিন্ন ধরনের স্লোগান দেন। একই সঙ্গে দরপতন ঠেকাতে যথাযথ পদক্ষেপের দাবি জানান।

ব্যাংকের বিনিয়োগে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের নতুন পদক্ষেপ বাজারকে দরপতনের দিকে ঠেলে দিয়েছে বলে দাবি করেন বিনিয়োগকারীরা।
 
সোমবার ডিএসইতে লেনদেন হয়েছে মাত্র ২৯৮টি ৯৬ লাখ টাকা। গত রোববার ডিএসইতে লেনদেন হয়েছিল ২৪৩ কোটি ৪২ লাখ টাকার শেয়ার ও মিউচ্যুয়াল ফান্ড।
 
অপর শেয়ার বাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) লেনদেন হয়েছে ২৪ কোটি ৭০ লাখ টাকা। রোববার লেনদেন হয়েছিল ২৫ কোটি ৬৯ লাখ টাকার শেয়ার ও মিউচ্যুয়াল ফান্ড।
 
সোমবার ডিএসইতে খাত ভিত্তিক মোট লেনদেনে জ্বালানি খাতের অবদান প্রায় ৯ দশমিক ৫২ শতাংশ, টেক্সটাইল খাতের ৭ দশমিক ৮৭ শতাংশ, মিউচ্যুয়াল ফান্ড ১ দশমিক ৩৭ শতাংশ, টেলিকমিউনিকেশন খাত ৫ দশমিক ৩৫ শতাংশ, আর্থিক প্রতিষ্ঠান খাত প্রায় ৩ দশমিক ৮১ শতাংশ, ব্যাংক ৭ দশমিক ০২ শতাংশ, ওষুধ ও রসায়ন খাত ৯ দশমিক ২৩ শতাংশ, প্রকৌশল ১৭ দশমিক ৪৯ শতাংশ, খাদ্য ও আনুষঙ্গিক ১৩ দশমিক ২৯ শতাংশ এবং ইন্স্যুরেন্স খাতের অবদান ৫ দশমিক ৬৬ শতাংশ।
 
দিনের শুরুতে ডিএসইর সাধারণ সূচক সামান্য বৃদ্ধি পেলেও তা স্থায়ী হয়নি। এর কিছুক্ষণের মধ্যেই সূচক নেতিবাচক হতে থাকে। যা দিনের শেষ পর্যন্ত অব্যাহত থাকে। বেলা ১১টার দিক থেকে সূচক দিনের সর্বোচ্চ ৬ পয়েন্ট বৃদ্ধি পায়।

লেনদেন শেষে ডিএসইএক্স সূচক ৫৩ পয়েন্ট কমে অবস্থান করে ৪ হাজার ৪৬৬ পয়েন্টে।
 
ডিএসই-৩০ সূচক ২৫ পয়েন্ট কমে এক হাজার ৫৮৯ পয়েন্টে এবং ডিএসই শরীয়াহ সূচক ১০ পয়েন্ট কমে ৯৬৭ পয়েন্টে অবস্থান করছে।
 
ডিএসইতে লেনদেন হওয়া প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে দাম বৃদ্ধি পেয়েছে ৬৭টির, কমেছে ১৮৮টির এবং অপরিবর্তীত রয়েছে ৩৪টির দাম।
 
সোমবার ডিএসইতে টাকার ভিত্তিতে লেনদেন হওয়া শীর্ষ ১০ কোম্পানি হলো- এমারেল্ড অয়েল, স্কয়ার ফার্মা, লাফার্জ সুরমা সিমেন্ট, বাংলাদেশ সাবমেরিন কেবল, বাংলাদেশ বিল্ডিং সিস্টেম, পদ্মা অয়েল, ন্যাশনাল টিউবস, কাশেম ড্রাইসেল এবং মেঘনা পেট্রোলিয়াম।
 
অপর শেয়ারবাজার সিএসইতে সিএসইএক্স সূচক ১০৭ পয়েন্ট কমে অবস্থান করে ৮ হাজার ৬৯৫ পয়েন্টে, সিএসই-৩০ সূচক ১৪৫ পয়েন্ট কমে অবস্থান করে ১১ হাজার ৬০৫ পয়েন্টে এবং সিএএসপিআই সূচক ১৭৯ পয়েন্ট কমে অবস্থান করে ১৩ হাজার ৮২১ পয়েন্টে।
 
এদিন সিএসইতে লেনদেন হয়েছে ২৪ কোটি ৭০ লাখ টাকার বেশি শেয়ার ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের ইউনিট।
 
বাংলাদেশ সময়: ১৫২০ ঘণ্টা, মার্চ ২৪, ২০১৪

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa