ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৪ শ্রাবণ ১৪২৮, ২৯ জুলাই ২০২১, ১৮ জিলহজ ১৪৪২

শেয়ার

ট্রাইব্যুনালের ভবন ভাড়ায় মতামত চেয়েছে বিএসইসি

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৯০৯ ঘণ্টা, এপ্রিল ১৭, ২০১৪
ট্রাইব্যুনালের ভবন ভাড়ায় মতামত চেয়েছে বিএসইসি

ঢাকা: পুঁজিবাজার সংক্রান্ত মামলা নিষ্পত্তির জন্য গঠিত বিশেষ ট্রাইব্যুনালের অফিস ভবনের ভাড়া কোন খাত থেকে নির্ধারণ করা হবে, সে বিষয়ে অর্থমন্ত্রণালয়ের কাছে নির্দেশনা চেয়েছে বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি)।
 
সম্প্রতি বিএসইসির পক্ষ থেকে অর্থ মন্ত্রণালয়ের ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগের সচিবকে এ বিষয়ে চিঠি দেওয়া হয়েছে।


 
চিঠিতে উল্লেখ করা হয়েছে, পুঁজিবাজার সংক্রান্ত মামলা নিষ্পত্তির লক্ষ্যে মতিঝিলের দিলকুশায় চিনি ও খাদ্য শিল্প করপোরেশন ভবনে বিশেষ ট্রাইব্যুনাল স্থাপনের কাজ প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। এ লক্ষ্যে চিনি ও খাদ্য শিল্প করপোরেশনের ও বিএসইসির মধ্যে আলোচনা অব্যাহত রয়েছে। ইতিমধ্যে ট্রাইব্যুনালের কার্যক্রম পরিচালনায় অর্থ বরাদ্দের জন্য আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিবকে অনুরোধ জানানো হয়েছে। এ অবস্থায় ট্রাইব্যুনালের অফিস ভবন ভাড়া ব্যয় কোন খাত থেকে নির্ধারণ করা হবে, সে বিষয়ে নির্দেশনা দেওয়ার জন্য বিশেষ অনুরোধ জানানো হয় বিএসইসিকে।
 
এদিকে ১৯৯৬ এবং ২০১০ সালের শেয়ারবাজার কারসাজির মামলাগুলো দ্রুত নিষ্পত্তির উদ্যোগ নিয়েছে বিএসইসি। ইতিমধ্যে উচ্চ আদালতের নির্দেশে স্থগিত হওয়া মামলাগুলো সচল করার চেষ্টা চলছে। এসব মামলার স্থগিতাদেশ প্রত্যাহারে অ্যাটর্নি জেনারেল কার্যালয়ের সহায়তা নেওয়া হবে।
 
শেয়ারবাজার সংক্রান্ত সব ফৌজদারি মামলা এবং জেলা ও দায়রা জজ আদালতের মামলা স্থানান্তর হবে বিশেষ ট্রাইব্যুনালে। ভবিষ্যতে শেয়ারবাজার সংক্রান্ত কোনো মামলা হলে ট্রাইব্যুনালে বিচার হবে।
 
বর্তমানে পুঁজিবাজার কারসাজি সংক্রান্ত মামলা রয়েছে মোট ১৭টি। এর মধ্যে ১৯৯৬ সালের শেয়ার কেলেঙ্কারির ১৫টি এবং ২০১০-১১ সালের শেয়ার কারসাজির দুটি মামলা রয়েছে।
 
বাংলাদেশ সময়: ১৯০১ ঘণ্টা, এপ্রিল ১৭, ২০১৪

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa