ঢাকা, শনিবার, ৮ মাঘ ১৪২৮, ২২ জানুয়ারি ২০২২, ১৮ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

খেলা

পাকিস্তানের সামনে ইংল্যান্ড পরীক্ষা

স্পোর্টস ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১০১৩ ঘণ্টা, জুলাই ২৮, ২০১০
পাকিস্তানের সামনে ইংল্যান্ড পরীক্ষা

ট্রেন্টব্রিজ: পাকিস্তানের জন্য অনেক প্রত্যাশার সিরিজ মাঠে গড়াচ্ছে বৃহস্পতিবার থেকে। প্রতিপক্ষ ইংল্যান্ড।

যাদের দেশে পাঁচদিনের ক্রিকেটে অস্ট্রেলিয়াকে হারিয়েছে পাকিস্তান। সেই ইংলিশদের মুখোমুখি হচ্ছেন সালমান বাটরা।

একটি মাত্র সাফল্য বদলে দিয়েছে পাকিস্তানের ক্রিকেটের ভাষা। ক্রিকেটারদের মানসিকতায় এসেছে পরিবর্তন। অনেক অনেকদিন পর ফের প্রতিপক্ষকে চ্যালেঞ্জ জানাতে পারছে ক্রিকেটের অন্যতম পরাশক্তি পাকিস্তান।

অধিনায়ক সালমান বাটের কথাই ধরাযাক। আত্মবিশ্বাসে টগবগে হয়ে ফুটছেন। তার হাতে অস্ত্রো পেস তিন পেসার। মোহাম্মদ আমের, মোহাম্মদ আসিফ এবং উমর গুল।

এই তিন সিমারে কাঁধে ভর করে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে সাফল্য পেতে চান সালমাব বাট। আমেরের কল্যাণেই ১৫ বছর পর পাঁচদিনের ক্রিকেটে অস্ট্রেলিয়াকে হারিয়েছে পাকিস্তান। ১৮ বছরের তরুণ এই পেসার সাত উইকেট তুলে নিয়ে হেডেংলিতে অসিদের ইনিংসে ধ্বস নামিয়েছিলেন।

বয়সের তুলনায় অনেক বেশি গতিতে বল করেন আমের। ব্যাটসম্যানদের বিপদে ফেলতে সুইং কাজে লাগান। ভেতর এবং বাইরে উভয় দিকেই বল ঘোরাতে পারদর্শী পাকিস্তানি এই পেসার সঙ্গ পাচ্ছেন বিশ্বের অন্যতম সেরা আরেক পেস বোলার মোহাম্মদ আসিফের। ট্রেন্টব্রিজের সিমিং কন্ডিশনকে মোটামুটি কাজে লাগাতে পারলেই টেস্টে দাপট দেখাতে পারবেন সালমান বাহিনী।

পাকিস্তান অধিনায়ক বলেন,“তারা তিনজন আমাদের আত্মবিশ্বাস বাড়িয়ে দিয়েছে। একটি দল হিসেবে পারফম করা গেলে যে কোন পরিস্থিতিকে মোকাবেলা করা সম্ভব হয়। সত্যিই আমি ভাগ্যবান সেরা তিনজন পেসারারকে এক সঙ্গে দলে পেয়েছি। ”

ব্যাটিংয়ে গুছিয়ে উঠতে শুরু করেছে পাকিস্তান। উমর আমিন এবং আজহার আলীর মতো তরুণ ব্যাটসম্যানরা আত্মবিশ্বাসের সঙ্গে অসি পেসারদের মোকাবেলা করেছেন দুই টেস্টে। সঙ্গে অধিনায়ক বাট এবং উইকেটেকিপার ব্যাটসম্যান কামরান আকমল একসঙ্গে জ্বলে উঠলে নিজেদের কন্ডিশনেও বিপদে পড়তে পারে ইংল্যান্ড।

তবে পাকিস্তান যাদের সঙ্গে খেলবে তারা পেসাদার ক্রিকেটার। যেকোন পরিস্থিতিতে মানিয়ে নেওয়ার সমর্থ রাখে। তারওপর দেশের মাটিতে পাচ্ছে পাকিস্তানকে।

পল কলিংউড তো চ্যালেঞ্জ জানিয়েই রেখেছেন পাকিস্তানের পেসারদের। বলেছেন,“তাদের আত্মবিশ্বাস আকাশ ছোঁয়া হতে পারে। কিন্তু আমরা একটা দল। ”

এরচেয়ে বড় হুমকি আর কিই বা হতে পারে। ইংল্যান্ড সব সময়ই একটি দল হিসেবে খেলে। সাফল্যের মূলমন্ত্রও একাত্মতা।    

ইংলিশরা সম্প্রতি বেশ ভালো সময় পার করছে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে। টোয়েন্টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের বর্তমান চ্যাম্পিয়ন তারা। একমাস আগেই অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে পাঁচম্যাচ একদিনের সিরিজ ৩-২ এ জিতেছে। বাংলাদেশকেও হারিয়েছে ৩-১ ম্যাচে।

এপর্যন্ত ৬৭ টেস্টের মধ্যে ১৯টিতে জয় পেয়েছে ইংল্যান্ড। পাকিস্তান জিতেছে ১২ টেস্ট। বাকি ৩৬ টেস্ট ফলাফলশূন্যভাবে শেষ হয়েছে।

বাংলাদেশ সময়: ২০৫৩ ঘন্টা, জুলাই ২৮, ২০১০




বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa