ঢাকা, শুক্রবার, ১৭ ফাল্গুন ১৪৩০, ০১ মার্চ ২০২৪, ১৯ শাবান ১৪৪৫

কৃষি

কানাডা পটাশিয়াম সার দেওয়া অব্যাহত রাখবে: কৃষিমন্ত্রী

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৯১৭ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ৯, ২০২৩
কানাডা পটাশিয়াম সার দেওয়া অব্যাহত রাখবে: কৃষিমন্ত্রী

ঢাকা: কানাডা বাংলাদেশে পটাশিয়াম সার বিক্রি অব্যাহত রাখবে জানিয়ে কৃষিমন্ত্রী ড. আব্দুর রাজ্জাক বলেছেন, রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধ ও অবরোধের কারণে গত বছর পটাশিয়াম সার নিয়ে বিশ্বব্যাপী চরম অনিশ্চয়তা দেখা দিয়েছিল। আমরা বেলারুশ থেকে পটাশিয়াম সার কিনতে পারিনি।

তখন সরকারের প্রচেষ্টায় কানাডা আমাদের জরুরি ভিত্তিতে ৫ লাখ টন পটাশিয়াম সার দেয়, যার ফলে রবি মৌসুমে ও চলমান বোরো মৌসুমে সার সংকট দেখা দেয়নি।

বৃহস্পতিবার (০৯ ফেব্রুয়ারি) সচিবালয়ে ঢাকায় নিযুক্ত কানাডার হাইকমিশনার লিলি নিকোলসের নেতৃত্বে কানাডিয়ান কমার্শিয়াল কর্পোরেশনের (সিসিসি) প্রতিনিধিদলের সঙ্গে বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের মন্ত্রী এসব কথা বলেন।

বৈঠকে কৃষি মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব রুহুল আমিন তালুকদার, কানাডা প্রতিনিধিদলের সদস্য কানাডা দূতাবাসের কমার্শিয়াল কাউন্সেলর এঞ্জেলা ডার্ক, ট্রেড কমিশনার কামাল উদ্দিন, কানাডিয়ান কমার্শিয়াল কর্পোরেশনের ভাইস প্রেসিডেন্ট কিম ডগলাস ও পরিচালক এন্টনি রিজক উপস্থিত ছিলেন।

বাংলাদেশ-কানাডার সাথে বাণিজ্য সম্পর্ক বাড়াতে ও বাণিজ্য সহজতর করতে কানাডিয়ান কমার্শিয়াল কর্পোরেশনের প্রতিনিধিদল বাংলাদেশ সফর করছে। বৈঠকে কানাডার বাণিজ্য প্রতিনিধিদল কানাডা থেকে ক্যানুলা আমদানির ক্ষেত্রে সয়াবিন ও পাম তেলের সমপরিমাণ আমদানি শুল্ক নির্ধারণের অনুরোধ জানান। বর্তমানে ক্যানুলা আমদানির ক্ষেত্রে আমদানি শুল্ক সয়াবিন ও পাম তেলের দ্বিগুণ বলে তারা জানান। এছাড়া, বাংলাদেশে ডাল রপ্তানি, কৃষি প্রক্রিয়াজাতে সহযোগিতা এবং বাংলাদেশ থেকে শাকসবজি নেওয়ার কথা জানান।

কৃষিমন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কৃষিখাতে যে বিশাল অংকের ভর্তুকি দিয়ে যাচ্ছেন, তা পৃথিবীতে বিরল। অর্থনীতিতে যত চাপই আসুক, কৃষি উৎপাদনে বিরূপ প্রভাব পড়ে এমন কোনো পদক্ষেপ নেবেন না প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সেজন্য, প্রধানমন্ত্রী সার, বীজসহ কৃষি উপকরণ ও কৃষির সার্বিক উন্নয়নে বিশাল অংকের ভর্তুকি দিয়ে যাচ্ছেন।

বিএনপির চলমান আন্দোলন নিয়ে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে কৃষিমন্ত্রী ড. রাজ্জাক বলেন, বিএনপি গত ১৪ বছরে আন্দোলন করে ব্যর্থ হয়েছে, সরকারের পতন ঘটাতে পারে নাই। জনগণের সমর্থনও আদায় করতে পারে নাই। দেশে সংবিধান অনুযায়ী নির্বাচন হবে। আন্দোলনে ব্যর্থ হয়েও বিএনপি যদি আগামী নির্বাচনে না আসে তাহলে অস্থিত্ব সংকটে পড়বে।

বিএনপি যতই আন্দোলন করুক, বর্তমান সরকারের উন্নয়ন ও সাফল্য সম্পর্কে সাধারণ জনগণের মধ্যে বিভ্রান্তি সৃষ্টি করতে পারবে না বলেও মন্তব্য করেন কৃষিমন্ত্রী।

বাংলাদেশ সময়: ১৯১৫ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ০৯, ২০২৩
এমআইএইচ/এমজেএফ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।