ঢাকা, শুক্রবার, ১০ ফাল্গুন ১৪৩০, ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১২ শাবান ১৪৪৫

শিল্প-সাহিত্য

বান্দরবানে দুই দিনের সাহিত্য মেলা

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট   | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৩৪০ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ১৭, ২০২৩
বান্দরবানে দুই দিনের সাহিত্য মেলা

বান্দরবান: বান্দরবান জেলা প্রশাসক কার্যালয় প্রাঙ্গণে শুরু হয়েছে দুই দিনব্যাপী সাহিত্য মেলা।

বৃহস্পতিবার (১৬ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে বেলুন ও পায়রা উড়িয়ে মেলার শুভ উদ্বোধন করেন পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং।

 

পরে মন্ত্রী মেলায় আগত বিভিন্ন স্টল পরিদর্শন শেষে সম্প্রীতির মঞ্চে এক আলোচনা সভায় যোগ দেন।   এ সময় আলোচনা সভা অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন ডিসি ইয়াছমিন পারভীন তিবরীজি।  

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের উপ-সচিব (প্রশাসন-১) মো. আসাদুজ্জমান, পুলিশ সুপার (এসপি) মো. তারিকুল ইসলাম। প্রধান বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলা একাডেমির উপ-পরিচালক ইমরুল ইউসুফ।

এ সময় অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট সুরাইয়া আক্তার সুইটি, মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক আতিয়া চৌধুরী, পার্বত্য চট্টগ্রাম আঞ্চলিক পরিষদের সদস্য মো.শফিকুর রহমান, প্রেসক্লাবের সভাপতি আমিনুল ইসলাম বাচ্চুসহ সরকারি-বেসরকারি বিভিন্ন কার্যালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখতে গিয়ে পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং বলেন, গুণীজনদের সম্মান দিতে হবে সবাইকে। লেখক, কবি, ছড়াকার, গল্পকারসহ সব সাহিত্যিকদের যথাযথ মূল্যায়ন করা আমাদের নৈতিক দায়িত্ব।  

এ সময় মন্ত্রী বীর বাহাদুর বলেন, পার্বত্য এলাকার আনাচে-কানাচে অসংখ্য গুণী শিল্পি ও কবি সাহিত্যিক রয়েছে ,আর তাদের খুঁজে বের করে যথাযথ প্রশিক্ষণ ও সহায়তা দেওয়া গেলে আমাদের কৃষ্টি ও সংস্কৃতি আরও সমৃদ্ধি হবে।  

মন্ত্রী আরও বলেন, বর্তমান আওয়ামী লীগ সরকারের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশের সব স্থরের জনগণের কল্যাণে নিবেদিত হয়ে কাজ করছেন আর তার কারণে সবুজে শ্যামলে সুন্দরভাবে উন্নত দেশের পথে যাচ্ছে বাংলাদেশ।

সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের পৃষ্ঠপোষকতায় বাংলা একাডেমির সমন্বয়ে বান্দরবান জেলা প্রশাসন আয়োজিত এবারের সাহিত্য মেলায় ১৩টি স্টল অংশ নিচ্ছে।

দুই দিনব্যাপী এ সাহিত্য মেলায় সাহিত্য ও সংস্কৃতি প্রবন্ধ পাঠ, স্থানীয় লেখকদের স্বরচিত সাহিত্য পাঠ, ছড়া ও কবিতা পাঠ, আলোচনা সভা এবং সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন রয়েছে। আর ১৭ ফেব্রুয়ারি সন্ধ্যার দিকে এ মেলার সমাপনী অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হবে।

বাংলাদেশ সময়: ১৩৩৫ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ১৭, ২০২৩
এসআরএস

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।