ঢাকা, রবিবার, ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ০৫ ডিসেম্বর ২০২১, ০০ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৩

শিল্প-সাহিত্য

নবরূপে আলতাফ শাহনেওয়াজের ‘আলাদিনের গ্রামে’

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট  | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২১৫৬ ঘণ্টা, অক্টোবর ১৬, ২০২১
নবরূপে আলতাফ শাহনেওয়াজের ‘আলাদিনের গ্রামে’ ‘আলাদিনের গ্রামে’ কবিতার বইয়ের প্রকাশনা উৎসব। ছবি: জিএম মুজিবুর

ঢাকা: কবি আলতাফ শাহনেওয়াজের ‘আলাদিনের গ্রামে’ কবিতার বইয়ের প্রকাশনা উৎসব অনুষ্ঠিত হয়েছে।

শনিবার (১৬ অক্টোবর) সন্ধ্যায় ঢাকার বিশ্বসাহিত্য কেন্দ্রের বাতিঘরে আড্ডা–আলাপচারিতায় চতুর্দশপদী এই কাব্যগ্রন্থের প্রকাশনা উৎসব অনুষ্ঠিত হয়।

আয়োজনে গ্রন্থটির মোড়ক উন্মোচন করেন এবং আলাপচারিতায় অংশ নেন কবি সাজ্জাদ শরিফ, সুমন রহমান, শামীম রেজা, মোহাম্মদ আজম ও মাহবুব মোর্শেদ।

অনুষ্ঠানে আয়োজকেরা জানান, এর আগে বইটি ২০১৬ সালে চৈতন্য প্রকাশনী থেকে প্রকাশ হয়েছিল। পরে এর দুটি সংস্করণ পাঠক মহলে সমাদৃত হয়। এবার নবরূপে বইটি প্রকাশ করেছে আদর্শ প্রকাশনী।

আলাপচারিতায় কবি সাজ্জাদ শরিফ বলেন, আরব্য রজনী থেকে বইটির নাম নিলেও কবিতার মধ্যে বাঙালির আলাদিনের স্বাদ আছে। বাংলার জমিনের মতো ছড়ানো বইয়ের কবিতাগুলো। কবির কবিতায় একটি চিত্রকল্প তৈরি করে তার দিকে যেমন এগিয়ে যাওয়ার চেষ্টা আছে, তেমনি আছে চাঞ্চল্যকর আবেদন।

কবি শামীম রেজা বলেন, বইটি একটি দিক নির্দেশনার জায়গায় দাঁড়িয়েছে, যেন একটি নতুন ধারার কাব্যগ্রন্থ। আর কবিতায় এক নতুন ধারার শান্ত ভাষা আছে।

কথাসাহিত্যিক মাহবুব মোর্শেদ বলেন, বইটির পুনঃমুদ্রণে বিস্মিত হয়েছি। আমাদের এখানে কবিতার পাঠক নেই, এমন একটি ধারণা প্রচলিত আছে। অথচ ‘আলাদিনের গ্রামে’ বইটির দুটি সংস্করণ শেষ হওয়ার পর এখন নবরূপে প্রকাশ হয়েছে। এটা আনন্দের খবর।  

মোহাম্মদ আজম বলেন, সাজানো-গোছানো, মার্জিত ও অভিজাত কবিতাগুলোতে প্রাত্যহিক জীবনের বাস্তবতা রয়েছে। বিমূর্ত কবিতাগুলোর মধ্যেও একটা লিপ্ততার বিষয় আছে। বিশেষ করে বিমূর্ততার সঙ্গে ফুটিয়ে তোলা হয়েছে মূর্ততাকেও।

সুমন রহমান বলেন, নতুন ধাচের কবিতার সঙ্গে আদি বা পুরোনো ধাচের কবিতা কতটা যুদ্ধ করছে, তার একটা প্রতিফলন এই কবির কবিতায় দেখতে চাই। অন্য তরুণরাও সেটির জন্য এগিয়ে আসবেন বলে প্রত্যাশা করি।

আলোচনার শেষ অংশে বইটি নিয়ে কথা বলেন এর লেখক আলতাফ শাহনেওয়াজ। তিনি বলেন, কবিতা জীবনেরই অংশ। ২০১২ বা ২০১৩ সালের দিকে এটি লেখা। জীবনের বিমূর্ত সময়ে এই বইয়ের কবিতাগুলো আসে। আমার শুধু একটা জিনিসই মনে হচ্ছিল- এই নগর, এই শহর মানুষের যেটা কেড়ে নেয়, সেটা হচ্ছে তার মুখের ভাষা। আর এই জায়গাটি থেকে আমি আলাদিনকে দেখতে চেয়েছি।

আয়োজনে বইটির প্রকাশক মাহবুব রহমান বলেন, আমরা গল্প-কবিতায় ইনভেস্ট করতে চাই। কিন্তু ফিকশনের দিক থেকে যে মান আমরা প্রত্যাশা করি, সেটা পাই না। পাণ্ডুলিপি পাই না। তবুও আমরা আমাদের দিক থেকে চেষ্টা করে যাচ্ছি। একজন-দুজনের পক্ষে সবকিছু সম্ভব না। তরুণদের এ বিষয়ে আরও এগিয়ে আসা প্রয়োজন।

আলাপচারিতার পাশাপাশি আয়োজনে ছিল ‘আলাদিনের গ্রামে’ থেকে পাঠ ও গান। এ সময় গান পরিবেশন করেন ডড়িস হেলালী ও ভাষা। কবিতা পাঠ করেন বিশিষ্ট অনুবাদক ও সাহিত্যবোদ্ধা জাভেদ হুসেন।  

অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন বাতিঘরের স্বত্বাধিকারী দীপঙ্কর দাশ, বাংলানিউজ টুয়েন্টিফোর.কমের সম্পাদক ও কবি জুয়েল মাজহারসহ বিশিষ্টজনেরা। তারা সবাই কবি আলতাফ শাহনেওয়াজকে শুভেচ্ছা জানান।

আদর্শ প্রকাশনী থেকে প্রকাশিত ‘আলাদিনের গ্রামে’ কাব্যগ্রন্থটির প্রচ্ছদ করেছেন সব্যসাচী মিস্ত্রী। বইটির দাম ২৪০ টাকা।

বাংলাদেশ সময়: ২১৫৬ ঘণ্টা, অক্টোবর ১৬, ২০২১
এইচএমএস/জেএইচটি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa