ঢাকা, শুক্রবার, ১৩ আশ্বিন ১৪৩০, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২৩, ১৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪৫

এভিয়াট্যুর

শিডিউল বিপর্যয়ে সৈয়দপুর বিমানবন্দরে উত্তেজনা, ২ যাত্রী আটক

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৮০৪ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ১১, ২০২২
শিডিউল বিপর্যয়ে সৈয়দপুর বিমানবন্দরে উত্তেজনা, ২ যাত্রী আটক

নীলফামারী: নভো এয়ারের শিডিউল বিপর্যয় নিয়ে নীলফামারীর সৈয়দপুর বিমানবন্দরে যাত্রীদের হাতাহাতির ঘটনা ঘটেছে। ভাঙচুর হয়েছে বিমানবন্দরের ডেক্স।

এ ঘটনায় রোববার (১১ ডিসেম্বর) ২ যাত্রীকে আটক করে রেখেছে সিভিল এভিয়েশন কর্তৃপক্ষ। তারা হলেন দিনাজপুরের পার্বতীপুরের ব্যবসায়ী জসিম উদ্দিন সরকার ও রংপুরের চিকিৎসক শরীফুল ইসলাম।

নভোএয়ার সূত্র জানায়, ওইদিন সকাল সাড়ে ৯ টায় নভোএয়ারের একটি ফ্লাইট ঢাকার উদ্দেশ্যে ছেড়ে যাওয়ার কথা। যাত্রীরা সকাল থেকেই বিমানবন্দরের লাউঞ্জে অপেক্ষা করছিলেন। কিন্তু ঢাকা থেকে ওই এয়ারলাইনসের কোন ফ্লাইট না আসায় যাত্রা বিলম্বিত হচ্ছিলো। পরে যাত্রীদের জানানো হয় আকাশ কুয়াশাচ্ছন্ন থাকায় ফ্লাইট বিলম্বিত হবে। এমন সময় আরেকটি বিমান সংস্থার উড়োজাহাজ সৈয়দপুর বিমানবন্দরে অবতরণ করে। এতে নভোএয়ারের যাত্রীরা উত্তেজিত হয়ে জানতে চান অন্য বিমান চলাচল করলে নভোএয়ার চলছে না কেন?

এ অবস্থায় সংশ্লিষ্টরা জানায়, ঢাকায় হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে বিমান মহড়া চলছে। কাজেই ১২টার আগে কোনো বিমান চলাচল করবে না। এ সময় কয়েকজন উত্তেজিত যাত্রী বিমানবন্দরে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করে। অভিযোগ রয়েছে তারা লাউঞ্জে নভোএয়ারের ডেক্স ভাঙচুর করে। ফলে উত্তেজনা নিরসনে দুই যাত্রীকে আটকে রাখা হয়।

আটক যাত্রী জসিম উদ্দিন জানান, আমরা ব্যবসায়ী মানুষ। জরুরি মিটিং থাকায় ঢাকায় যাচ্ছিলাম। কিন্তু বিমান বিলম্বের কারণ জানতে চাইলে এয়ারপোর্ট ম্যানেজার আমাদের মারতে আসেন। নভোএয়ারের কর্মকর্তা-কর্মচারীরাও যাত্রীদের হেনস্তা করেছেন। আমাদের আটকে রাখা হয়েছে। সকাল ৯টা থেকে বিকেল ২টা পর্যন্ত  দুই যাত্রীকে আটকে রাখা হয়েছে। আমরা কোন ভাঙচুর করিনি। আমাদের অপরাধ কী তাও জানি না। অথচ ওই বিমানের বাকি ৬২ জন যাত্রীকে দুপুর ১২টার ফ্লাইটে ঢাকায় পাঠানো হয়েছে।

এ বিষয়ে জানতে সৈয়দপুর বিমানবন্দরের ব্যবস্থাপক সুপ্লব কুমার ঘোষের সঙ্গে কথা বললে তিনি জানান, প্রশাসনের পক্ষ থেকে মুখ বন্ধ রাখতে বলা হয়েছে তাই এ নিয়ে কোনো মন্তব্য করতে পারছি না।

সৈয়দপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সাইফুল ইসলাম জানান, আমরা পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করছি। নভোএয়ারের ঊর্ধতন কর্মকর্তারা এসে সৃষ্ট ঘটনায় প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেবেন।

বিকেল ৪ টায় ঢাকা থেকে এসে নভোয়ারের হেড অব মার্কেটিং (অপারেশন) এ আর এম সাদাত, সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো. আমিনুল ইসলাম ও সৈয়দপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সাইফুল ইসলাম বিষয়টি নিয়ে মিমাংসায় বসেন।

হেড অব মার্কেটিং এ আর এম সাদাত জানান, যেহেতু তাঁরা আমাদের সম্মানিত যাত্রী তাই আমরা বিষয়টি সহজভাবে নিয়েছি। তারা হয়তো আবেগে কিছু ভাঙচুর করেছেন। তারাও নিজেদের ভুলের জন্য অনুতপ্ত। তাই বিষয়টি এখানে নিস্পত্তি হয়েছে।

বাংলাদেশ সময়: ১৮০৩ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ১১, ২০২২
এমএমজেড

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa