ঢাকা, শনিবার, ১৪ মাঘ ১৪২৯, ২৮ জানুয়ারি ২০২৩, ০৫ রজব ১৪৪৪

এভিয়াট্যুর

ইউএস-বাংলার কাস্টমার সামিট হবে কক্সবাজারে

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৮৫৯ ঘণ্টা, নভেম্বর ৭, ২০১৫
ইউএস-বাংলার কাস্টমার সামিট হবে কক্সবাজারে

ঢাকা: তিনদিনব্যাপী ‘কাস্টমার সাকসেস সামিট’ আয়োজন করতে যাচ্ছে ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্স। চলতি মাসের ২৬ থেকে ২৮ নভেম্বর পর্যন্ত কক্সবাজারের ওশান প্যারাডাইজ হোটেলে এ সামিট অনুষ্ঠিত হবে।



শনিবার সন্ধ্যায় ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্স এর মার্কেটিং সাপোর্ট অ্যান্ড পাবলিক রিলেশনস উপ-মহাব্যবস্থাপক কামরুল ইসলাম স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ বিষয়ে জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, সামিটে সারাদেশ থেকে ট্রাভেল এজেন্ট ও কর্পোরেট অফিসের উর্ধ্বতন কর্মকর্তা এবং জাতীয় ও আঞ্চলিক সংবাদ মাধ্যমের প্রতিনিধিরা অংশ নেবেন। এ ধরনের মিলনমেলা বাংলাদেশের এভিয়েশন ইন্ডাস্ট্রিজের ইতিহাসে এই প্রথম।

আসন্ন সামিটে প্রধান অতিথি থাকবেন বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রী রাশেদ খান মেনন।

সামিটে বাংলাদেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে এভিয়েশন ব্যবসায় সংশ্লিষ্ট প্রতিনিধিরা অংশগ্রহণ করবেন। অনুষ্ঠানের উল্লেখযোগ্য অংশের মধ্যে রয়েছে- অ্যাওয়ার্ড প্রদান, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্স ম্যানেজমেন্ট ও ট্রাভেল এজেন্ট প্রতিনিধিদের সঙ্গে জোন কেন্দ্রিক বিজনেস কনফারেন্স, কর্পোরেট প্রতিনিধিদের ব্যবসায়িক মতবিনিময়, পৃথিবীর দীর্ঘতম সমুদ্র সৈকতে ফানুস ফেস্টিভালসহ আরো অনেক বিজনেস ইভেন্ট।

ইউ-এস বাংলায় বর্তমানে ৭৬ আসনবিশিষ্ট তিনটি ড্যাশ ৮-কিউ৪০০ এয়ারক্রাফট রয়েছে, যেগুলো দিয়ে রাজধানী ঢাকা থেকে চট্টগ্রাম, সিলেট, কক্সবাজার, যশোর, সৈয়দপুর, রাজশাহী ও বরিশাল রুটে প্রতিদিন ফ্লাইট পরিচালনা করা হচ্ছে। বাংলাদেশের বিমান পরিবহন যোগাযোগ ব্যবস্থায় ড্যাশ ৮-কিউ৪০০ এয়ারক্রাফট নিরাপদ, নির্ভরযোগ্য, তাপানুকূল এবং অধিক আরামদায়ক আসন ব্যবস্থা সম্পন্ন এয়ারক্রাফট।

ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্স যাত্রা শুরুর পর থেকে অন-টাইম সার্ভিস ও আন্তর্জাতিক মানের ইন-ফ্লাইট সার্ভিস দিচ্ছে-যা যাত্রী সাধারণের কাছে এটিকে একটি নির্ভরযোগ্য এয়ারলাইন্স হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করেছে। যাত্রা শুরুর প্রথম বছরেই অভ্যন্তরীণ রুটে আন্তর্জাতিক মানের সেবা দেওয়ার জন্য সর্বশ্রেষ্ঠ অভ্যন্তরীণ এয়ারলাইন্স হিসেবে পুরস্কার পেয়েছে ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্স।

এয়ারলাইন্সটির সঠিক সময়ে ফ্লাইট পরিচালনার রেকর্ড শতকরা প্রায় ৯৮.৭ ভাগ যা দেশীয় এয়ারলাইন্সগুলোর মধ্যে সর্বাধিক এবং স্বল্প যাত্রায় প্রায় শতভাগ যাত্রী সন্তুষ্টি অর্জন করেছে।

দেশীয় বিমান পরিবহনখাতে ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্স-ই একমাত্র কোম্পানি যা আইএসও ৯০০১:২০০৮ সার্টিফায়েড এয়ারলাইন্স। এটি আমেরিকার নিউইয়র্ক সিটির ডিভিশন অব কর্পোরেশন এর একমাত্র তালিকাভুক্ত বাংলাদেশি এয়ারলাইন কোম্পানি। আধুনিক সব সুযোগ-সুবিধা রয়েছে ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্সে, যার মধ্যে রয়েছে ফ্রিকোয়েন্ট ফ্লাইয়ার প্রোগ্রাম “স্কাই স্টার”, ডোর স্টেপ সার্ভিস প্রোগ্রামসহ আরো অনেক সেবাধর্মী ও সময়োপযোগী সার্ভিস।

 “ফ্লাই ফাস্ট-ফ্লাই সেফ” স্লোগান নিয়ে ২০১৪ সালের ১৭ জুলাই যাত্রা শুরু হওয়া ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্স এখন পর্যন্ত ধারাবাহিকভাবে যাত্রীদের আন্তর্জাতিক মানের সেবা দিয়ে যাচ্ছে। ফলে এক বছরের মধ্যেই অর্জন করতে পেরেছে নিজস্ব ব্র্যান্ড পরিচিতি।

বর্তমানে অভ্যন্তরীণ বিমান পরিবহন সেক্টরে অধিক প্রতিযোগিতার মধ্যেও মার্কেট শেয়ারের অধিকাংশ অর্জন করতে সক্ষম হয়েছে ইউএস বাংলা এয়ারলাইন্স। এখন পর্যন্ত প্রায় ৫ লক্ষ যাত্রী এবং আট হাজার ফ্লাইট পরিচালনা করেছে ইউএস বাংলা এয়ারলাইন্স, যা অভ্যন্তরীণ রুটে একটি মাইলফলক।

বাংলাদেশ সময়: ১৮৫৩ ঘণ্টা, নভেম্বর ৭, ২০১৫
জেডএম/

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa