ঢাকা, সোমবার, ২৩ মাঘ ১৪২৯, ০৬ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ১৪ রজব ১৪৪৪

ব্যাংকিং

অগ্রণী ব্যাংকের কোটি টাকা আত্মসাৎ, সাবেক ব্যবস্থাপক গ্রেফতার

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০৪৭ ঘণ্টা, অক্টোবর ১৬, ২০১৬
অগ্রণী ব্যাংকের কোটি টাকা আত্মসাৎ, সাবেক ব্যবস্থাপক গ্রেফতার

রাজশাহী: এক কোটি ১৩ লাখ টাকা আত্মসাতের অভিযোগে অগ্রণী ব্যাংক লিমিটেডের সাবেক ব্যবস্থাপক রফিকুল ইসলামকে (৬১) গ্রেফতার করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

তিনি বাঘা উপজেলার নারায়ণপুর গ্রামের মৃত আব্দুর রশিদ সরকারের ছেলে।

অবসরের আগে তিনি অগ্রণী ব্যাংকের রাজশাহীর বাঘা উপজেলার বাজুবাঘা শাখার ব্যবস্থাপক পদে কর্মরত ছিলেন।

রোববার (১৬ অক্টোবর) বিকেল সাড়ে ৩টার দিকে রাজশাহী মহানগরীর ভেড়িপাড়া মোড় থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। পরে সন্ধ্যায় দুদকের রাজশাহী বিভাগীয় কার্যালয়ের উপ-পরিচালক (ডিডি) শেখ ফাইয়াজ আলম সাবেক এই ব্যাংক কর্মকর্তাকে গ্রেফতারের বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

উপ-পরিচালক জানান, রফিকুল ইসলাম প্রায় এক বছর আগে চাকরি থেকে অবসর নিয়েছেন। অবসর গ্রহণের সময় তিনি অগ্রণী ব্যাংকের বাজুবাঘা শাখা ব্যবস্থাপক হিসেবে কর্মরত ছিলেন।

অবসর গ্রহণের মাত্র কিছু দিন আগে তিনি ভুয়া প্রতিষ্ঠানের নামে কয়েকটি হিসাব খুলে এক কোটি ১৩ লাখ টাকা ঋণ ‘বিতরণ’ দেখান। তিনি অবসর নেওয়ার পর এসব প্রতিষ্ঠানের কোনো অস্তিত্ব খুঁজে পায়নি ব্যাংক কর্তৃপক্ষ। ফলে ওই টাকার পুরোটিই তিনি আত্মসাত করেছেন বলে অভিযোগ ওঠে।

এর পর গত জুলাই মাসে ব্যাংকটির বাজুবাঘা শাখার বর্তমান ব্যবস্থাপক ইসহাক আলী এক কোটি ১৩ লাখ টাকা আত্মসাতের অভিযোগে সাবেক ব্যবস্থাপক রফিকুল ইসলামের নামে বাঘা থানায় চারটি মামলা করেন। বর্তমানে ওই মামলাগুলো তদন্ত করছে দুদক।

দুদক উপ-পরিচালক শেখ ফাইয়াজ আলম আরও জানান, চার মামলাতেই গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি ছিল রফিকুল ইসলামের নামে। তবে তিনি আত্মগোপনে ছিলেন। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে রোববার বিকেলে দুদকের রাজশাহী বিভাগীয় কার্যালয়ের অতিরিক্ত পরিচালক আলমগীর হোসেন তাকে গ্রেফতার করেন। এরপর তাকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়।

বাংলাদেশ সময়: ২০৪১ ঘণ্টা, অক্টোবর ১৬, ২০১৬
এসএস/এমজেএফ/

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa