ঢাকা, শনিবার, ৭ কার্তিক ১৪২৮, ২৩ অক্টোবর ২০২১, ১৫ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

বইমেলা

বইমেলায় মিশর ও ইরাকের শ্রেষ্ঠ গল্প

Jiban Chandra Karmaker | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৫০৯ ঘণ্টা, জানুয়ারি ৩১, ২০১৪

অমর একুশে বইমেলায় প্রকাশিত হতে যাচ্ছে কবি, লেখক, গল্পকার, অনুবাদক এবং সাংবাদিক সোহরাব সুমন অনূদিত দুটি গল্প সংকলন: মিশরের শ্রেষ্ঠ গল্প এবং ইরাকের শ্রেষ্ঠ গল্প।

বর্তমান সময়ে বিশ্বব্যাপী বিভিন্নভাবে আলোচিত আরবের অন্যতম জাতিরাষ্ট্র মিশর এবং ইরাকের ছোট গল্পকারদের লেখা এই সব অভূতপূর্ব যুগোত্তীর্ণ ছোট গল্প সমূহে দেশ দুটির বিগত কয়েক দশকের চলমান সময়ের ধারাবাহিকতা স্থিরচিত্রের মতই ফুটে উঠেছে।

গল্পের মাঝে নিজস্ব ইতিহাস, ঐতিহ্য, সভ্যতা এবং সংস্কৃতিকে ধারণ করে বিদেশি সাহিত্য আঙ্গিকের সঙ্গে মেলবন্ধনের অন্যতম উদাহরণ মিশর ও ইরাকের আরবি এইসব ছোটগল্প। পাশ্চাত্য আঙ্গিকের বাঁধনে জড়িয়েও সম্পূর্ণ ভিন্নধর্মী স্বকীয়তায় আরববিশ্বের এই দেশ দুটির ছোটগল্প সাহিত্য ধারাটি সেখানকার অসংখ্য লেখকের সার্বজনীন চর্চার মাধ্যমে ক্রমেই অগ্রসর ও বিকশিত হয়ে আরব্য সাহিত্য ভাণ্ডারকে দিনে দিনে আরো সমৃদ্ধ করছে। মিশর ও ইরাকের লেখকদের অব্যাহত এই প্রচেষ্টা আরবের বাকি অংশকেও প্রভাবিত করছে। বর্তমান সংকলন দুটিতে ঠাঁই পাওয়া দেশ দুটির এইসব শ্রেষ্ঠ গল্পগুলো তাই আধুনিক সাহিত্যামোদীদের অবশ্য পাঠ্য।


মিশর ও ইরাকের ছোটগল্পের বর্তমান এই সংকলন দুটিতে—যথাক্রমে মিশর ও ইরাকের ১৮টি ও ১৪টি করে আধুনিক ছোটগল্প ঠাঁই পেয়েছে। মিশরের শ্রেষ্ঠ গল্প সংকলনটিতে অন্তর্ভুক্ত লেখক ও তাদের গল্প সমূহ হলো— ইব্রাহিম ‘আব্দ আল-কাদির আল-মাজিনি-একরাতে কীভাবে আমি জ্বিনের বাদশা সেজেছিলাম!; মাহমুদ তৈমুর-ওজুর ফরজ; নাগিব মাহফুজ-দেখা করা; শুকরি ‘আয়াদ-তালাওয়ালা; লতিফা আল-জাইয়াত-সেই সরু পথ; ইউসুফ শারৌনি-সংক্ষেপে; ফাত-হি ঘানিম-বাগদানের উপহার; ইউসুফ ইদ্রিস-মিশরের মোনালিসা; সুলায়মান ফাইয়াদ-ধূসর রঙের বাহন; আলিফা রিফ’আত-ঘোবাসি সংসারের এক ঘটনা; সাবরি মুসা-চলে যাওয়া আর ফিরে আসা; ‘আব্দ আল-হাম্মামসি-কেইনের চাঁদের কণ্ঠরোধ; ‘আব্দ আল-হাকীম কাসিম-এক শীতের রাত্রি; মুহাম্মাদ আল-বুসাটি-ছোঁয়াছুয়ি খেলা; আবু আল-মা‘আতি আল-নাজা-মানুষ এবং ভালোবাসা; ইব্রাহিম আসলান-এক ঠিকানার খোঁজে; ইয়াহিয়া তাহের ‘আব্দুল্লাহ-ঘণ্টা বাঁধবে কে?; ইউসুফ আল-কা’ইদ-রাবাব আর আঁকবে না; গামাল আল-ঘিতানি-বিশ্বজনতার এক বিকাশের সন্ধিক্ষণ; ইব্রাহিম ‘আব্দ আল-মাজিদ-সেই গাছ আর পাখি; সালওয়া বাকর-পায়রার ডানায়; সাহার তৌফিক-তেপান্তরের খোঁজে; মুনতাসির আল-কাফ্ফাশ-পায়ের আওয়াজ; গামিল আতীয়া ইব্রাহিম-তেল রঙের ছবি।  

অপরদিকে ইরাকের শ্রেষ্ঠ গল্প সংকলনটিতে অন্তর্ভুক্ত লেখক এবং তাদের গল্পগুলো হলো— আব্দ আল-মানিক নউরি-পরিচারিকা, খবরের কাগজ বিক্রেতা ছেলেটি এবং বসন্ত; ঘা’ইব তু’মা ফারমান-আঙ্কল, দয়া করে আমাকে পার করুন; ফু’য়াদ আল-তাকারলি-সত্য; মাহদি ইস্সা সাকর-তাজা রক্ত; সামিরা আল-মানা-পাঁঠা আর তার মা; ডেইজি আল-আমির-এরপর; আব্দ আল-রাহমান মাজিদ আল-রুবাই’ই-ষাঁড়দের সাম্রাজ্য; আব্দ আল-ল্লাহ আব্দ আল-কাদির-বার্থডে পার্টি; মুহাম্মাদ খুদাইর-ঘোড়ার মতো ঘড়ি; মাই মুজাফ্ফর-শুকনো কাঠের দেয়াশলাই; মুসা ক্রাইদি-এক গ্রীষ্মে; লুতফীয়া আল-দুলাইমি-দেবদূতের চেয়ে হালকা; সালিমা সালেহ-দেয়াল; বুরহান আল-খাতিব-শরতের মেঘ; আলিয়া মামদুহ্-পারাপার।

আরবের  মিশর ও ইরাক নামের এই দুটি দেশের গদ্যে, বিশেষ করে ছোট গল্পে আবেগের স্বতঃস্ফূর্ত বহিঃপ্রকাশ লক্ষণীয়। গল্পের ফর্ম হিসেবে এই দেশ দুটির লেখকেরা পাশ্চাত্যের পদ্ধতি প্রয়োগ করলেও, বরাবরের মতই এতোসব লেখনীতে তারা তাদের নিজস্ব বিশ্বেই স্থির এবং অনুগত থেকেছেন। তাদের গল্পের ঠাস বুনন, নিপুণ বিন্যাস, আর চরিত্র চিত্রায়নের মুনশিয়ানায় আরবজগৎটির ভাবাবেগ-অনিবার্যভাবেই চিনে নেয়া যায়। নিঃসন্দেহে তা আরব জগতের দ্বার উন্মোচন করে; যে জগতটি এদেশে আজো খুব একটা পরিচিত নয়, সাহিত্যের হাত ধরে সে জগতে আমাদের প্রবেশ করার অন্যতম বিকল্প এইসব ছোটগল্প। আধুনিক সাহিত্যের অন্যতম আঙ্গিক এইসব ছোটগল্প সমূহ একারণেই আলোকবর্তিকা স্বরূপ।


যুগ বাস্তবতার পথধরে আজকের মিশর এবং ইরাক তথা আধুনিক আরবের ছোটগল্প সমূহ ঠিক কতোখানি সমৃদ্ধ আর পরিণত এই অনুবাদ গ্রন্থ দুটি তারই উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত। সংকলন দুটির গল্প গুলোতে দেশ দুটির বিভিন্ন শ্রেণি পেশার লোকেদের প্রতিদিনকার জীবনের প্রেম, ভালোবাসা, বিরহ, যন্ত্রণা, দুঃখ, বেদনা, অসহায়ত্বসহ আরো নানাবিধ মানবীয় উপাদান এবং তাদের দৈনন্দিন যাপনের বহুমাত্রিক চিত্র খুব সাবলীলভাবে চিত্রিত হয়েছে।


সোহবার সুমন বর্তমান সময়ের একজন প্রথিতযশা ঋদ্ধ কবি। তাঁর মননশীলতা তাঁর সৃষ্টিকর্মেই ভাস্বর। কবির নিরবচ্ছিন্ন সৃজনশীলতায় অপরিচিত আরব্যজগতটি তার রূপরসগন্ধসমেত পাঠকের চেতনায় আরো জীবন্ত হয়ে উঠতে বাধ্য। একনিষ্ঠ এই কবি দীর্ঘদিন যাবত স্বতঃপ্রণোদিত হয়ে আরব্য গল্পের অনুবাদ করে চলেছেন। ইতোমধ্যে এই সব অনুবাদ কর্মের বেশিরভাগ গল্পই, স্বনামধন্য দৈনিকের সাহিত্য পাতা, ঈদ সংখ্যা, সাহিত্য ম্যাগাজিন, অনলাইন পত্রিকা, অনলাইন সাহিত্য সাময়িকী, ব্লগ এবং ফেইসবুকসহ বিভিন্ন আর্ন্তজালিক প্ল্যাটফর্মে প্রকাশিত হয়েছে, সেই সঙ্গে গত বছর অমর একুশে বই মেলাতে তার এরকম বেশকিছু অনুবাদ গল্প নিয়ে প্রকাশিত হয়েছে আরববিশ্বের গল্প নামের একটি বিশেষ সংকলন, সঙ্গতকারণেই এসব অনুবাদ কর্ম পাঠকমহলে সমাদৃত হয়েছে।  


আসন্ন অমর একুশে বইমেলায় বহুল আলোচিত এই সংকলন দুটি প্রকাশ করছে বাংলাদেশের অন্যতম জনপ্রিয় প্রকাশনা সংস্থা ‘ইত্যাদি গ্রন্থ প্রকাশ’। সংকলন দুটির প্রচ্ছদ এঁকেছেন স্বনামধন্য আঁকিয়ে ও প্রচ্ছদশিল্পী ধ্রুব এষ। বই দুটির মূল্য রাখা হয়েছে যথাক্রমে ৩৫০ ও ২৫০টাকা। অমর একুশে বইমেলার ১৭৩, ১৭৪ এবং ১৭৫ নম্বর ‘ইত্যাদি গ্রন্থ প্রকাশ’ এর স্টলে সংকলন দুটি পাওয়া যাবে।

বাংলাদেশ সময়: ১৫১০ ঘণ্টা, জানুয়ারি ৩১, ২০১৪

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa