ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২২ আষাঢ় ১৪২৯, ০৭ জুলাই ২০২২, ০৭ জিলহজ ১৪৪৩

বইমেলা

অটোগ্রাফ নিতে দীর্ঘ লাইন

আবু তালহা ও আল আমিন | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৫০২ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ২৮, ২০১৪
অটোগ্রাফ নিতে দীর্ঘ লাইন

বইমেলা প্রাঙ্গণ থেকে: মূলত শিশু-কিশোর ও তরুণদের জনপ্রিয় লেখক মুহম্মদ জাফর ইকবাল। তাই বইমেলায় তিনি হাজির হলেই তাকে ঘিরে ধরে অগণিত পাঠক।

এদের মধ্যে তরুণদের সংখ্যাই বেশি।

শুক্রবার মেলার শেষদিন দুপুর ১২টায় একই চিত্র দেখা গেছে।

অমর একুশে গ্রন্থমেলার সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে শফিউর চত্বরে একটি চেয়ার টেনে বসেছেন লেখক জাফর ইকবাল। অগণিত পাঠকের ভিড়ে দেখা যায় মাথায় শুভ্র চুল, নিমগ্ন চিত্তে কলমে বুনছেন ভক্তদের জন্য শুভ কামনা। আর তারই লেখা বই হাতে অটোগ্রাফ নিতে সুফিয়া কামাল চত্বর থেকে শফিউর চত্বর পর্য ন্ত দীর্ঘ লাইনে দাঁড়িয়েছে নানা বয়সী ক্ষুদে পাঠক-ভক্ত।

অটোগ্রাফ নেওয়ার চেয়ে দেওয়ার আনন্দও কোনো অংশে কম নয়।

বাংলানিউজের সঙ্গে আলাপকালে লেখক বলেন, শিশুদের অটোগ্রাফ দিলে তারা খুবই খুশি হয়। তাদের এই খুশি দেখে আমার আনন্দ তাদের চেয়ে কম হয় না। তাই খুবই আনন্দ নিয়ে আমি দুপুর ১২টা থেকে ক্লান্তিহীন অটোগ্রাফ দিয়ে যাচ্ছি।

মেলা প্রসঙ্গে লেখক বলেন, যেহেতু জায়গা বেশি তাই মেলা অবশ্যই এবার ভালো হয়েছে তবে বলা যেতে পারে বইমেলা বলতে আমাদের চোখের সামনে যা ভেসে ওঠে তা অনুপস্থিত। মেলার মধ্যে মেলার ভাব নেই। মেলায় বসার জায়গা থাকবে, চা খাওয়ার জায়গা থাকবে। এবারের মেলা দেখা মনে হচ্ছে এখানে শুধুই বই বিক্রি হচ্ছে। আর দুই জায়গায় মেলা হওয়ায় মনে হচ্ছে দুই ভাই দুই জায়গায় বসে আছে। সমস্ত মেলা এক জায়গায় হলেই ভালো হতো। এবার মেলার প্রবেশ পথ খুবই অপরিষ্কার। যারা দায়িত্বে রয়েছেন তার‍া হয়তো ঠিকমতো খেয়াল রাখতে পারছেন না। আর মেলার শৌচাগার ব্যবস্থা খুবই খারাপ। একটি জাতি সম্পর্কে জানা যায় তাদের শৌচাগার দেখে, আমাদের মেলার শৌচাগার কোনো ভিন দেশি দেখলে ভাববে বাঙালি একটি অপরিষ্কার জাতি।

বাংলাদেশ সময়: ১৫০৫ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ২৮, ২০১৪

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa