ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৭ শ্রাবণ ১৪২৯, ১১ আগস্ট ২০২২, ১২ মহররম ১৪৪৪

বইমেলা

দাবি ছিলো ৭ দিন, বেড়েছে আড়াই ঘণ্টা

আদিত্য আরাফাত, সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০৪১ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ২৫, ২০১৫
দাবি ছিলো ৭ দিন, বেড়েছে আড়াই ঘণ্টা

গ্রন্থমেলা থেকে: এবারের অমর একুশে গ্রন্থমেলার আয়ু যখন শেষপ্রান্তে তখন খবর ছড়াচ্ছিলো ‘বইমেলা একসপ্তাহ বাড়ছে’। মেলার ২৫তম দিনের সন্ধ্যায় অবশেষে জানা গেলো খবরটি কেবলই গুজব।



বাংলা একাডেমি সাফ জানিয়েছে, অমর একুশে গ্রন্থমেলার নিয়মানুযায়ী ২৮ ফেব্রুয়ারি পর্যন্তই চলবে। তবে এবারের মেলায় বাকি তিনদিন মোট সময় বাড়ানো হয়েছে মাত্র আড়াই ঘণ্টা।

এরমধ্যে ২৬ বৃহস্পতিবার বেলা ৩টার পরিবর্তে মেলা খুলবে দুপুর ২টায়। আর শেষ হবে রাত সাড়ে আটটার পরিবর্তে নয়টায়। শুক্র ও শনিবার মেলার দ্বার খুলবে অন্য ছুটির দিনের মতোই ১১টায়। তবে এ দু’দিন মেলা বন্ধ হবে রাত সাড়ে ৮টার পরিবর্তে ৯টায়। সেদিক থেকে হিসেব কষলে আসলে মেলার সময় বাড়লো মোট আড়াই ঘণ্টা।

বাংলাদেশ পুস্তক প্রকাশক ও বিক্রেতা সমিতির পক্ষ থেকে বাংলা একাডেমি বরাবর আবেদন জানানো হয়, অমর একুশে গ্রন্থমেলার সময়সীমা ২৮ ফেব্রুয়ারি থেকে বাড়িয়ে ৭ মার্চ পর্যন্ত করা হোক। সমিতির সভাপতি আলমগীর সিকদার লোটন স্বাক্ষরিত এক চিঠিতে বলা হয়, ‘এবারের অমর একুশে গ্রন্থমেলা দেশে চলমান অস্থিরতার মধ্যে শুরু হয়েছে। ফলে জনসাধারণের মধ্যে এক ধরনের ভয়-ভীতি ও উদ্বেগ থাকার ফলে মেলায় প্রতিবছরের তুলনায় এবারে তাদের সমাগম কম হয়েছে। প্রথম দিকে মেলায় আগত ক্রেতাসাধারণ ও দর্শনার্থীদের আগমন কম থাকায় প্রকাশকরা আর্থিক ক্ষতির মধ্যে পড়েছেন। তাছাড়া এবারের গ্রন্থমেলায় বরাদ্দ করা ষ্টলের মূল্য বিগত বছরের তুলনায় বেশি নির্ধারণ করা হয়েছে।

সামগ্রিকভাবে দেশের এই প্রাণের গ্রন্থমেলায় জনসাধারণকে অবারিতভাবে অংশগ্রহণের সুযোগ দেওয়া ও মেলায় অংশ নেওয়া প্রকাশকদের তাদের আর্থিক ক্ষতি কিছুটা প‍ূরণের জন্য মেলার সময়সীমা ২৮ ফেব্রুয়ারি থেকে বাড়িয়ে ৭ মার্চ পর্যন্ত করার আবেদন করা হচ্ছে। ’
 
এমন আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে অমর একুশে গ্রন্থমেলার দিন না বাড়িয়ে বাংলা একাডেমি পরিবর্তন আনলো সময়সূচিতে।
 
এ প্রসঙ্গে মেলা পরিচালনা কমিটির সদস্য সচির জালাল আহমেদ বলেন, ‘মেলার দিন বাড়ানোর কোনো সুযোগ নেই। তবে বৃহস্পতিবার থেকে মেলার সময় বাড়ানো হয়েছে। বিকেল ৩টার পরিবর্তে মেলার দ্বার খোলা হবে দুপুর ২টায়। বন্ধ হবে রাত ৯টায়। ’
 
বলাকা প্রকাশনার স্বত্ত্বাধিকারী শরিফা বুলবুল বাংলা একাডেমির এ সময় বাড়ানোকে ‘কাটা ঘায়ে নুনের ছিঁটা হিসেবে দেখছেন’।

তিনি বাংলানিউজকে বলেন, দেশের বর্তমান পরিস্থিতিতে মেলা বাড়ানোর দাবিটি ছিল যৌক্তিক। সাত দিনের দাবির পরিবর্তে বাকি তিনদিনে মোট সময় বাড়িয়েছে আড়াই ঘণ্টা। ’

এটাকে প্রহসন হিসেবে দেখছেন এ প্রকাশক।

তবে বাংলাদেশ পুস্তক ও বিক্রেতা সমিতির এ দাবির সঙ্গে একমত নন বাংলাদেশ সৃজনশীল প্রকাশক সমিতির অনেক সদস্য। তাদের বক্তব্য অমর একুশের গ্রন্থমেলা ফেব্রুয়ারি মাসের বাইরে যাওয়া ঠিক হবে না। সময়সূচির এই পরিবর্তনে মেলায় তেমন কেনো প্রভাব পড়বে না বলেই জানালেন তারা।

বুধবার (২৫ ফেব্রুয়ারি) একুশে গ্রন্থমেলা দুই প্রাঙ্গণ বাংলা একাডেমি ও সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে দেখা গেলো পাঠক ক্রেতাদের ভিড়। ছোট বড় সবাই পছন্দের বই কেনা নিয়ে ব্যস্ত।

বেশিরভাগ প্রকাশনা থেকেই ইতোমধ্যে তালিকায় থাকা সব বই প্রকাশ হয়েছে। তাই পাঠকরা এখন তাদের পছন্দের সব ধরনের বই সংগ্রহ করতে পারছেন। যদিও মাঝারি ও ছোট প্রকাশকদের কেউ কেউ তালিকায় থাকলেও ভালো ব্যবসা হচ্ছে না বলে অনেক বইয়ের প্রকাশনা স্থগিত করেছেন।

প্রকাশিত নতুন বই
অমর একুশে গ্রন্থমেলার ২৫তম দিনে প্রকাশিত হয়েছে ১১৬টি বই। এর মধ্যে উপন্যাস ১০টি, গল্পের বই ২১টি,  প্রবন্ধের বই ১২টি, কবিতার বই ২৭টি, গবেষণা ২টি, ছড়া ৫টি, শিশুসাহিত্য ২টি, জীবনী ৫টি, নাটক একটি, বিজ্ঞান বিষয়ক বই একটি, ভ্রমণকাহিনী ৫টি, ইতিহাস বিষয়ক বই একটি, ধর্মীয় একটি, অনুবাদের বই ২টি, সায়েন্স ফিকশন ২টি এবং অন্যান্য বিষয়ের বই ২১টি।

উল্লেখযোগ্য বইয়ের মধ্যে রয়েছে অপূর্ব চৌধুরীর ‘অনুকথা’, সূচিপত্র থেকে কায়কোবাদ মিলনের ‘তুমি শুধু তুমি’, পাঠক সমাবেশ থেকে মাসরুর আরেফিনের ভূমিকা, অনুবাদ ও পাঠ পর্যালোচনায় হোমারের ‘ইলিয়াড’, অন্যপ্রকাশ থেকে ফয়জুল লতিফ চৌধুরী সম্পাদিত ‘জীবনানন্দ দাশের চিঠিপত্র’, নাগরী প্রকাশনী থেকে নৃপেন্দ্রলাল দাশের ‘শ্রেষ্ঠ প্রবন্ধ’, অনিন্দ্য প্রকাশ থেকে লুৎফর রহমান রিটনের ‘অ্যাডাল্ট ছড়াসমস্ত’, অনুপম প্রকাশনী থেকে ড. সামসুদ্দিন আলমের ‘ভারতবর্ষে উদ্ভিদবিজ্ঞান ইতিহাসের কালপঞ্জি’, বিভাস প্রকাশন থেকে পদ্মনাভ অধিকারীর ‘মহর্ষি লালন সাঁই’ প্রভৃতি।
 
মোড়ক উন্মোচন
বাংলা একাডেমির নজরুল মঞ্চে বুধবার মোট ১১টি বইয়ের মোড়ক উন্মোচন হয়েছে। বিকেলে ম্যাগনাম ওপাস থেকে প্রকাশিত অপূর্ব জুনায়েদের বই ‘আওয়ার লাইফ’-এর মোড়ক উন্মোচন করেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক।

মূলমঞ্চের আয়োজন
বিকেলে গ্রন্থমেলার মূল মঞ্চে অনুষ্ঠিত হয় ‘বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধের উপন্যাস’ শীর্ষক আলোচনা অনুষ্ঠান। অনুষ্ঠানে প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন অধ্যাপক শান্তনু কায়সার। আলোচনায় অংশ নেন পূরবী বসু, বদিউর রহমান এবং জাকির তালুকদার। সভাপতিত্ব করেন কথাসাহিত্যিক সেলিনা হোসেন। সন্ধ্যায় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে আবৃত্তি পরিবেশন করেন আবৃত্তিশিল্পী সায়েরা হাবীব, মোহাম্মদ লতিফুর রহমান এবং আতাহার ইয়াসির ফাহিম। সংগীত পরিবেশন করেন কণ্ঠশিল্পী সাজেদ আকবর, সালমা আকবর, মিলিয়া আলী, স্বপন দত্ত, স্বাতী সরকার, অভয়া দত্ত, অনিমা রায়, ড. অনুপম কুমার পাল এবং দীপা চৌধুরী।

বৃহস্পতিবারের আয়োজন
২৬ ফেব্রুয়ারি বিকেলে গ্রন্থমেলার মূলমঞ্চে অনুষ্ঠিত হবে ‘গত বছরে বাংলাদেশের কবিতা’ শীর্ষক আলোচনা অনুষ্ঠান। অনুষ্ঠানে প্রবন্ধ উপস্থাপন করবেন অধ্যাপক রফিকউল্লাহ খান। আলোচনায় অংশ নেবেন কবি মুহম্মদ নূরুল হুদা, ড. অনীক মাহমুদ এবং রেজাউদ্দিন স্টালিন। সভাপতিত্ব করবেন কবি আসাদ চৌধুরী।

বাংলাদেশ সময়: ২০৩৩ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ২৫, ২০১৫

** বইমেলায় বই কিনতে প্রযুক্তির ছোঁয়া

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa