ঢাকা, শুক্রবার, ১০ ফাল্গুন ১৪৩০, ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১২ শাবান ১৪৪৫

বইমেলা

ভাষার যতো বই

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৫৩১ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ২১, ২০১৬
ভাষার যতো বই ছবি: সংগৃহীত

বইমেলা থেকে: ভাষার মাসকে কেন্দ্র করেই বইমেলা। একুশের গ্রন্থমেলায় পাওয়া যাচ্ছে ভাষা ও ভাষা আন্দোলনের বিভিন্ন বই।

এবারের বইমেলায় বাংলা একাডেমির দেওয়া তথ্য মতে, মেলার ২০দিন পর্যন্ত ভাষা নিয়ে মোট ১০টি বইয়ের তথ্য দেওয়া থাকলেও মেলা ঘুরে দেখা গেছে, এ বিষয়ে শতাধিক বই রয়েছে।

এবার মেলায় ভাষা আন্দোলন নিয়ে লেখা নতুন বইয়ের মধ্যে রয়েছে- মধ্যমা প্রকাশনী থেকে ভাষা সংগ্রামী আহমদ রফিকের ‘একুশের দিনলিপি’, আহমদ পাবলিশিং থেকে আবুল কাশেম ফজলুল হকের ‘রাষ্ট্রভাষা আন্দোলনের দলিলপত্র’, আগামী প্রকাশনী থেকে ভাষা সংগ্রামী অধ্যাপক ড. রফিকুল ইসলামের ‘বাংলাদেশের সাহিত্যে ভাষা আন্দোলন ও মুক্তিযুদ্ধ’, ময়ূরপঙ্খী থেকে একই লেখকের ‘বাংলা ভাষা আন্দোলন’, আগামী প্রকাশনী থেকে মোনায়েম সরকারের ‘মুক্তিযুদ্ধ ও ভাষা আন্দোলনের গান’, জাতীয় সাহিত্য প্রকাশনী থেকে বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টির ‘ভাষা আন্দোলনের দলিল সংকলন’, নালন্দা প্রকাশনী থেকে এমআর মাহবুবের ‘রাষ্ট্রভাষা আন্দোলন’ ও ’ভাষা সংগ্রামের স্মৃতি’ এবং পিয়াল পাবলিশিং থেকে জাহানারা তোফায়েলের ‘আমার স্মৃতিতে ভাষা আন্দোলন’।

বাংলা একাডেমির দেওয়া এ ১০টি বইয়ের বাইরে আরও অনেক বাংলা ভাষা নিয়ে বই পাওয়া যাচ্ছে মেলায়। এগুলোর মধ্যে রয়েছে- ইউপিল থেকে এসেছে আতাউর রহমান সম্পাদিত ‘ভাষা আন্দোলনের আর্থ সামাজিক পটভূমি’, মুহম্মদ হাবিবুর রহমানের ‘প্রথমে মাতৃভাষা পরভাষা পরে’, ‘বাংলা ভাষা সাহিত্য ও সাংস্কৃতিক আন্দোলন’, চয়ন প্রকাশন বের করেছে মো. জিল্লুর রহমান ও লিলি হকের সম্পাদনায় ‘ভাষা আন্দোলনের কবিতা ও ছড়া’, খান ব্রাদার্স থেকে এসেছে মাহবুবুল আলমের ‘বাংলা ভাষার ইতিহাস’, ‘বাংলাদেশের সাহিত্য’, ‘বাংলা বানান ও ভাষারীতি’, ‘বাংলা ভাষার ব্যাকরণ’, ‘সাহিত্যতত্ত্ব’, ‘বাংলা সাহিত্যের নানাদিক’, ‘বাংলা সাহিত্য: কিশোর উপন্যাস’, ‘বাংলা সাহিত্যের ইতিহাস’, ‘বাংলা ভাষার ইতিহাস’,  ‘বাংলাদেশের সাহিত্য’, আহমদ ছফার ‘বাংলা ভাষা: রাজনীতির আলোকে’, সৌরভ সিকদারের কথাসাহিত্যের ‘শিল্পরূপ ও ভাষাশৈলী’, বিশ্বসাহিত্য ভবন থেকে এসেছে মমতাজউদদীন আহমদের ‘একুশ আমার বাংলা আমার’, ও সাম্প্রতিক বাংলার বিবিধ যন্ত্রণা, ড. মোহাম্মদ হাননানের ‘বাংলা সাহিত্য মতাদর্শগত বিরোধ ও শ্রেণীদ্বন্দ্ব’, ড. আরজুমন্দ আরা বানুর ‘বাংলা সাহিত্য ইতিহাসের নানা প্রসঙ্গ’, ড. সফিউদ্দিন আহমদের ‘ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগরের ভাষা সাহিত্য’ ও ‘শিক্ষা চিন্তা সালিম সাবরিনার ভাষা জাতি ও জাতীয়তা’, কথামেলা থেকে এসেছে রাশেদ মামুনের ‘কিংবদন্তির খনা উক্তি প্রবাদে বাংলার কৃষ্টি ও জীবন দর্শন’, শামস আলদীনের ‘প্রসঙ্গ কথাসাহিত্য ও অন্যান্য’, অ্যার্ডন থেকে এসেছে ময়ুখ চৌধুরীর ‘উনিশ শতকের নবচেতনা ও বাংলা কাব্যের গতি প্রকৃতি’, ফরিদ কবিরের ‘আমার গদ্য’, অন্বেষা থেকে এসেছে সিরাজুল ইসলাম চৌধুরীর ‘নজরুল ইসলামের সাহিত্য জীবন’, আহমদ রফিকের ‘সংস্কৃতিচর্চা ও অসমাপ্ত লড়াই’, আবুল আহসান চৌধুরীর ‘মীর মশাররফ হোসেন সাহিত্যকর্ম ও সমাজচিন্তা’, মাওলা ব্রাদার্স থেকে এসেছে ড. মোহাম্মদ আমিনের ‘অফিস আদালতে বাংলা লেখার নিয়ম’, আফসার ব্রাদার্স থেকে এসেছে আমিনুর রহমান সুলতানের ‘ভাষা আন্দোলনের কিশোর ইতিহাস’, অনন্যা থেকে এসেছে আজহার ইসলামের ‘চলতি বাংলা অভিধান’, বাংলা সাহিত্যের ‘ইতিহাস (প্রাচীন ও মধ্যযুগ)’, ঐতিহ্য থেকে এসেছে মোহাম্মদ তাজুল ইসলামের সম্পাদনায় ‘সংক্ষিপ্ত বাংলা অভিধান ও বাংলা অনুপ্রাস অভিধান’ প্রভৃতি।
 
বাংলাদেশ সময়: ১৫৩৪ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ২১, ২০১৬
এডিএ/এসএস

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।