ঢাকা, রবিবার, ১ কার্তিক ১৪২৮, ১৭ অক্টোবর ২০২১, ০৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

বইমেলা

জমেনি শিশু চত্বর, বইয়ের সঙ্গে শিশুদের সম্পৃক্ততার আহ্বান

ফিচার রিপোর্টার | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০৮৪৩ ঘণ্টা, মার্চ ২৩, ২০২১
জমেনি শিশু চত্বর, বইয়ের সঙ্গে শিশুদের সম্পৃক্ততার আহ্বান

বইমেলা থেকে: ছোট্ট ছোট্ট সোনামণিরা অভিভাবকদের হাত ধরে ঘুরে বেড়ায় বইমেলা জুড়ে। বই কিনে ও খেলাধুলা করে সময় কাটায় তারা।

এ বছরও সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে শিশুপ্রহর রাখা হয়েছে। তবে মহামারির কারণে প্রথম দিকে তা নেই। ফলে বইমেলায় এখন শিশুদের আনাগোনাও কম।

সোমবার (২২ মার্চ) বইমেলার ঘুরে দেখা যায়, প্রাপ্তবয়স্ক পাঠকদের যথেষ্ট আনাগোনা থাকলেও বইমেলায় এবার শিশুদের পদচারণা কম। এমনকি মেলার শিশুচত্বরও প্রায় জনশূন্য। বিক্রি নেই সেখানকার প্রকাশনীগুলোরও।

এ বিষয়ে ঝিঙেফুল প্রকাশনীর বিক্রয়কর্মী শাহিন আলম জানান, শিশুরা সবসময়ই ছড়া, গল্প, কবিতার বই ভালোবাসে। সে ধরনের বইও আছে যথেষ্ট। কিন্তু এবার এই চত্বরে শিশুরা আসছে না। মেলাতেও শিশুদের আনাগোনা কম। ছুটির দিন ছাড়া বাকি দিনগুলোতে বিক্রিও তেমন নেই।

আদিগন্ত প্রকাশনীর ব্যবস্থাপক আহমেদ সাজিদ ইসলাম বলেন, করোনার কারণে এবার অনেক অভিভাবকই সচেতন। তারা মেলায় শিশুদের খুব কম আনছেন। তবে ছুটির দিনে শিশুদের আনাগোনা বাড়ে।

শিশুচত্বরে কথা হয় তরুণ শিশু সাহিত্যিক রণজিৎ সরকারের সঙ্গে। তিনি বলেন, করোনার একটা বড় প্রভাব বইমেলার উপর আছে। তবে এখন তো মাত্র মেলা শুরু হচ্ছে, আশাকরি ধীরে ধীরে অন্য সবার পাশাপাশি শিশুদের আনাগোনাও বাড়বে। কেননা সচেতন অভিভাবকরা এটা জানেন যে, শিশুকে সুন্দর মননে গড়ে তুলতে বইয়ের সঙ্গে সম্পৃক্ততার কোনো বিকল্প নেই।

এদিকে বাংলা একাডেমির দেওয়া তথ্যমতে সোমবার মেলায় নতুন বই এসেছে ১৩৯টি। এর মধ্যে গল্পগ্রন্থ ২০টি, উপন্যাস ২৮টি, প্রবন্ধ ১৩টি, কবিতা ৫০টি, গবেষণা বিষয়ক ২টি, ছড়ার বই ৩টি, শিশুসাহিত্য ২টি, জীবনী ৩টি, মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক ৪টি, নাটক ২টি, বিজ্ঞান বিষয়ক ১টি, ইতিহাস বিষয়ক ২টি, বঙ্গবন্ধু বিষয়ক ৪টি, ধর্মীয় বই ১টি এবং অন্যান্য বই ৪টি।

এদের মধ্যে অনন্যা থেকে মুনতাসীর মামুনের সম্পাদনায় প্রকাশিত কলাম গ্রন্থ 'বাংলাদেশ চর্চা (পঞ্চদশ খণ্ড)', বিভাস থেকে মহাদেব সাহার কাব্যগ্রন্থ 'পৃথিবী, তোমার দুঃখ ঘুচে যাবে', অধ্যাপক ননী গোপাল সরকারের প্রবন্ধগ্রন্থ 'বঙ্গবন্ধু সমগ্র', অন্য প্রকাশ থেকে মৌরী মরিয়মের উপন্যাস 'ফানুস', কথা প্রকাশ থেকে শাকুর মজিদের স্মৃতিকথা বিষয়ক গ্রন্থ 'ছাত্রকাল ট্রিলজি', আগামী প্রকাশনী থেকে অধ্যাপক ড. অরূপ রতন চৌধুরীর বঙ্গবন্ধু বিষয়ক গ্রন্থ 'বঙ্গবন্ধুর ঐতিহাসিক ৭ মার্চের ভাষণ ও স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্র', মঈনুল আহসান সাবেরের উপন্যাস 'কবেজ লেঠেল', কথা প্রকাশ থেকে ঝর্না রহমানের গল্পগ্রন্থ 'জলপরী ও নূহের নৌকা', আগামী প্রকাশনী থেকে হাসনাত আবদুল হাইয়ের নাটক 'হ্যাম-বেথ', আনোয়ারা সৈয়দ হকের উপন্যাস 'আমার রেণু', বিভাস থেকে মহাদেব সাহার কাব্যগ্রন্থ 'মুজিব কবিতাসমগ্র', অনিন্দ্য প্রকাশ থেকে দুখু বাঙালের কাব্যগ্রন্থ 'দীর্ঘ কবিতায় পিতা তুমি' উল্লেখযোগ্য।

মঙ্গলবার অমর একুশে বইমেলার ষষ্ঠ দিন। এদিন মেলা চলবে বিকেল ৩টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত। বিকেলে বইমেলার মূলমঞ্চে অনুষ্ঠিত হবে 'স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী: মুক্তিযুদ্ধ ও নারী' শীর্ষক আলোচনা অনুষ্ঠান।

বাংলাদেশ সময়: ০৮৪২ ঘণ্টা, মার্চ ২৩, ২০২১
এইচএমএস/আরএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa