ঢাকা, শনিবার, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ০৪ ডিসেম্বর ২০২১, ২৮ রবিউস সানি ১৪৪৩

বাজেট

উচ্চাভিলাষী বাজেট দেশের জন্য ভালো

বাজেট রিপোর্টিং টিম | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৭২৪ ঘণ্টা, জুন ৬, ২০১৪
উচ্চাভিলাষী বাজেট দেশের জন্য ভালো ছবি : বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

ওসমানী মিলনায়তন থেকে: অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত বলেছেন, উচ্চভিলাষ যদি বাস্তবায়ন করতে পারি তাহলে সেটিই ভালো। প্রথম থেকেই আমি উচ্চাভিলাষী বাজেট দিয়ে আসছি।

৫ বছরে ব্যয় করার সামর্থ্য দ্বিগুণ হয়েছে। এটাই এই সরকারের বৈশিষ্ট্য।

শুক্রবার রাজধানীর ওসমানী মিলনায়তনে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি একথা বলেন।

সংবাদ সম্মেলন চলাকালে অর্থমন্ত্রী সঙ্গে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন কৃষি মন্ত্রী মতিয়া চৌধুরী, তথ্য মন্ত্রী হাসানুল হক ইনু, পরিকল্পনা মন্ত্রী আ হ ম মোস্তফা কামাল, অর্থ প্রতিমন্ত্রী এম এ মান্নান। পাশের আরেকটি টেবিলে বসেছিলেন কেন্দ্রীয় ব্যাংকের গভর্নর ড. আতিউর রহমান, জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের চেয়ারম্যান গোলাম রহমান।

অর্থমন্ত্রী বলেন, ২০০৯-১০ সাল থেকে বলছি স্থানীয় সরকারে সুযোগ বাড়ছে। আমরা যেভাবে ইউনিয়ন ও উপজেলাকে ব্যবহার করছি। ভবিষ্যতে জেলা পরিষদকেও ব্যবহার করতে পারবো।
 
বেসরকারি গবেষণা প্রতিষ্ঠান সিপিডি বাজেটকে ‘লক্ষ্য বিলাস বাজেট’ বলে উল্লেখ করেছে- এ প্রসঙ্গে অর্থমন্ত্রী বলেন, ‘নো কমেন্ট’। তাদের মন্তব্যকে কোনো মন্তব্য বলে মনে হয় না।
 
আবুল মাল আবদুল মুহিত বলেন, বাস্তবে বাজেট ঘাটতি ৫ শতাংশের নিচে। বৈদেশিক সাহায্য যত আশা করি তা হয় না। তবে বিগত সময়ে এটি ২ হাজার ৪৪৪ কোটি টাকা ছিল। ২০০৯-১০ এ অর্থবছরে ২ হাজার ৯৮৩ কোটি টাকা। বর্তমানে তা বেড়ে দ্বিগুণ হয়েছে। প্রতিরক্ষা নয়, শিক্ষা সবচেয়ে বেশি বরাদ্দ পায়। অবশ্যই বিনিয়োগের ওপর প্রবৃদ্ধি নির্ভর করে। সাত বছর ধরে আমি আমার অবস্থানে ঠিক আছি। ৯৫ শতাংশ রাজস্ব আয়ের লক্ষ্যমাত্রা অর্জিত হয়েছে। একমাত্র গতবার এটি অর্জন করতে পারিনি।
 
অর্থমন্ত্রী বৃহস্পতিবার ২০১৪-১৫ অর্থ বছরের জন্য দুই লাখ ৫০ হাজার ৫০৬ কোটি টাকার বাজেট সংসদে উপস্থাপন করেন। এর ঠিক একদিন পরেই তিনি এই সংবাদ সম্মেলন করলেন। রেওয়াজ অনুযায়ী প্রতি বছরই বাজেট উপস্থাপনের পরদিন তিনি সংবাদ সম্মেলন করে থাকেন।
  
করমুক্ত আয়ের সীমা আমাদের দেশে যেভাবে বাড়ানো হয় সেভাবে বিশ্বের কোনো দেশে বাড়ানো হয় না। বিশ্বের ধনী দেশেও এভাবে বাড়ানো হয় না।

 ২ লাখ ২০ হাজার টাকা আগামী ১০ বছরের জন্য নির্ধারণ করতে চেয়েছিলাম। কিন্তু প্রধানমন্ত্রীর আপত্তির কারণে তা সম্ভব হয়নি।

মোবাইল সেটে যে কর বসানো হয়েছে তাতে কেউ আপত্তি করবেন না বলে আমার ধারণা।

তবে রাজনৈতিক সহিংসতা আমাদের পরিহার করতে হবে। এটি দুষ্টু কালচার। রাজনীতিবেদরা এ ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেবেন। আমরা এ ব্যাপারে শুধু আপিল করতে পারি।

** অর্থমন্ত্রীর বাজেটোত্তর সংবাদ সম্মেলন শুরু
** কৃষিতে যা বরাদ্দ চেয়েছি তাই পেয়েছি
** করমুক্ত আয়ের সীমা বাড়ছে না
** দেশে প্রবৃদ্ধিও হচ্ছে দারিদ্রও কমছে: ইনু

বাংলাদেশ সময়: ১৭১০ ঘন্টা, জুন ৬, ২০১৪

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa