ঢাকা, শনিবার, ৬ বৈশাখ ১৪৩১, ২০ এপ্রিল ২০২৪, ১০ শাওয়াল ১৪৪৫

বাজেট

বাজেটের সুবিধা জনগণের দৌড়গোড়ায় পৌঁছায় না

অন্তু মুজাহিদ, স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৪৩১ ঘণ্টা, জুন ২, ২০১৭
বাজেটের সুবিধা জনগণের দৌড়গোড়ায় পৌঁছায় না

ঢাকা: ২০১৭-১৮ অর্থবছরের প্রস্তাবিত ৪ লাখ ২৬৬ কোটি টাকার বাজেট নিয়ে চায়ের দোকান থেকে শুরু করে অফিস-আদালত, গণপরিবহনসহ সর্বত্র চলছে আলোচনা-সমালোচনার ঝড়।

শুক্রবার (২ জুন) যাত্রাবাড়ী থেকে টঙ্গীগামী রাইদা বাসে ভ্রমণকালে বাজেট নিয়ে কথা হয় বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে কর্মরত ব্যক্তি, ব্যবসায়ী, গার্মেন্টস শ্রমিক ও শিক্ষার্থীদের সঙ্গে।

বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে কর্মরত ফারুক হোসেন বাজেট সম্পর্কে বলেন, বাজেট হচ্ছে, প্রতিবছর বাজেটের অঙ্ক বাড়ছে, বড় ভলিউমের বাজেটের সুবিধা সাধারণ মানুষের দৌড়গোড়ায় পৌঁছাচ্ছে না।

এটা একটা লেভেল পর্যন্ত গিয়ে থেমে যাচ্ছে। বাজেট বাস্তবায়নের ক্ষেত্রে যে স্বচ্ছতা থাকা দরকার সেটা নেই। বাজেট বড় হচ্ছে, তা সাধারণ মানুষের ভাগ্য উন্নয়নে ভূমিকা রাখতে পারবে কি না সেটাই বড় বিষয়।

গার্মেন্ট ফ্যাক্টরি বেঙ্গল নিটেক্সের মার্চেন্টাইজার সাখাওয়াত হুসাইন বলেন, বাজেটে ইলেক্ট্রনিক্স পণ্যের দাম কমেছে ভালো কথা। এতে সবাই প্রযুক্তির ব্যবহারে উৎসাহিত হবে। তবে ফাস্টফুডের দাম বৃদ্ধি অযৌক্তিক। আমাদের প্রযুক্তি লাগবে ঠিক আছে তবে বুঝতে হবে বেসিক চাহিদা কোনটি। খাদ্য আমাদের মৌলিক চাহিদা। এটার দাম বাড়িয়ে প্রযুক্তির দাম কমানো সঠিক সিদ্ধান্ত হয়নি। পাশাপাশি শিক্ষা খাতে বরাদ্দ বৃদ্ধির দাবি জানান এই চাকুরিজীবী।

গার্মেন্ট শ্রমিক আনোয়ার হোসেন জানান, বাজেট যাই হোক এগুলো শুনে লাভ নেই। যেসব কথা বলা হচ্ছে তা ফাউ কথা। কারণ, কোন কিছুর দাম কমবে না, বরং বাড়বে। বাজেট বাস্তবায়নের আগ থেকে অনেক কিছুর দাম বেড়ে গেছে। এসব দাম আর কমবে না। সাধারণ মানুষের যে কষ্ট তা থেকেই যাবে।

বাজেট ঘোষণার সপ্তাহ খানেক আগেই দ্রব্যমূল্যের দাম বৃদ্ধি পেয়েছে অভিযোগ করে ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী তৌহিদ জানান, বেশ কিছুদিন থেকেই অনেক পণ্যের দাম বেড়ে গেছে। আমাদের (ব্যবসায়ীদের) হয়তো লাভ কম হয়। কিন্তু ক্রেতারা নিরুপায়। অনেকটা বাধ্য হয়েই তাদের কেনাকাটা করতে হয়। তবে বাজেট বাস্তবায়নের পাশাপাশি মনিটরিং জরুরি।

নর্থ-সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের বিবিএ অষ্টম সেমিস্টারের শিক্ষার্থী আরিফ হুসাইন বলেন, বাজেটে এতোবড় ঘটতি দেখানো ঠিক হয়নি। বাজেট কম করলে ঘাটতিও কম হতো। তবে লুটপাট ঠেকাতে না পারলে বাজেট কোনো উপকারে আসবে না। তাই বাজেট বাস্তবায়নে সুষ্ঠু মনিটরিং করতে হবে। মুনাফালোভী ব্যবসায়ীরা খাদ্য দ্রব্য আটকে রেখে বাজারে সংকট তৈরি করে। এগুলো বন্ধ করতে হবে।

উত্তরা মডের কলেজের একাদশ শ্রেণির শিক্ষার্থী সারোয়ার জাহান বলেন, বাংলাদেশ এতো বড় একটা বাজেট করতে পারছে এটা বড় ব্যাপার। সবার উচিত সমালোচনা না করে সহযোগিতা করা। তাহলে কোনো কঠিন কাজই কঠিন হবে না।

বাংলাদেশ সময়: ২০২৬ ঘণ্টা, জুন ০২, ২০১৭
এএম/এমজেএফ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।