ঢাকা, সোমবার, ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৯, ০৫ ডিসেম্বর ২০২২, ১০ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

জলবায়ু ও পরিবেশ

বুড়িগঙ্গার ওপর দানবীয় অত্যাচার চলছে

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৪১৪ ঘণ্টা, জুন ১৬, ২০১৫
বুড়িগঙ্গার ওপর দানবীয় অত্যাচার চলছে ছবি: বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম (ফাইল ফটো)

ঢাকা: বুড়িগঙ্গা নদীতে ময়লা-আবর্জনা, পলিথিন, প্লাস্টিক বোতল ফেলা ও কেমিকেল বর্জ্য নিঃসরণ বন্ধের দাবিতে সংহতি সমাবেশ করেছে বিভিন্ন পরিবেশবাদী সংগঠন।

মঙ্গলবার (১৬ জুন) দুপুরে বুড়িগঙ্গার সদরঘাটে পরিবেশ বাঁচাও আন্দোলন, বুড়িগঙ্গা বাঁচাও আন্দোলন, বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ-চলাচল কর্তৃপক্ষ (বিআইডব্লিউটিএ) ও বারসিকের যৌথ উদ্যোগে এ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।



বুড়িগঙ্গা বাঁচাও আন্দোলনের সদস্য সচিব মেহের বিশ্বাসের সভাপতিত্বে সমাবেশে উপস্থিত ছিলেন নাগরিক উদ্যোগের সভাপতি নাজিম উদ্দিন, বিআইডব্লিউটিএ’র যুগ্ম-পরিচালক শহিদুল্লাহ, পরিবেশ বাঁচাও আন্দোলনের যুগ্ম-সম্পাদক মো. সেলিম, রাজপথ-নৌপথ-সড়কপথ রক্ষা কমিটির যুগ্ম-সম্পাদক সেকেন্দার হায়াত প্রমুখ।

মেহের বিশ্বাস বলেন, বুড়িগঙ্গা ঢাকাবাসীর অস্তিত্ব, সভ্যতা এবং সম্পদ। বর্জ্য, কেমিকেল প্লাস্টিকসহ বিভিন্ন ক্ষতিকর পদার্থ ফেলে মায়ের মতো এ নদীকে আমরাই হত্যা করেছি। প্রতিনিয়ত বুড়িগঙ্গার বুকে চলছে দানবীয় অত্যাচার। সেই সঙ্গে অশুভ শক্তি ক্ষমতার জোরে নদীকে গিলে ফেলছে। বুড়িগঙ্গাকে মেরে ফেলার জন্য আমরাই দায়ী। তাই একে পুনঃজীবিত করতে হলে নগরবাসীকেই সচেতন হতে হবে।

শহিদুল্লাহ বলেন, জাতীয় স্বার্থে বুড়িগঙ্গাকে রক্ষা করা প্রয়োজন। নদীর বর্তমান অবস্থার জন্য শুধু মানুষ নয়, ওয়াসা এবং সিটি কর্পোরেশন দায়ী। তাই একে রক্ষার জন্য মানুষের পাশাপাশি ওয়াসা এবং সিটি কর্পোরেশনকেও উদ্যোগ নিতে হবে। পাশাপামি কেমিকেল বর্জ নিঃসরণ বন্ধ করতে হবে।

সংহতি সমাবেশ শেষে আয়োজকরা সদরঘাটের ৮ নং পন্টুনে সচেতনতামূলক লিফলেট বিলি করেন।

বাংলাদেশ সময়: ১৪১৪ ঘণ্টা, জুন ১৬, ২০১৫
আইএএ/এইচএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa