ঢাকা, সোমবার, ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৯, ০৫ ডিসেম্বর ২০২২, ১০ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

জলবায়ু ও পরিবেশ

থেমে থেমে বৃষ্টি, থাকবে শনিবারও

আবহাওয়া ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০৭৩৪ ঘণ্টা, জুন ২৬, ২০১৫
থেমে থেমে বৃষ্টি, থাকবে শনিবারও ছবি : শোয়েব মিথুন/বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

ঢাকা: প্রবল মৌসুমী বায়ুর প্রভাবে সারাদেশে থেমে থেমে হালকা, হালকা থেকে মাঝারি এবং কোথাও কোথাও ভারি বৃষ্টিপাত অব্যাহত রয়েছে। শনিবারও এমন অবস্থা থাকবে বলে জানিয়েছে বাংলাদেশ আবহাওয়া অধিদফতর।



শুক্রবার (২৬ জুন) সকাল ৬টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত সবচেয়ে বেশি বৃষ্টিপাতের পরিমাণ রেকর্ড করা হয়েছে কক্সবাজারে বলে জানান আবহাওয়া সহকারী মো. আব্দুল আলীম। তিনি জানান, এখানে বৃষ্টিপাত হয়েছে ১২৩ মিলিমিটার। আর সবচেয়ে কম বৃষ্টিপাতের পরিমাণ রেকর্ড করা হয়েছে সাতক্ষীরায়। এখানে বৃষ্টিপাত হয়েছে ২ মিলিমিটার।

ঢাকায় ১৭ মি.মি, ময়মনসিংহে ৫ মি.মি, ফরিদপুরে ৩ মি.মি, মাদারীপুরে ৩ মি.মি, চট্টগ্রামে ২৬ মি.মি, সন্দ্বীপে ১৫ মি.মি, সীতাকুণ্ডে ১৮ মি.মি, রাঙামাটিতে ২২ মি.মি, মাইজদীকোর্টে ২ মি.মি, ফেনীতে ৭ মি.মি, হাতিয়ায় ১৯ মি.মি, টেকনাফে ৮১ মি.মি, রাজশাহীতে ১৮ মি.মি, পাবনার ঈশ্বরদীতে ৩৯ মি.মি, বগুড়ায় ১০ মি.মি, খুলনায় ৬ মি.মি, মংলায় ৪ মি.মি, যশোরে ১৪ মি.মি, বরিশালে ১৯ মি.মি, পটুয়াখালীতে ১২ মি.মি, খেপুপাড়ায় ৭৫ মি.মি, চুয়াডাঙ্গায় ৫ মি.মি, টঙ্গাইলে ৫ মি.মি, শ্রীমঙ্গলে ৭ মি.মি, কুতুবদিয়াতে ৫৫ মি.মি এবং ভোলায় ২৬ মি.মি. বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে।

আবহাওয়াবিদ মো. আবুল কালাম মোল্লা বাংলানিউজকে বলেন, দেশের আবহাওয়ায় মৌসুমী বায়ু সক্রিয় থাকায় এবং বঙ্গোপসাগর থেকে প্রচুর জলীয় বাষ্প চলে আসায় সারাদেশে প্রবল বৃষ্টিপাত হচ্ছে। কেবল বর্ষা মৌসুমের প্রথম সপ্তাহ পার হয়েছে, এখনও দেড় মাস স্বাভাবিক বৃষ্টিপাত হবে, তবে শনিবারের পরে মৌসুমী বায়ুর প্রভাবে সারাদেশে থেমে থেমে যে বৃষ্টিপাত হচ্ছে, তা কমে আসবে।

তিনি আরও বলেন, বৃষ্টিপাত হওয়ার কারণে রাতে সারাদেশের তাপমাত্রাও ১ থেকে দেড় ডিগ্রি সেলসিয়াস পর্যন্ত কমে আসবে।

এদিকে, উত্তর বঙ্গোপসাগর এলাকায় বায়ুচাপের তারতম্যের আধিক্য বিরাজ করছে। এর প্রভাবে উত্তর বঙ্গোপসাগর ও দেশের উপকূলীয় এলাকা এবং সমুদ্র বন্দরগুলোর উপর দিয়ে ঝড়ো হাওয়া বয়ে যেতে পারে।

এ কারণে শুক্রবারও চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, মংলা ও পায়রা সমুদ্র বন্দরে তিন নম্বর স্থানীয় সতর্কতা সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে। একইসঙ্গে উত্তর বঙ্গোপসাগরে অবস্থানরত মাছ ধরার নৌকা ও ট্রলারগুলোকে পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত উপকূলের কাছাকাছি থেকে সাবধানে চলাচলের জন্য বলা হয়েছে।

তবে আবহাওয়ার পূর্বাভাস বিষয়ক ওয়েবসাইট অ্যাকুওয়েদার বলছে, মৌসুমী বায়ুর প্রভাবে জুলাই মাস পুরোটা জুড়েই বৃষ্টিপাত হবে। প্রতিবেশী দেশ ভারতে বন্যা হওয়ায় জুলাই মাসজুড়ে এর প্রভাব থাকার সম্ভাবনা রয়েছে। জুলাইয়ের মাঝামাঝি সময়ে বৃষ্টিপাতের পরিমাণ কমে এলেও আকাশ মেঘাচ্ছন্ন হয়ে থাকবে।

২৪ জুন আবহাওয়া অধিদফতরের এক প্রজ্ঞাপণে উত্তর বঙ্গোপসাগর এলাকায় মৌসুমী বায়ুর কারণে পরবর্তী ২৪ ঘণ্টার মধ্যে  খুলনা, বরিশাল, রাজশাহী ও চট্টগ্রাম বিভাগের কোথাও কোথাও ভারি থেকে অতি ভারি বৃষ্টিপাতসহ চট্টগ্রাম বিভাগের পাহাড়ি এলাকার কোথাও কোথাও ভূমিধসের আশঙ্কার কথা জানানো হয়।

বাংলাদেশ সময়: ১৪৩৭ ঘণ্টা, জুন ২৬, ২০১৫
এটি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa