ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৯, ২৯ নভেম্বর ২০২২, ০৪ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

জলবায়ু ও পরিবেশ

দক্ষিণাঞ্চলের নদ-নদীর পানি দ্রুত বাড়ার আভাস

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০০৪২ ঘণ্টা, আগস্ট ১৮, ২০২০
দক্ষিণাঞ্চলের নদ-নদীর পানি দ্রুত বাড়ার আভাস ফাইল ফটো

ঢাকা: ভারী বর্ষণ হওয়ায় দেশের দক্ষিণাঞ্চলের নদ-নদীর পানি দ্রুত বাড়ার আভাস রয়েছে। বাড়ছে উত্তরাঞ্চলের নদ-নদীর পানিও।

গত সপ্তাহে বন্যা পরিস্থিতির উন্নতি হলেও দেশের প্রায় সব অঞ্চলের নদ-নদীর পানিই আবারো বাড়ছে। এমনকি বড় নদ-নদীর পানিও বিপৎসীমার অতিক্রম করা শুরু করেছে।

গতকাল রোববার (১৬ আগস্ট) পদ্মার পানি বিপৎসীমার উপরে দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। একদিনের ব্যবধানে সোমবার (১৭ আগস্ট) বিপৎসীমার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে যমুনার পানিও।

বাংলাদেশ ও ভারতের আবহাওয়া অফিসের বরাত দিয়ে পানি উন্নয়ন বোর্ডের (পাউবো) বন্যা পূর্বাভাস সতর্কীকরণ কেন্দ্র জানায়, ২০ আগস্টের দিকে তৃতীয়বারের মতো বন্যা পরিস্থিতি দেখা দিতে পারে।

বন্যা পূর্বাভাস ও সতর্কীকরণ কেন্দ্রের নির্বাহী প্রকৌশলী আরিফুজ্জামান ভূঁইয়া জানান, ব্রহ্মপুত্র-যমুনা নদ-নদীসমূহের পানি সমতল বৃদ্ধি পাচ্ছে। গঙ্গা-পদ্মা নদীসমূহের পানি সমতল স্থিতিশীল আছে।

এদিকে, উত্তর-পূর্বাঞ্চলের আপার মেঘনা অববাহিকার প্রধান নদীসমূহের পানি হ্রাস পাচ্ছে। তবে আগামী ৪৮ ঘণ্টায় দেশের দক্ষিণ-পূর্ব পার্বত্য অঞ্চল এবং দক্ষিণ-মধ্য অঞ্চলে মাঝারি থেকে ভারী বৃষ্টিপাতের পূর্বাভাস আছে। যার ফলে উক্ত অঞ্চলের নদীসমূহের পানি দ্রুত বৃদ্ধি পেতে পারে।

বর্তমানে পাঁচটি নদীর পানি বিপৎসীমার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। যমুনার পানি সারিয়াকান্দিতে, গুড় নদীর পানি সিংড়ায়, বাঘাবাড়িতে আত্রাইয়ের পানি, এলাসিনে ধলেশ্বরীর পানি এবং পদ্মার পানি গোয়ালন্দে বিপৎসীমার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।

দেশে এবার প্রথম বন্যা পরিস্থিতির সৃষ্টি হয় জুনের শেষে। স্বল্পমেয়াদে সে বন্যার উন্নতি হয় জুলাইয়ের শুরুতে। আর জুলাইয়ের মধ্যভাগে শুরু হয় মধ্যমেয়াদী বন্যা, যার প্রভাব এখনো ভুগতে হচ্ছে দেশবাশীকে।

বাংলাদেশ সময়: ০০৩৫ ঘণ্টা, নভেম্বর ১৮, ২০২০
ইইউডি/এনটি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa