ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ৩০ মে ২০২৪, ২১ জিলকদ ১৪৪৫

জলবায়ু ও পরিবেশ

কাজিপুরে যমুনার ভাঙন, হুমকিতে নাটুয়ারপাড়া বাঁধ

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৬৩৩ ঘণ্টা, মে ৬, ২০২২
কাজিপুরে যমুনার ভাঙন, হুমকিতে নাটুয়ারপাড়া বাঁধ

সিরাজগঞ্জ: যমুনার পানি বাড়া-কমার সঙ্গে তাল মিলিয়ে সিরাজগঞ্জের কাজিপুরে চলছে নদী ভাঙন। হুমকির মুখে পড়েছে উপজেলার নাটুয়ারপাড়া রক্ষা বাঁধ।

ফলে আতঙ্কে রয়েছে চরাঞ্চলের ছয়টি ইউনিয়নের মানুষ।  

স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও এলাকাবাসীর সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, এ বছর চৈত্র মাসের মাঝামাঝি থেকে যমুনার পানি বাড়তে শুরু করেছে। কখনো পানি বাড়ছে আবার কখনো কমছে। এ কারণে যমুনার পূর্বে চরাঞ্চলের ছয় ইউনিয়নের প্রবেশদ্বার নাটুয়ারপাড়ায় শুরু হয়েছে ভাঙন। হুমকির মুখে পড়েছে নাটুয়ারপাড়া রক্ষায় আট বছর আগে নির্মিত মাটির বাঁধটি। এতে স্থানীয়দের মধ্যে আতঙ্ক বিরাজ করছে।

যে কোনো মুহূর্তে নাটুয়ারপাড়া রক্ষা বাঁধ ভেঙে নাটুয়ারপাড়া হাট-বাজার, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, বিদ্যুৎ লাইন ও পাকা রাস্তা নদীগর্ভে বিলিন হওয়ার শঙ্কায় রয়েছে চরাঞ্চলবাসী। এছাড়াও ভাঙন আতঙ্কে দিন পার করছেন কাজিপুরের দুর্গম চরাঞ্চলের খাসরাজবাড়ী, তেকানী, নিশ্চিন্তপুর, চরগিরিশ ও মনসুর নগর ইউনিয়নের মানুষ।  

শামীম রেজা শান্ত নামে স্থানীয় এক ব্যক্তি জানান, যমুনায় পানি বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে নাটুয়ারপাড়া, চরগিরিশ, খাসরাজবাড়ী ও তেকানি ইউনিয়নের চরাঞ্চলে ভাঙন শুরু হয়েছে। এখানে রয়েছে একটি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়।  

উত্তর পানাগাড়ী গ্রামের মুদি দোকানি আব্দুল মতিন বলেন, এর আগেও আমার বাড়ি পাঁচবার ভেঙেছে। এবারও ভাঙনের হুমকিতে রয়েছি। এবার বাড়ি আর দোকান ভাঙলে কোথায় যাব ভাবতে পারছি না।  

নাটুয়ারপাড়া ইউনিয়নের ৬ নং ওয়ার্ডের সাবেক সদস্য মো. আব্দুর রাজ্জাক বলেন, নাটুয়ারপাড়া বাজারের পশ্চিমে মাটির বাঁধটি ভেঙে গেলে চরের ছয়টি ইউনিয়নের বাণিজ্যিক অঞ্চল নাটুয়ারপাড়া হাট-বাজারটি হুমকির মুখে পড়ে যাবে। এরই মধ্যে যমুনার ভাঙনে ধান ও ভুট্টাসহ বেশ কিছু ফসলি জমি নদীগর্ভে বিলিন হয়ে গেছে।  

নাটুয়ারপাড়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুর রহিম সরকার জানান, গত বছর যমুনার ভাঙনে নাটুয়ারপাড়া ইউনিয়নের অনেকগুলো বাড়ি ভেঙে গেছে। এ বছরও এলাকায় ভাঙন শুরু হয়েছে।  

নাটুয়ারপাড়া ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মো. আব্দুল মান্নান বলেন, নাটুয়ারপাড়ার পশ্চিমে নদী ভাঙন শুরু হয়েছে বেশ কিছুদিন ধরে। অনেক জমিজমা নদীগর্ভে বিলীন হয়ে গেছে।  

কাজিপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান খলিলুর রহমান সিরাজী বলেন, যমুনার ভাঙনের বিষয়টি পানি উন্নয়ন বোর্ড ও স্থানীয় সংসদ সদস্য তানভীর শাকিল জয়কে জানানো হয়েছে।  

সিরাজগঞ্জ পানি উন্নয়ন বোর্ডের উপ-বিভাগীয় প্রকৌশলী মো. নাসির উদ্দিন বলেন, মার্চ মাস থেকে দফায় দফায় পানি বাড়ছে আবার কমছে। এ কারণে চরাঞ্চলে কিছু ভাঙন দেখা দিয়েছে। এ অঞ্চলে স্থায়ী বাঁধ নির্মাণের কোনো প্রকল্প নেই। আমরা প্রতি বছরই ভাঙন রোধে সাময়িক ব্যবস্থা গ্রহণ করি।  

বাংলাদেশ সময়: ১৬২৫ ঘণ্টা মে ৬, ২০২২
এসআই
 

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।