ঢাকা, মঙ্গলবার, ৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ২১ মে ২০২৪, ১২ জিলকদ ১৪৪৫

কর্পোরেট কর্নার

আইডিপি এডুকেশনের সঙ্গে গ্রামীণফোনের চুক্তি

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০৫৫ ঘণ্টা, মার্চ ২৪, ২০২৪
আইডিপি এডুকেশনের সঙ্গে গ্রামীণফোনের চুক্তি

ঢাকা: বিশ্বের অন্যতম শীর্ষ আন্তর্জাতিক শিক্ষা বিষয়ক সেবা প্রদানকারী প্রতিষ্ঠান আইডিপি এডুকেশন বাংলাদেশের সঙ্গে সমঝোতা স্মারক (এমওইউ) স্বাক্ষর করেছে দেশের স্মার্ট কানেক্টিভিটি পার্টনার গ্রামীণফোন।  

চুক্তির আওতায়, জিপিস্টার গ্রাহকদের আইইএলটিএস রেজিস্ট্রেশনে বিশেষ সুবিধা দেওয়ার পাশাপাশি বিদেশে অধ্যয়নের বিষয়ে পরামর্শের জন্য অগ্রাধিকার ভিত্তিতে সেবা দেবে আইডিপি এডুকেশন বাংলাদেশ।

 

রাজধানীর জিপি হাউজে সম্প্রতি অনুষ্ঠিত চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে গ্রামীণফোনের হেড অব মার্কেটিং ফারহা নাজ জামান এবং আইডিপি এডুকেশন বাংলাদেশ প্রাইভেট লিমিটেডের কান্ট্রি ডিরেক্টর রাজিব মাহবুবুল নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানের পক্ষে চুক্তিতে স্বাক্ষর করেন।

আইইএলটিএসের সহ-অংশীদার আইডিপি আন্তর্জাতিক শিক্ষা সেবা দেওয়ার জন্য বিশ্বব্যাপী সুপরিচিত, যারা আটশ’র বেশি বিশ্ববিদ্যালয়ের সঙ্গে সহযোগিতার ভিত্তিতে কাজ করছে। এই চুক্তির ফলে জিপিস্টার গ্রাহকরা বিভিন্ন প্রচারণামূলক অফার, অগ্রাধিকার ভিত্তিক সেবা ও আইইএলটিএস রেজিস্ট্রেশনে বিশেষ সুবিধা পাবেন। এছাড়া বিদেশে অধ্যয়ন বিষয়ে পরামর্শ সেশনে অংশ নিতে পারবেন গ্রামীণফোনের স্টার গ্রাহকরা। সেবাগুলো উপভোগ করতে গ্রাহকদের আইইএলটিএসের জন্য 'IDPIELTS' এবং বিদেশে অধ্যয়নের জন্য 'IDPSTUDY' টাইপ করে ২৯০০০ নম্বরে পাঠাতে হবে।  

চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে শিক্ষার প্রতি কোম্পানির প্রতিশ্রুতি এবং এর পরিবর্তনের সক্ষমতার বিষয়টি তুলে ধরে গ্রামীণফোনের হেড অব মার্কেটিং ফারহা নাজ জামান বলেন, একটি গ্রাহককেন্দ্রিক প্রতিষ্ঠান হিসেবে আমাদের সব কার্যক্রমের মূলেই থাকে গ্রাহকদের ক্রমবর্ধমান চাহিদাগুলোকে অগ্রাধিকার দিয়ে তাদের ক্ষমতায়ন করা। আইডিপি এডুকেশন বাংলাদেশ এবং গ্রামীণফোনের মধ্যে এই অংশীদারিত্ব শিক্ষার প্রতি আমাদের যৌথ অঙ্গীকার এবং ইতিবাচকভাবে গ্রাহকদের জীবনকে প্রভাবিত করার প্রচেষ্টার প্রতিফলন। আমরা সম্ভাবনাময় আগামী দিনগুলো নিয়ে উচ্ছ্বসিত এবং শিক্ষার্থীদের তাদের পূর্ণ সক্ষমতাকে বৈশ্বিক মানদণ্ডে বিকশিত করার সুযোগ দিতে উন্মুখ।

আইডিপি এডুকেশন বাংলাদেশের কান্ট্রি ডিরেক্টর রাজিব মাহবুবুল বলেন, এই ক্রস-ইন্ডাস্ট্রি অংশীদারিত্বের মাধ্যমে একটি প্রতিশ্রুতিশীল যাত্রার সূচনা হল। ফলে শিক্ষার্থীরা বিশ্বের সেরা শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোয় অধ্যয়নের সুযোগ পাবে। এ চুক্তির মাধ্যমে তাদের উজ্জ্বল ভবিষ্যৎ গঠনে একসঙ্গে কাজ করার ক্ষেত্র তৈরি হলো।

বাংলাদেশ সময়: ২০৫৫ ঘণ্টা, মার্চ ২৪, ২০২৪
এমআইএইচ/এসআইএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।