ঢাকা, সোমবার, ২০ ফাল্গুন ১৪৩০, ০৪ মার্চ ২০২৪, ২২ শাবান ১৪৪৫

ক্রিকেট

বাংলাদেশি ক্রিকেটারদের ‘কমন সেন্স’ নিয়ে সন্দেহ সালাউদ্দিনের

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, স্পোর্টস | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৮৫৫ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ৪, ২০২৩
বাংলাদেশি ক্রিকেটারদের ‘কমন সেন্স’ নিয়ে সন্দেহ সালাউদ্দিনের

দেশের অন্যতম সফল কোচ মোহাম্মদ সালাউদ্দিন। একাধিকবার পেয়েছেন বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ (বিপিএল) জেতার স্বাদও।

এবারও কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের হেড কোচের দায়িত্বে আছেন তিনি। দলটির কোচ হিসেবে গত কয়েক বছর ধরেই থাকছেন তিনি, পাচ্ছেন সাফল্যের দেখা।

এবারের বিপিএলে শুরুটা ভালো হয়নি কুমিল্লার। প্রথম তিন ম্যাচে হেরে যায় তারা, কিন্তু এরপর জিতেছে টানা সাত ম্যাচ। শনিবার তাদের ৭ চার ও ২ ছক্কায় ৪৭ বলে ৬১ রানের ইনিংস খেলে চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্সের বিপক্ষে জয় এনে দিয়েছেন মোহাম্মদ রিজওয়ান। এরপর সালাউদ্দিনের কাছে জানতে চাওয়া হয়, দেশের ক্রিকেটারদের কাছে কি প্রত্যাশা থাকে?

জবাবে কুমিল্লার কোচ বলছিলেন, ‘স্থানীয় খেলোয়াড়দের কাছে আমি একটা সামান্য কমন সেন্স (সাধারণ জ্ঞান) চাই, যে একটা কমন সেন্স থাকে। তাদের আসলে কমন সেন্স আছে কি না, এটা নিয়ে আমার সন্দেহ। আপনি যদি ১৫ বছর ধরে ঘরোয়া ক্রিকেট মিরপুরে খেলেন, আপনি জানেন যে আপনার আসলে কী করতে হবে। সে কমন সেন্স যদি আপনার না থাকে, তাহলে আসলে আমি হতাশ। বিশেষ করে আমাদের ছেলেরা ক্রিকেট নিয়ে চিন্তা করে কি না সেটা নিয়ে আমার সন্দেহ। ’

‘রিজওয়ানের সঙ্গে আমাদের দেশের অনেক ওপেনার ধরেন বা অলরাউন্ডার ধরেন, তাদের শটসের সীমাবদ্ধতা অনেক বেশি বা তারা হয়তো আরো জোরেও মারতে পারে। সব দিকে মারতে পারে, কিন্তু খেলতে গেলে দেখা যায় যে মনে হয় যে উল্টো হচ্ছে। আমি আরেকটা সংবাদ সম্মেলনে বলেছিলাম, আমাদের দেশে অনেকে হয়তো মাথা দিয়ে খেলে, অনেকে খেলে না। বেশিরভাগই মাথা ছাড়া খেলে। যেদিন প্রশ্ন কমন পড়ে যায়, সেদিন ভালো খেলে, যেদিন পড়ে না সেদিন ভালো খেলে না। খুবই হতাশাজনক। আপনি যখন ১০/১২ বছর ক্রিকেট খেলছেন তখন সামান্য কমন সেন্স থাকা উচিত কখন কি করতে হবে। ’

বাংলাদেশের ক্রিকেটারদের শেখার ব্যাপার নিয়েও প্রশ্ন তুলেছেন সালাউদ্দিন। বলেছেন, ‘আমার মনে হয় তাদের ক্রিকেট জ্ঞান অনেক কম। সামান্য জিনিস এই উইকেটে আমার কী করতে হবে বা কোন বোলারকে আমি কখন চার্জ করব। যখন সব কিছু আমার নিয়ন্ত্রণে আছে তখন নিয়ন্ত্রণ ছাড়া কেন! তো এ বুদ্ধি যদি কারো না হয় তাহলে তারা ক্রিকেট কবে শিখবে উপরওয়ালা জানে। ’

‘আপনার যদি গ্রামার ছোটবেলা থেকে খারাপ থাকে তাহলে তো আপনি ইংলিশ রচনা পড়তে পারবেন না। আমরা আসলে ছোটবেলা থেকে তাদের ওভাবে গড়ে তুলছি। আমরা নিজেরাই সব সময় বেশিরভাগই কোচ নির্ভর খেলোয়াড়, কোচ যেটা বলবে। প্রকৃতপক্ষে ভেতরে গিয়ে তো কোচ খেলবে না, তখনই মাথাটা কাজ করা বন্ধ করে দেয়। সিস্টেমেই গলদ। কম্পিউটারে আসলে সেটআপটা ঠিক মতো হয়নি। ’

সালাউদ্দিন সমস্যা দেখছেন গোড়াতেও, ‘প্রকৃতপক্ষে তাদের যদি আমরা স্বাধীনভাবে গড়ে তুলতে পারতাম, তাহলে এই সমস্যাটা হতো না। আমরা যারা কোচিং করাই তাদেরই সমস্যাটা বেশি, ছেলেদের দোষ দিই লাভ নাই। একটা পর্যায়ে এসে মাথাটা কাজও করে না। ছোটবেলা থেকে যদি আমাদের কোচিং মেথড পরিবর্তন করি তাহলে হয়তো কাজে আসবে। ’

বাংলাদেশ সময় : ১৮৫৫ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ০৪, ২০২৩
এমএইচবি/এএইচএস

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।