ঢাকা, শনিবার, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ০৪ ডিসেম্বর ২০২১, ২৮ রবিউস সানি ১৪৪৩

ক্রিকেট

ডাচ দহনে দগ্ধ ইংলিশ!

আবদুল্লাহ আল মামুন, স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২২৩৯ ঘণ্টা, মার্চ ৩১, ২০১৪
ডাচ দহনে দগ্ধ ইংলিশ!

চট্টগ্রাম: প্রস্তুতি ম্যাচে হার। প্রথম পর্বে চমক।

এরপর লজ্জাজনক হার। জয় ছুঁই ছুঁই করেও ছুঁতে না পারার যন্ত্রণা। এর সবই এবারের টোয়েন্টি-২০ বিশ্বকাপে পিছু নিয়েছিল ডাচদের। অবশেষে বিদায় বেলায় ক্রিকেট জনকদের উড়িয়ে দিয়ে বোরেন বাহিনী আবারো প্রমাণ করলো বিশ্ব আসরে শুধু অংশ নিতে নয় লড়াই করতেই এসেছে তারা।

ম্যাচ শেষে ডাচ অধিনায়ক পিটার বোরেন বলেন,‘ক্রিকেট বিশ্বকে আমরা দেখিয়ে দিয়েছি, আমরাও পারি। ’

১২ মার্চ প্রথম প্রস্তুতি ম্যাচে জহুর আহমদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে ডিএল পদ্ধতির গ্যাঁড়াকলে পড়ে আফগানিস্তানের কাছে ৩৫ রানে হারে ডাচরা। ১৪ মার্চ এম এ আজিজ স্টেডিয়ামে হংকংয়ের ‍কাছে হারে ২৬ রানে।

এরপর বিশ্বকাপের প্রথম পর্বে ক্রিকেট মোড়লদের চমকে দিল ডাচ বাহিনী। সিলেটে আরব আমিরাত ও আয়ারল্যান্ডকে বিশাল ব্যবধানে হারিয়ে ঢুকে পড়ে কুলীনদের সুপার টেনে।

এরপর আবারও চট্টগ্রামে শুরু হয় ডাচদের দুঃস্বপ্নের যাত্রা। মূলপর্বের তিনটি ম্যাচই হেরেছে তারা। ২৪ মার্চ শ্রীলংকার বিপক্ষে লজ্জাজনক হার। এরপর টেস্টের শীর্ষ দল দক্ষিণ আফ্রিকাসহ নিউজিল্যান্ডের কাছে লড়াই করেও জিততে পারেনি ডাচরা। আফ্রিকার সঙ্গে জিততে জিততেই হেরে যায়। এরপর পিটার বোরেন বলেন, ‘আমরা এই টুর্নামেন্টে একটি-দুটি জয় অথবা অঘটন ঘটাতে এসেছি। দক্ষিণ আফ্রিকার সঙ্গে সুযোগ পেয়েও পারিনি। আরও দুটি ম্যাচ বাকি আছে, আশা করছি সেটা করতে পারব। ’  আর সোমবার ক্রিকেট জনককে হারিয়ে সেই অঘটনই ঘটালেন ডাচরা।

২০০৯ সালের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে ইংলিশদের ৪ উইকেটে হারিয়ে ক্রিকেট বিশ্বকে অবাক করে দিয়েছিল ডাচরা। চট্টগ্রামে ইংলিশদের পুনরায় হারিয়ে ক্রিকেট বিশ্বে নবীনদের শক্তিশালী আগমন বার্তারই যেন ঘোষণা করলো তারা।

পিটার বোরেন বলেন,‘‌এ টুর্নামেন্টে আমরা সহযোগী সদস্যদের প্রতিনিধিত্ব করছি। আমরা তিনবার দেখিয়ে দিয়েছি সহযোগী সদস্যদের ক্রিকেটের শক্তি। ’

ডাচ অধিনায়ক বলেন,‘ব্যাটিং শেষে মনে হয়েছে আমরা যথেষ্ট রান করিনি। সবাইকে বলেছি শেষ বারের মতো উজাড় করে দিয়ে খেলতে। সত্যি আমি বোলারদের নিয়ে গর্বিত। তারা খুবই ভালো করেছে। এর আগে ইংলিশদের বিপক্ষে জয় এ ম্যাচে আত্মবিশ্বাস জুগিয়েছে। ’

আইসিসি’র সহযোগী সদস্য নেদারল্যান্ডসের কাছে হেরে খুবই হতাশ ইংলিশ অধিনায়ক স্টুয়ার্ট ব্রড। ম্যাচ শেষে বলেন,‘এত কম রান খুব সহজে তাড়া করে জেতা উচিত ছিল। কিন্তু আমরা পারিনি। আমাদের বোলিং ও ফিল্ডিং ভালো ছিল। কিন্তু ব্যাটিং হতাশ করেছে। ব্যাটিং নিয়ে আমাদের আত্মতুষ্টিই আমাদের হারিয়েছে। ’

ডাচ অধিনায়ক বোরেন বলেন,‘শ্রীলংকার সঙ্গে হারের পর দক্ষিণ আফ্রিকা ম্যাচে ফিরেই জয় আমাদের নাড়া দিয়েছিলো এবং সত্যিকারের জয় আমরা অর্জন করেছি। এ জয়ে খুব বেশি উচ্ছ্বসিত না হলেও আমরা সন্তুষ্ট। ’

ডাচ অধিনায়ক মুখে যতই বলুক এ জয়ে তারা উচ্ছ্বসিত নয়। কিন্তু পিটার বোরেনের চকচক চেহারা বলে দিচ্ছিল কতটা উচ্ছ্বসিত তারা। কারণ এতদিন মাথাটা হেট করে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হতে হতে লজ্জায় মাথাটাই যে ঝুলে পড়ছিল ডাচ অধিনায়কের! সোমবার জহুর আহমদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে ইংলিশদের ৪৫ রানের ব্যবধানে উড়িয়ে দিয়ে চট্টগ্রামে এই প্রথম মাথা উচু করে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হন ডাচ অধিনায়ক পিটার বোরেন।

বাংলাদেশ সময়: ২২২৮ঘণ্টা, মার্চ ৩১, ২০১৪

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa