ঢাকা, শনিবার, ৩০ চৈত্র ১৪৩০, ১৩ এপ্রিল ২০২৪, ০৩ শাওয়াল ১৪৪৫

চট্টগ্রাম প্রতিদিন

পসকো-পিএইচপির স্বপ্নের বাড়ি পেলেন সুবর্ণচরের পাঁচ পরিবার

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট  | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৫০৯ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ১১, ২০২২
পসকো-পিএইচপির স্বপ্নের বাড়ি পেলেন সুবর্ণচরের পাঁচ পরিবার ...

চট্টগ্রাম: স্বপ্নের বাড়ি পেলেন নোয়াখালীর সুবর্ণচর থানার হাটের পাঁচ পরিবার। নতুন বাড়ি পেয়ে খুশি তারা।

খুশি পুরো গ্রামবাসী।

রোববার (১১ ডিসেম্বর) দুপুরে দক্ষিণ কোরিয়ার বিখ্যাত স্টিল নির্মাতা পসকো ইন্টারন্যাশনাল ও শিল্পগ্রুপ পিএইচপি ফ্যামিলি এসব বাড়ি হস্তান্তর করেছে।

 

সরেজমিন দেখা গেছে, নির্মল সবুজের মাঝে টিনের বেড়া ও রঙিন ঢেউটিনের ছাউনির দুই কক্ষের ৬০০ বর্গফুটের প্রতিটি বাড়ি। রয়েছে সুপরিসর এটাচ বাথরুম, বারান্দা। প্রতিটি বাড়ি তৈরিতে খরচ হয়েছে চার লাখ ৭০ হাজার টাকা। পর্যায়ক্রমে আরও ১১টি বাড়ি হস্তান্তর করা হবে।

বাড়ি হস্তান্তর করেন পসকো ইন্টারন্যাশনালের সিনিয়র এক্সিকিউটিভ ভাইস প্রেসিডেন্ট কি আইন লী এবং পিএইচপি ফ্যামিলির ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোহাম্মদ ইকবাল হোসেন।

পসকো ইন্টারন্যাশনালের সিনিয়র ম্যানেজার মি. ড্যানিয়েল বলেন, বাংলাদেশের কিছু পরিবারকে সহযোগিতা করছি আমরা। শুধু আবাসন নয় জীবনমান উন্নয়ন করতে চাই আমরা। ২৩ বছর ধরে ব্যবসায়িক সম্পর্ক পিএইচপির সঙ্গে। পিএইচপির ইকবাল হোসেনের প্রতি আমাদের আস্থা রয়েছে। আগামীতেও এ ধারা অব্যাহত থাকবে।

উপস্থিত ছিলেন পসকো ইন্টারন্যাশনালের বাংলাদেশ প্রধান আহসানুল আলম। পিএইচপি ফ্যামিলির চেয়ারম্যান সুফি মোহাম্মদ মিজানুর রহমানের লিখিত বক্তব্য পড়ে শোনান পিএইচপি ফ্যামিলির ম্যানেজার (মার্কেটিং) সাইফুল আলম।

উন্নয়ন সংস্থার এনআরডিএসের নির্বাহী পরিচালক আবদুল আউয়াল বলেন, অনেক কষ্ট করে কোরিয়ান অতিথিরা এখানে এসেছেন। সেজন্য আন্তরিক কৃতজ্ঞতা জানাই। এ ছোট্ট গ্রামে দুইজন ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এসেছেন, তাদের স্বাগত জানাই। আমরা একটি মহৎ কাজে শামিল হতে পেরেছি। পিএইচপি ফ্যামিলি ও পসকো সামাজিক দায়বদ্ধতা থেকে মানবতার এ কাজে এগিয়েছেন। এটি বন্ধুত্বপূর্ণ উদ্যোগ। পাঁচটি ঘরের এটা পাইলট প্রকল্প। যদি তাদের ভাগ্য পরিবর্তন হয়, সুদূরপ্রসারী পরিবর্তন এলে এর আওতা বাড়ানো হবে। এ কাজটা সমাজে ইতিবাচক প্রভাব ফেলবে বলে আশা করি।

বক্তব্য দেন ইউপি চেয়ারম্যান আবদুল মান্নান ভূঁইয়া। তিনি বলেন, মানুষ মানুষের জন্য। আমরা যেন অর্থায়নকারী প্রতিষ্ঠান, উপকারকারীদের জন্য দোয়া করি। যাদের মাথা গোঁজার ঠাঁই নেই তাদের যেন বাড়ি হয় সেই প্রচেষ্টা অব্যাহত থাকবে।

ইউপি চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট আবুল বাশার বলেন, দরিদ্র জনগোষ্ঠী উপকৃত হয়েছে নতুন ঘর পেয়ে। সাগর উপকূলে আমাদের বাস। বৈশ্বিক পরিবর্তনের কারণে ঝড় জলোচ্ছ্বাস ঘূর্ণিঝড়ে আতঙ্কিত থাকি। মৃত্যুর মুখোমুখি হতে হয়। ঘরবাড়ি বিনষ্ট হয়। ব্যবসার সঙ্গে সঙ্গে মানবতার পক্ষে কাজ করছে পিএইচপি ও পসকো। সারাজীবন আপনাদের স্মরণ করবো। এখনো অনেকে বাসস্থান বঞ্চিত। তাদের পাশেও দাঁড়াবেন আশা করি।

কোরআন তেলাওয়াত করেন মাওলানা মফিজ উল্লাহ। সঞ্চালনা করেন পিইচপির নাজমুল হাসান।

বাংলাদেশ সময়: ১৫০০ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ১১, ২০২২
এআর/টিসি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।