ঢাকা, সোমবার, ৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ২০ মে ২০২৪, ১১ জিলকদ ১৪৪৫

চট্টগ্রাম প্রতিদিন

প্রতিনিধি নাট্য সম্প্রদায়ের উৎসব শুরু

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট  | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১২ ঘণ্টা, জানুয়ারি ২৭, ২০২৩
প্রতিনিধি নাট্য সম্প্রদায়ের উৎসব শুরু ...

চট্টগ্রাম: ‘দ্রোহে প্রেমে সংগ্রামে, এসো নাটকের প্রাঙ্গণে’স্লোগানে বর্ণাঢ্য র‍্যালির মধ্য দিয়ে শুরু হয়েছে প্রতিনিধি নাট্য সম্প্রদায়ের উৎসব।  

শুক্রবার (২৭ জানুয়ারি) প্রতিনিধি প্রতিষ্ঠার ৪৩ বছরের এ উৎসবের উদ্বোধন করেন দৈনিক আজাদী সম্পাদক এমএ মালেক।

প্রধান অতিথি ছিলেন বরেণ্য নাট্যব্যক্তিত্ব ম হামিদ। বিশেষ অতিথি ছিলেন নাট্যজন আকতারুজ্জামান, খালেদ হেলাল, মোসলেম উদ্দিন শিকদার, সাইফুল আলম বাবু ও খোরশেদুল আলম।
সভাপতিত্ব করেন হাসান জাহাঙ্গীর।  

আজাদী  সম্পাদক বলেন, নাটক আমাদের জীবনকে প্রতিফলিত করে। অভিনয় ও রূপকের মধ্য দিয়ে জীবনের বার্তা দর্শকের কাছে পৌঁছে দেওয়াই নাটকের সার্থকতা।

ম হামিদ বলেন, প্রতিনিধি নাট্যসম্প্রদায় দীর্ঘ ৪৩ বছর পার করেছে, প্রতিনিধির নাট্যকর্মীরা দীর্ঘপথ অতিক্রম করে প্রতিনিধিকে এ পর্যায়ে নিয়ে এসেছেন। চট্টগ্রাম তথা বাংলাদেশের নাটক এভাবেই বহুদূর এগিয়ে যাবে।

নাট্যজন আকতারুজ্জামান বলেন, প্রতিনিধি নাট্য সম্প্রদায়কে সাধুবাদ জানাই এমন উৎসবের মধ্য দিয়ে মঞ্চ ও সাধারণ মানুষের মধ্যে সেতুবন্ধন গড়ার জন্য।  

নাট্য উৎসব উদযাপন পর্ষদের আহ্বায়ক হাসান জাহাঙ্গীর বলেন, মুক্তিযুদ্ধের ফসল আমাদের গ্রুপ থিয়েটার। থিয়েটার চর্চার মাধ্যমে তরুণ প্রজন্ম দেশপ্রেম ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় উজ্জীবিত হয়। ১৯৮০ সালে যাত্রা শুরু করে, অগণিত ভালো নাটক প্রযোজনার মাধ্যমে প্রতিনিধি নাট্য সম্প্রদায় গ্রুপ থিয়েটার আন্দোলনকে বেগবান করেছে। অনুষ্ঠানে নৃত্য পরিবেশন করে চারুতা নৃত্যকলা একাডেমি এবং সঙ্গীত পরিবেশন করেন আবদুর রহিম ও মধুলিকা মণ্ডল। সঞ্চালনায় ছিলেন দিলরুবা খানম।

চট্টগ্রাম জেলা শিল্পকলা একাডেমিতে উদ্বোধনী সন্ধ্যায় মঞ্চস্থ হয় এপার ওপার বাংলায় বহুল প্রশংসিত নাটক ‘ভাগের মানুষ’। সা’দত হাসান মান্টোর ছোটগল্প ‘টোবাটেক সিং’ অবলম্বনে ‘ভাগের মানুষ’নাটকটির নাট্যরূপ দিয়েছেন মান্নান হীরা এবং নির্দেশনা দিয়েছেন নাট্যজন আলী যাকের।

১৯৪৭ সালের দেশ বিভাগের কয়েক বছর পরের ঘটনা। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের উত্তেজনা তখনো কমেনি। কমেনি সাম্প্রদায়িক বিষবাষ্পের তেজ। কিন্তু ভৌগোলিক সীমাবদ্ধতায় মানুষকে বেঁধে ফেলে একধরনের নাগরিক স্বস্তি দেওয়ার প্রয়াস শুরু হয়েছে মাত্র। অথচ হতাশা, ক্ষোভ, যন্ত্রণা, প্রিয়জন হারানোর বেদনা তখনও জ্বলজ্বল করছে মানুষের বুকে। মানুষের ভালোবাসা, বন্ধুত্ব, প্রেমকে দ্বিখণ্ডিত করে উপমহাদেশের এই মাটিতে রচিত হয় পাকিস্তান ও ভারত নামের দুটি রাষ্ট্র। অথচ দেশভাগ মানেই তো মানচিত্রের ভাগ, ভূগোলের ভাগ, মানুষের ভাগ এমনকি পাগলেরও ভাগ। শুরু হয় দু-দেশের মধ্যে বিনিময় বিনিময় খেলা। এমন গল্প নিয়েই ভাগের মানুষ নাটক।

নাটকটি ‘সময়’নাট্যদলের ২৬তম প্রযোজনা। ১৯৯৭ সাল থেকে ‘সময়’ দেশে ও বিদেশে নাটকটির প্রদর্শনী করে আসছে। নাটকটির বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করছেন আকতারুজ্জামান, রেজাউর রহমান, ফখরুল ইসলাম, তোফায়েল সরকার, মানসুরা লাভলী, পাভেল ইসলাম, সুনিতা বড়ুয়া, আলমগীর হোসেন, মাহমুদুল আলম, সাইফুল বাবু, মৌসুমী আক্তার, আনোয়ার হোসেন, ইয়ামিন জুয়েল, আব্দুল মোতালেব সম্রাট, চন্দন বোস ও রাকিবুল হাসান প্রমুখ।

আগামী ২ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত উৎসবে প্রতিদিন বিকেল ৫টা থেকে মুক্তমঞ্চে থাকবে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। মিলনায়তনে নাটক মঞ্চস্থ হবে সন্ধ্যা ৭টায়। সপ্তাহব্যাপী এ নাট্যোৎসবে মঞ্চস্থ হবে ঢাকা ও চট্টগ্রামের আমন্ত্রিত দলের নাটক। নাটকগুলো হচ্ছে– ২৮ জানুয়ারি পারাপার (দেশ নাটক ঢাকা), ২৯ জানুয়ারি অপেক্ষা (প্রতিনিধি নাট্য সম্প্রদায়), ৩০ জানুয়ারি উজানে মৃত্যু (পালাকার ঢাকা), ৩১ জানুয়ারি আরশোলা, নানা রঙের দিন ও শরতের মেঘ (চারুনীড়ম থিয়েটার ঢাকা), ১ ফেব্রুয়ারি বীরাঙ্গনার বয়ান (শব্দ নাট্যচর্চা কেন্দ্র) ও সীতার অগ্নিপরীক্ষা (সাধনা ঢাকা) এবং ২ ফেব্রুয়ারি পুণ্যাহ (নাট্যকেন্দ্র ঢাকা)।

বাংলাদেশ সময়: ২০০৫ ঘণ্টা, জানুয়ারি ২৭, ২০২৩ 
এআর/পিডি/টিসি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।