ঢাকা, সোমবার, ৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ২০ মে ২০২৪, ১১ জিলকদ ১৪৪৫

চট্টগ্রাম প্রতিদিন

রাতের আঁধারে মাটি কাটার মহোৎসব, প্রশাসনের টানা অভিযান

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২১১৩ ঘণ্টা, জানুয়ারি ২৯, ২০২৩
রাতের আঁধারে মাটি কাটার মহোৎসব, প্রশাসনের টানা অভিযান

চট্টগ্রাম: রাতের আঁধারে মাটি কাটা, রাস্তার উপর নির্মাণ সামগ্রী রাখা ও রেজিস্ট্রেশন বিহীন গাড়ি চালানোর দায়ে লোহাগাড়া উপজেলার বিভিন্ন স্থানে তিন দিন টানা অভিযান পরিচালনা করেছে উপজেলা প্রশাসন।  

অভিযানে ৯ জনকে ২ লাখ ৯০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

গত ২৭ জানুয়ারি থেকে ২৯ জানুয়ারি পর্যন্ত এ অভিযান পরিচালনা করে এসব জরিমানা করা হয়।

এর মধ্যে বালুমহাল ও মাটি ব্যবস্থাপনা আইনে ৩টি মামলায় ১ লাখ ৭০ হাজার, সড়ক পরিবহন আইনে ৫টি মামলায় ১ লাখ ১০ হাজার ও রাস্তায় নির্মাণ সামগ্রী রাখায় একজনকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

 

উপজেলা প্রশাসন সূত্র জানায়, গত শুক্রবার (২৭ জানুয়ারি) রাত সাড়ে ১২টায় বড়হাতিয়া ইউনিয়নের  চান্দির পাড়া এলাকায় রাতের আধারে ফসলি  জমির মাটি কাটায় মোস্তাক আহমদকে (৫৭) ৭০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। একইদিন ইউনিয়নের হিন্দু পাড়ায় অবৈধভাবে ফসলি জমির টপ সয়েল কাটায় ব্যবহৃত ৩টি ডাম্পার  জব্দ করা হয়। কৃষি জমির টপ সয়েল কাটার অপরাধে পশ্চিম কলাউজান জমিদার পাড়ার মো. বেলাল উদ্দীনকে (৩৫) ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

শনিবার (২৮ জানুয়ারি) রাতে কলাউজান ইউনিয়নের মালি পাড়ায় পিএসবি ব্রিক ফিল্ডের পাশে টিলা ও কৃষি জমি হতে মাটি কাটার অপরাধে লোহাগাড়া সদর ইউনিয়নের আইয়ুব আলীকে (৫৫) ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।  

একইদিন রেজিষ্ট্রেশনবিহীন গাড়ি চালানোর দায়ে সড়ক ক্ষতিগ্রস্ত করে পুটিবিলা ও কলাউজান ইউনিয়নের  সড়কে জনদুর্ভোগ সৃষ্টি করায় উত্তর আমিরাবাদের রায়হানকে (২৪)  আমিরাবাদ ১০ হাজার, নোয়ারবিলার জাহেদুলকে (৩৫) ২০ হাজার,

পুটিবিলা সড়াইয়ার বজলুর  রহমানকে (৬০) ২০ হাজার, জমিদার পাড়ার রেজাউল আনোয়ারকে (৫২) ৪০ হাজার ও চুনতির মনছুর আলমকে (২১) ২০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

রোববার (২৯ জানুয়ারি) সকাল সাড়ে ১১টায় লোহাগাড়া সদর ইউনিয়নের জোনাবীর পাড়া কাজীর পুকুর পাড়ের পূর্ব রাস্তার উপর নির্মাণ সামগ্রী রেখে জনচলাচলে বিঘ্ন করার অপরাধে একই এলাকার মো. শাহাবুদ্দিনকে (৩৫) ১০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

উপজেলা প্রশাসন জানায়, দিনের মধ্যেই নির্মাণ সামগ্রী সরিয়ে ফেলার জন্য মালিকদের নির্দেশ প্রদান করা হয়েছে। স্থানীয় ইউপি সদস্যসহ পুলিশ বাহিনীর সদস্যরা সার্বিক সহযোগিতা করেন।

লোহাগাড়া উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভুমি) মোহাম্মদ শাহজাহান বাংলানিউজকে বলেন, জনকল্যাণে ও জনসচেতনতায়  আমাদের এ অভিযান অব্যাহত থাকবে।

বাংলাদেশ সময়: ২১০০ ঘণ্টা, জানুয়ারি ২৯, ২০২৩ 
বিই/পিডি/টিসি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।