ঢাকা, রবিবার, ৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ১৯ মে ২০২৪, ১০ জিলকদ ১৪৪৫

চট্টগ্রাম প্রতিদিন

জমিয়তুল ফালাহ মাঠে ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট  | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০৮১৫ ঘণ্টা, এপ্রিল ১১, ২০২৪
জমিয়তুল ফালাহ মাঠে ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত ছবি: বাংলানিউজ

চট্টগ্রাম: নগরের দামপাড়া জমিয়তুল ফালাহ মসজিদ মাঠে পবিত্র ঈদুল ফিতরের প্রথম জামাত অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (১১ এপ্রিল) সকাল ৮টায় এ জামাত অনুষ্ঠিত হয়।

ইমামতি করেন জমিয়তুল ফালাহ্ মসজিদের খতিব হজরতুল আল্লামা সৈয়দ আবু তালেব মোহাম্মদ আলাউদ্দীন আল কাদেরী।

ঈদের জামাত শেষে খুতবা পাঠ করা হয়।

এরপর অনুষ্ঠিত হয় দোয়া ও মোনাজাত। বিশ্বের মুসলিম উম্মাহর শান্তি কামনার পাশাপাশি ফিলিস্তিন সহ নিপীড়িত-নির্যাতিত মুসলমানদের জন্য আল্লাহর দরবারে বিশেষ মোনাজাত করেন মুসল্লিরা।

সাধারণ মুসল্লিদের পাশাপাশি শিক্ষামন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল, সাবেক মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন, বিএনপি নেতা মীর মোহাম্মদ নাছির উদ্দিন, আবু সুফিয়ান, জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য মাহমুদুল ইসলাম চৌধুরী ও সোলায়মান আলম শেঠ সহ রাজনৈতিক ও ব্যবসায়ী নেতারা নামাজ আদায় করেন।  ফজরের নামাজের পর থেকে বিভিন্ন এলাকা থেকে জায়নামাজ হাতে মসজিদে আসতে শুরু করেন মুসল্লিরা। নামাজ শেষে কোলাকুলি ও ঈদের শুভেচ্ছা বিনিময় করেন তারা।

সবার সাথে শুভেচ্ছা বিনিময়ের পর শিক্ষামন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল সাংবাদিকদের বলেন, দেশবাসীকে পবিত্র ঈদুল ফিতরের শুভেচ্ছা জানাচ্ছি। বঙ্গবন্ধুর কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে এই  সরকার যুব সমাজের সুশিক্ষা, দক্ষতা ও কর্মসংস্থান নিশ্চিত করবে।  এই লক্ষ্যে যাতে আমরা পৌঁছাতে পারি সেজন্য মহান আল্লাহর কাছে প্রার্থনা করেছি। বাংলাদেশ ভবিষ্যতে একটি সমৃদ্ধ স্মার্ট বাংলাদেশে রূপান্তরিত হবে বঙ্গবন্ধু কন্যার হাত ধরে।

দ্বিতীয় জামাত সাড়ে আটটায় অনুষ্ঠিত হয়। ইমামতি করেন জমিয়তুল ফালাহ মসজিদের পেশ ইমাম।

বহদ্দারহাট শাহী জামে মসজিদে সকাল ৮টায় ঈদুল ফিতরের নামাজ আদায় করেন মেয়র রেজাউল করিম চৌধুরী। নামাজ আদায়ের পর মেয়র বলেন, ভেদাভেদহীন সমাজ গড়ার যে শিক্ষা ঈদ আমাদের দেয়, তা সমাজে বাস্তবায়ন করতে হবে৷ সিয়াম সাধনার মাধ্যমে দরিদ্র শ্রেণির কষ্ট উপলব্ধির যে সুযোগ আমরা পেয়েছি সে শিক্ষা ধারণ করে বৈষম্যমুক্ত সমাজ গড়তে লড়তে হবে ঐক্যবদ্ধভাবে৷  আমাদের সকলের উচিত- ঈদের এই পবিত্র উৎসবে সকলের প্রতি সহানুভূতি ও শ্রদ্ধাশীল আচরণ প্রদর্শন করা। সাম্প্রদায়িক শক্তিকে নির্মূল করে আগামীর বাংলাদেশ হবে অসাম্প্রদায়িক।

এছাড়া লালদীঘি চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন শাহি জামে মসজিদে ঈদ জামাত অনুষ্ঠিত হয় সকাল ৮টায়। সিটি করপোরেশনের তত্ত্বাবধানে হজরত শেখ ফরিদ (র.) চশমা ঈদগাহ মসজিদ, সুগন্ধা আবাসিক এলাকা জামে মসজিদ, চকবাজার সিটি করপোরেশন জামে মসজিদ, জহুর হকার্স মার্কেট জামে মসজিদ, দক্ষিণ খুলশী (ভিআইপি) আবাসিক এলাকা জামে মসজিদ, আরেফিন নগর কেন্দ্রীয় কবরস্থান জামে মসজিদ, সাগরিকা গরু বাজার জামে মসজিদ ও মা আয়েশা সিদ্দিকী চসিক জামে মসজিদে ঈদ জামাত অনুষ্ঠিত হয়েছে।

নগরের ৪১টি ওয়ার্ডে কাউন্সিলরদের তত্ত্বাবধানে ১টি করে প্রধান ঈদ জামাত মসজিদ ও ঈদগাহে অনুষ্ঠিত হয়।

ঈদ জামাতে মুসল্লিদের নিরাপত্তার জন্য সিসিটিভি মনিটরিংসহ পর্যাপ্ত আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য মোতায়েন করা হয়।  

চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসনের ব্যবস্থাপনায় কেন্দ্রীয় ঈদ জামাত কমিটির আয়োজনে সকাল ৯টায় ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হয় এম এ আজিজ স্টেডিয়ামের জিমনেসিয়ামে।

বাংলাদেশ সময়: ০৮১৫ ঘণ্টা, এপ্রিল ১১, ২০২৪
এসি/টিসি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।