ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৯ আশ্বিন ১৪২৯, ০৪ অক্টোবর ২০২২, ০৭ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪

চট্টগ্রাম প্রতিদিন

সাতকানিয়া-লোহাগাড়াকে আধুনিক উপজেলায় পরিণত করতে চাই: নদভী

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২২৪০ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ২০, ২০১৩
সাতকানিয়া-লোহাগাড়াকে আধুনিক উপজেলায় পরিণত করতে চাই: নদভী ছবি: বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

চট্টগ্রাম: ধর্ম নিয়ে বিভ্রান্তি দূর করে ও ইসলামের সঠিক বার্তা তুলে ধরে ‘জামায়াতের ঘাঁটি’ হিসেবে পরিচিত চট্টগ্রাম-১৫ আসনটি (সাতকানিয়া ও লোহাগাড়া) প্রধানমন্ত্রীকে উপহার দেয়ার প্রত্যয় ব্যক্ত করেছেন দলীয় প্রার্থী অধ্যাপক ড. আবু রেজা মুহাম্মদ নেজামুদ্দিন নদভী।

শুক্রবার নগরীর মুসলিম ইনস্টিটিউট মিলনায়তনে এক সুধী সমাবেশে এ কথা বলেন তিনি।

ইসলামীয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যক্ষ রেজাউল কবিরের সভাপতিত্বে সমাবেশে প্রধান অতিথি ছিলেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের  উপাচার্য অধ্যাপক আনোয়ারুল আজিম আরিফ।

সমাবেশে বক্তব্য রাখেন- দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি মোসলেম উদ্দিন আহমেদ, সহ-সভাপতি এ কে এম সিরাজুল ইসলাম, বেগম হাসিনা মান্নান এমপি, সাধারণ সম্পাদক মফিজুর রহমান, আল্লামা ফজলুল্লাহ ফাউন্ডেশনের সমাজ কল্যাণ বিষয়ক সম্পাদিকা রিজিয়া রেজা নদভী।  

সমাবেশে দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সাতকানিয়া-লোহাগাড়া (চট্টগ্রাম-১৫) আসনের দলীয় প্রার্থী অধ্যাপক ড. আবু রেজা মুহাম্মদ নেজামুদ্দিন নদভীকে জয়ী করতে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করার ঘোষণা দিয়েছেন চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগ।

সমাবেশে নদভী বলেন, এতদিন ধর্মের ভুল ব্যাখা দিয়ে সাতকানিয়া লোহাগাড়ার মানুষকে বিভ্রান্ত করা হয়েছে। সে বিভ্রান্তি দূর করতেই প্রধানমন্ত্রী আমাকে দায়িত্ব দিয়েছেন। ইসলামের সঠিক ব্যাখার মাধ্যমে সে বিভ্রান্তি নিরসন করে ইসলামী মূল্যবোধের কথা সাতকানিয়া-লোহাগাড়ার মানুষের কাছে তুলে ধরা হবে।

তিনি বলেন, সাতকানিয়া-লোহাগাড়ার মানুষের আস্থা আছে আমার উপর। আমাকে নির্বাচিত করা হলে অবহেলিত সাতকানিয়া-লোহাগাড়া আধুনিক উপজেলায় পরিণত হবে।

আধুনিক সাতকানিয়া লোহাগাড়া গড়তে সবাইকে ৫ জানুয়ারীর নির্বাচনে অংশ নিয়ে তাকে জয়যুক্ত করার আহবান জানান নদভী।

সমাবেশে মোসলেম উদ্দিন আহমেদ বলেন, ‘পবিত্র ইসলাম ধর্মের দোহাই দিয়ে ধর্ম নিরপেক্ষতার অপব্যাখ্যা করে একটি মহল দীর্ঘদিন ধরে আওয়ামী লীগের বিরুদ্ধে অপপ্রচার চালিয়ে আসছে। কিন্তু সময়ের ব্যবধানে তাদের অপপ্রচার অসার প্রমাণিত হয়েছে। কিন্তু শেখ হাসিনার সরকার ধর্মীয় মূল্যবোধ প্রতিষ্ঠায় অতীতের যেকোন সরকার থেকে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। ’ 

‘এরই ধারাবাহিকতায় ড. আবু রেজা নদভীর মত বিশিষ্ট ইসলামী চিন্তাবিদ ও শিক্ষাবিদদের মত ব্যক্তিদের বিভিন্ন পদে বসিয়ে এবং দলীয় মনোনয়ন দিয়ে জনপ্রতিনিধি নির্বাচিত করার মাধ্যমে ধর্ম ব্যবসায়ীদের অপপ্রচার বন্ধ হবে’

মফিজুর রহমান বলেন, জামায়াত-শিবিরের ঘাতকদের আঘাতে ক্ষত বিক্ষত সাতকানিয়ার জনগণ। তারা সাতকানিয়া লোহাগাড়ার অসংখ্য নেতাকর্মীর ঘর বাড়িতে লুঠপাট চালিয়েছে, অগ্নিসংযোগ করেছে। আমাদের নেতাকর্মীদের হত্যা করেছে। এ ধর্ম ব্যবসায়ীরা ধর্মের আড়ালে মানুষকে বিভ্রান্ত করছে।

আগামী ৫ জানুয়ারীর নির্বাচনে অংশ নিয়ে নদভীকে নির্বাচিত করার মাধ্যমে জামায়াত-শিবিরের হত্যা লুঠতরাজ রুখে দেওয়ার আহবান জানান তিনি।

আবু রেজা মুহাম্মদ নেজামুদ্দিন নদভীকে দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে প্রার্থী ঘোষণা করায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে অভিনন্দন জানান তার সহধর্মিনী রিজিয়া রেজা নদভী।

তিনি বলেন, মানুষকে সৃষ্ঠি করা হয়েছে মানবতার কল্যানের জন্য। ড. আবু রেজা নদভী তার মেধা ও প্রজ্ঞা দিয়ে মানুষের কল্যানে কাজ করে যাচ্ছেন। সে কাজের মূল্যায়ন হিসেবে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী তাকে দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে প্রার্থী হিসেবে মনোনীত করায় আমি তার কাছে কৃতজ্ঞ।

সাতকানিয়া-লোহাগাড়া’র জনগণকে নদভী’র পাশে থাকার আহবান জানিয়ে রিজিয়া রেজা বলেন, অতীতে সাতকানিয়া লোহাগাড়ায় নারীরা স্বাস্থ্য সেবা ও শিক্ষা থেকে বঞ্চিত হয়েছিলো। যা আপনারা দেখেছেন। আগামী নির্বাচনে আবু রেজা নদভীকে নির্বাচিত করে সাতকানিয়া লোহাগাড়ায় সমৃদ্ধশালী এলাকা হিসেবে গড়ে তোলার সুযোগ দিন। অতীতের মতো সুখে দুঃখে আপনাদের পাশে থাকবো আমরা।

সমাবেশে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক ড. সেকান্দর চৌধুরী, স্বাচিপ নেতা ডা. আ ম ম মিনহাজুর রহমান, দক্ষিণ জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের আহবায়ক মো. জোবায়ের, দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট জহির উদ্দীন, আইন বিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট মির্জা কচির উদ্দীন, সাতকানিয়া উপজেলা চেয়ারম্যান আবদুল মোনাফ, গোলাম ফারুক বেলাল, অ্যাডভোকেট কামরুন নাহার, মাস্টার ফরিদুল আলম, বিজয় কুমার বড়ুয়া, কুতুব উদ্দিন চৌধুরী।

বাংলাদেশ সময়: ২২১৪ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ২০, ২০১৩

সম্পাদনা: তপন চক্রবর্তী, ব্যুরো এডিটর

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa