ঢাকা, বুধবার, ১৩ আশ্বিন ১৪২৯, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০১ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪

চট্টগ্রাম প্রতিদিন

চট্টগ্রামে শান্তিপূর্ণভাবে চলছে অবরোধ

বাংলানিউজ টিম, চট্টগ্রাম ব্যুরো | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০৭৩৬ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ২১, ২০১৩
চট্টগ্রামে শান্তিপূর্ণভাবে চলছে অবরোধ ছবি: বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

চট্টগ্রাম: বন্দরনগরী চট্টগ্রামে শান্তিপূর্ণভাবে চলছে বিএনপির নেতৃত্বাধীন ১৮ দলীয় জোটের ডাকা পঞ্চম দফা অবরোধের প্রথম দিন। অবরোধের মধ্যে নগরী ও জেলায় যানবাহন চলাচল প্রায় স্বাভাবিক থাকলেও ট্রেন চলাচলে বিঘ্ন ঘটেছে।

দূরপাল্লার যানবাহন চলাচলও প্রায় বন্ধ আছে।

শনিবার ভোর ৬টায় ৮৩ ঘণ্টা অবরোধের শুরু থেকে এ পর্যন্ত কোথাও কোন পিকেটিং, মিছিল-সমাবেশের খবর পাওয়া যায়নি। অপ্রীতিকর কোন ঘটনারও খবর মেলেনি। চট্টগ্রামের কোন প্রবেশপথে অবরোধের সমর্থনে নেতাকর্মীদের জড়ো হতে দেখা যায়নি।

তবে অবরোধ কর্মসূচীতে সহিংসতা মোকাবেলায় কঠোর অবস্থানে আছে র‌্যাব, পুলিশ ও বিজিবি। সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, নগরীতে প্রায় দু’হাজার দু’শ অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন আছে। জেলায়ও মোতায়েন আছে প্রায় তিন হাজার অতিরিক্ত পুলিশ।

এছাড়া নগরীতে ছয় প্লাটুন বিজিবি সদস্যকে সহিংসতা মোকাবেলার জন্য প্রস্তুত রাখা হয়েছে। জেলার সীতাকুণ্ডে চার প্লাটুন বিজিবি সদস্য মোতায়েন আছে। অন্যান্য উপজেলার জন্য আরও ছয় প্লাটুন বিজিবি সদস্য প্রস্তুত রাখা হয়েছে বলে সূত্র জানিয়েছে।

নগর ‍পুলিশের উপ-কমিশনার (সদর) মাসুদ-উল-হাসান বাংলানিউজকে বলেন, ‘সহিংসতা মোকাবেলায় আমাদের পর্যাপ্ত প্রস্তুতি আছে। আশা করি কেউ অপ্রীতিকর কোন ঘটনা ঘটাতে পারবেনা। ’

নগরীর বিভিন্ন এলাকা ঘুরে দেখা গেছে, বাস, অটোরিক্সা, হিউম্যান হলারসহ বিভিন্ন গণপরিবহনের চলাচল স্বাভাবিক আছে। দোকানপাটও খুলেছে। মানুষ স্বাভাবিকভাবেই কর্মস্থলে যাচ্ছেন।

নগরীতে ব্যক্তিগত যানবাহন কিছুটা কম দেখা গেছে। শিডিউল নিয়ে সমস্যার কারণে ট্রেন চলাচলে কিছুটা ব্যাঘাত ঘটছে বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে।

চট্টগ্রামের রেলওয়ে স্টেশন ম্যানেজার এ এ শামসুল আলম বাংলানিউজকে জানান, শিডিউল সমস্যার কারণে ঢাকাগামী মহানগর প্রভাতী সকালে চট্টগ্রাম ছাড়তে পারেনি। ট্রেনটি সকাল ১০টা পর্যন্ত চট্টগ্রামে এসে পৌঁছায়নি। ঢাকাগামী সুবর্ণ এক্সপ্রেস সকালে সঠিক সময়ে ঢাকার উদ্দেশ্যে রওনা দিয়েছে।

সিলেটগামী পাহাড়িকা এক্সপ্রেস সোয়া ৮টায় এবং ঢাকাগামী চট্টলা এক্সপ্রেস সকাল ৯টায় চট্টগ্রাম ত্যাগের কথা থাকলেও সেটি নির্ধারিত সময়ে ছেড়ে যায়নি। ঢাকাগামী কর্ণফুলী এক্সপ্রেস সকাল ১১টায় ছাড়ার কথা রয়েছে।  

স্টেশন ম্যানেজার বাংলানিউজকে বলেন, ট্রেনগুলো ছাড়তে কিছুটা সময় লাগছে। তবে প্রত্যেক ট্রেনই কিন্তু নির্দিষ্ট গন্তব্যে যাচ্ছে। মানুষের কিছুটা দুর্ভোগ হলেও তারা গন্তব্যে পৌঁছাতে পারছে।

চট্টগ্রাম বন্দরে পণ্য উঠানামা স্বাভাবিক আছে। ট্রাক, কাভার্ড ভ্যান চট্টগ্রাম বন্দরের আশপাশের এলাকায় প্রচুর পরিমাণে চলাচল করছে। পণ্যবোঝাই পরিবহন বিভিন্ন জেলার উদ্দেশ্যে চট্টগ্রাম ছাড়তে দেখা গেছে, তবে এর পরিমাণ তুলনামূলকভাবে কম।

চট্টগ্রামের সঙ্গে বাইরের জেলার যোগাযোগ সংকটের মুখে পড়লেও অভ্যন্তরীণ উপজেলার সঙ্গে নগরীর যোগাযোগে তেমন বড় কোন সংকট নেই। অবরোধের মধ্যেও উপজেলার উদ্দেশ্যে নগরী ছাড়ছে বিভিন্ন যানবাহন। তবে জেলার উদ্দেশ্যে দূরপাল্লার বাস তেমন চলাচল করছেনা।

বাংলাদেশ সময়: ১৯৩৪ঘণ্টা, ডিসেম্বর ২১,২০১৩
সম্পাদনা: তপন চক্রবর্তী, ব্যুরো এডিটর।

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa