ঢাকা, রবিবার, ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ০৫ ডিসেম্বর ২০২১, ০০ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৩

চট্টগ্রাম প্রতিদিন

ডিসি ট্রাফিকসহ তিন পুলিশের বিরুদ্ধে ঘুষ দাবির অভিযোগ

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৭২৫ ঘণ্টা, জানুয়ারি ২, ২০১৪
ডিসি ট্রাফিকসহ তিন পুলিশের বিরুদ্ধে ঘুষ দাবির অভিযোগ

চট্টগ্রাম: চট্টগ্রাম নগর পুলিশের ট্রাফিক বিভাগের (উত্তর) উপ-কমিশনার কুসুম দেওয়ানসহ তিন পুলিশ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে ঘুষ দাবির মামলা করেছে এজাহার মিয়া নামে এক অটোরিক্সা চালক। অভিযুক্ত অপর দু’কর্মকর্তা হলেন, ট্রাফিক পরিদর্শক মীর নজরুল ইসলাম ও ট্রাফিক সার্জেণ্ট মামুনুল হক।



বৃহস্পতিবার চট্টগ্রাম মহানগর দায়রা জজ এস এম মুজিবুর রহমানের আদালতে মামলাটি দায়ের করেছেন।

ওই আদালতের বেঞ্চ সহকারী মো.ওমর ফুয়াদ বাংলানিউজকে বলেন, ‘শুনানি শেষে আদালত অভিযোগ অনুসন্ধানের জন্য অতিরিক্ত নগর পুলিশ কমিশনার (অপরাধ ও অভিযান) বনজ কুমার মজুমদারকে নির্দেশ দিয়েছেন। আগামী ২৮ জানুয়ারি এ বিষয়ে প্রতিবেদন দাখিলেরও নির্দেশ দেয়া হয়েছে। ’

আদালত সূত্রে জানা গেছে, ২০০৩ সালে সীতাকুণ্ডের চালক এজাহার মিয়া একটি সিএনজি অটোরিক্সা (চট্টমেট্রো-থ-১১-৬৮৫১) কেনেন। ২০০৯ সালে নগরীর পাহাড়তলী থানার বার কোয়ার্টার এলাকা থেকে অটোরিক্সাটি চুরি হয়।

একই বছরের ২০১৩ সালের ২৯ এপ্রিল ট্রাফিক পুলিশ ওয়াসার মোড় থেকে একই নম্বরের দু’টি সিএনজি অটোরিক্সা (চট্টমেট্রো-থ-১১-২৯৫৭) উদ্ধার করেন। এজাহারের দাবি, এর মধ্যে একটি অটোরিক্সা ছিল তার। তিনি প্রয়োজনীয় কাগজপত্র নিয়ে ট্রাফিক বিভাগের যোগাযোগ করলেও কুসুম দেওয়ানসহ তিন পুলিশ কর্মকর্তা তার কাছ থেকে দু’লক্ষ টাকা ঘুষ দাবি করেন।

কিন্তু তিনি ঘুষ না দেয়ায় তাকে গাড়ি ফেরত না দিয়ে ভূয়া মালিক সৃষ্টি করে আরেকজনকে হস্তান্তর করা হয়। এছাড়া গাড়ি ফেরত চাওয়ার অপরাধে ভূয়া ইঞ্জিন ও চেসিস নম্বর পরিবর্তন করে তাকে জালিয়াতি মামলার আসামী করা হয়।

এসব ঘটনায় সংক্ষুব্ধ হয়ে এজাহার মিয়া আদালতে মামলা দায়ের করেছেন। মামলায় ১৯৪৭ সালের দুর্নীতি প্রতিরোধ আইনের ৫ (২) এবং দণ্ডবিধির ৪৬৭, ৪৬৮, ৪৭১, ১৬১, ১৬৫ (ক) ধারায় অভিযোগ আনা হয়েছে।

বাংলাদেশ সময়: ১৬৫০ঘণ্টা, জানুয়ারি ০২,২০১৩
সম্পাদনা: তপন চক্রবর্তী, ব্যুরো এডিটর।

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa