ঢাকা, বুধবার, ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ০৮ ডিসেম্বর ২০২১, ০৩ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৩

চট্টগ্রাম প্রতিদিন

নদভির উপর হামলা

লোহাগাড়ার নবনির্বাচিত ভাইস চেয়াম্যানসহ ৬জন কারাগারে

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৬১৯ ঘণ্টা, মার্চ ২, ২০১৪
লোহাগাড়ার নবনির্বাচিত ভাইস চেয়াম্যানসহ ৬জন কারাগারে

চট্টগ্রাম: আওয়ামী লীগের সাংসদ ড. আবু রেজা মুহাম্মদ নেজামউদ্দিন নদভির উপর হামলার ঘটনায় দায়ের হওয়া মামলায় লোহাগাড়া উপজেলার নবনির্বাচিত ভাইস চেয়ারম্যান নুরুল আবছার এবং আন্তর্জাতিক ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের জনসংযোগ কর্মকর্তা মোস্তাক খন্দকারসহ ৬জনকে কারাগারে পাঠিয়েছেন চট্টগ্রামের একটি আদালত।

রোববার চট্টগ্রামের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মাসুদ পারভেজ এ আদেশ দেন।



বাদি পক্ষের আইনজীবী অ্যাডভোকেট জহির উদ্দিন বাংলানিউজকে বলেন,‘আসামীরা হাইকোর্ট থেকে ৩ মার্চ পর্যন্ত জামিনে ছিলেন। জামিনের মেয়াদ শেষ হওয়ার একদিন আগে তারা রোববার আদালতে আত্মসমর্পণ করলে বিচারক তাদের কারাগারে পাঠান। ’

কারাগারে যাওয়া বাকি আসামীরা হলেন, জামায়াত কর্মী মো.শফি, মো.মাহফুজ, কাজী জসীম ও নাছির উদ্দিন।

একই সঙ্গে আত্মসমর্পণ করা আরও দু’জনকে আদালত ২৭ মার্চ পর্যন্ত জামিন দিয়েছেন। এরা হলেন, আর্ন্তজাতিক ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক ড.হেলাল উদ্দিন মো.নোমান এবং জামায়াত নেতা জসীম উদ্দিন।

অ্যাডভোকেট জহির উদ্দিন বাংলানিউজকে জানান, জসীম উদ্দিন সাতকানিয়া উপজেলা নির্বাচনে ভাইস চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী হয়েছেন। আর হেলাল উদ্দিন হৃদরোগে আক্রান্ত। এসব বিষয় বিবেচনায় নিয়ে আদালত তাদের জামিন দিয়েছেন।

একই মামলায় জামায়াত দলীয় সাবেক সাংসদ আ ন ম শামসুল ইসলাম, ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপ উপাচার্য ড.আবু বক্কর রফিক এবং জামায়াত নেতা দীন মোহাম্মদ পলাতক আছেন বলে আদালত সূত্রে জানা গেছে।

গত ৩১ জানুয়ারী লোহাগাড়া উপজেলার চুনতি ইউনিয়নের শাহ মঞ্জিল এলাকায় ১৯ দিনব্যাপী সিরাতুন্নবী মাহফিলের শেষদিনে প্রধান অতিথি হিসেবে যোগ দেন সাংসদ ড. আবু রেজা মুহাম্মদ নেজামউদ্দিন নদভী।

মঞ্চে উঠার সঙ্গে সঙ্গেই জামায়াত-শিবিরের স্থানীয় নেতাকর্মীরা জড়ো হয় বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করেন। এসময় তারা সাংসদের দিকে ইট,পাটকেল ছুঁড়তে থাকেন। বাধ্য হয়ে সাংসদ পাশের একটি মসজিদে আশ্রয় নেন। রাতে পুলিশ গিয়ে সাংসদকে অক্ষত অবস্থায় উদ্ধার করে নিয়ে যান।

সাংসদের অনুসারীদের দাবি, সাবেক সাংসদ ও নগর জামায়াতের আমির আ ন ম শামসুল ইসলামের অনুসারীরাই পরিকল্পিতভাবে এ ঘটনা ঘটিয়েছে। এ ঘটনায় পরদিন শামসুল ইসলামসহ তিন হাজার জনকে আসামী করে একটি মামলা দায়ের করে পুলিশ।

বাংলাদেশ সময়: ১৭১০ঘণ্টা, মার্চ ০২, ২০১৪

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa