ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৫ বৈশাখ ১৪৩১, ১৮ এপ্রিল ২০২৪, ০৮ শাওয়াল ১৪৪৫

চট্টগ্রাম প্রতিদিন

লালখান বাজারকে ‘শহীদ নগর’ করার দাবি

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৭৪৬ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ২৬, ২০১৪
লালখান বাজারকে ‘শহীদ নগর’ করার দাবি ছবি: বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

চট্টগ্রাম: নগরীর লালখান বাজার এলাকার নাম পরিবর্তন করে ‘শহীদ নগর’ করার দাবি জানিয়েছে ‘আমরা মুক্তিযোদ্ধার সন্তান ঐক্যমঞ্চ’।

শুক্রবার সকাল ১১টায় স্থানীয় শহীদ মিনারের সামনে এক মানবন্ধনে বক্তারা এ দাবি জানান।

মানবন্ধনে এছাড়াও লালখান বাজার এলাকায় থাকা একাত্তরের চার শহীদের কবর সংরক্ষণের দাবি জানানো হয়।

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, ‘পাকিস্তানী নাগরিক ও রাজাকার লালা খানের নামে হাজার হাজার শহীদের রক্তস্নান্ত এলাকাটির নাম স্বাধীনতার ৪৩ বছর পরও লালখান বাজার থাকা জাতির জন্য লজ্জাজনক।
তাই এ লজ্জা থেকে মুক্তি পেতে লালখান বাজারের পরিবর্তনে ‘শহীদ নগর’ নামকরণ করতে হবে।

লালখান বাজারের হাইলেভেল রোডের শ্রী শ্রী কালী বাড়ীর তৎকালিন পুকুর পাড়ে চার শহীদের গণকবরের একটি অংশ দখল করে ভূমিদস্যুরা দোকান নির্মান করছে জানিয়ে সংগঠনের নেতারা বলেন, জেলা প্রশাসনের বধ্যভুমির তালিকায় গণকবরটির নাম সংযুক্ত করা অত্যন্ত জরুরী। একইসঙ্গে গণকবরটি সংরক্ষণের জন্যও উদ্যোগ নিতে হবে।

সংগঠনের মুখ্য সমন্বয়কারী ও একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক শওকত বাঙ্গালির সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত মাবনবন্ধনে সংহতি প্রকাশ করে বক্তব্য রাখেন দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক মফিজুর রহমান, উত্তর জেলা আওয়ামী লীগ যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের বোর্ড মেম্বার ইউনুচ গনি চৌধুরী, চট্টগ্রাম পেশাজীবী সমন্বয় পরিষদের সভাপতি ডা. একিউএম সিরাজুল ইসলাম, মুক্তিযুদ্ধ গবেষক মুক্তিযোদ্ধা একেএম নাসিমুল কামাল, জেলা সিভিল সার্জন মুক্তিযোদ্ধা ডা. সরফরাজ খান চৌধুরী বাবুল, ডেপুটি কমান্ডার শহীদুল হক চৌধুরী সৈয়দ, বাংলাদেশ ইসলামী ফ্রন্টের দক্ষিণ জেলা সাধারণ সম্পাদক মাষ্টার আবুল হোসাইন, আমরা মুক্তিযোদ্ধার সন্তান ঐক্যমঞ্চের সমন্বয়ক সাংবাদিক আহমেদ কুতুব প্রমুখ।

বাংলাদেশ সময়: ১৮১৮ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ২৬, ২০১৪

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।