ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ০২ ডিসেম্বর ২০২১, ২৬ রবিউস সানি ১৪৪৩

দিল্লি, কলকাতা, আগরতলা

মুখ্যমন্ত্রী মমতার সংবাদ সম্মেলন

বাংলাদেশের সঙ্গে মিলে সার্ধশত রবীন্দ্র জন্মবার্ষিকীর অনুষ্ঠান করবে পশ্চিমবঙ্গ

আনোয়ারুল করিম, সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০৪৮ ঘণ্টা, মে ২০, ২০১১
বাংলাদেশের সঙ্গে মিলে সার্ধশত রবীন্দ্র জন্মবার্ষিকীর অনুষ্ঠান করবে পশ্চিমবঙ্গ

রাইটার্স বিল্ডিং (কলকতা) থেকে: নোবেল বিজয়ী কবি ও সাহিত্যিক রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের জন্মের দেড়শত বার্ষিকীতে পশ্চিমবঙ্গে বিশেষ কোনো অনুষ্ঠান হয়নি জানিয়ে পশ্চিমবঙ্গের নয়া মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি বলেছেন, ‘বাংলাদেশের সঙ্গে মিলে রবীন্দ্রনাথের সার্ধশত জন্মবার্ষিকীর অনুষ্ঠান করা হবে। ’  

মুখ্যমন্ত্রীর দায়িত্ব নিয়ে কয়েক ঘণ্টার মধ্যে কলকাতার ডালহৌসি এলাকার রাইটার্স বিল্ডিংখ্যাত রাজ্যের সচিবালয় ‘মহাকরণে’ মন্ত্রিসভার বৈঠকের পর এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন।



মন্ত্রিসভার প্রথম বৈঠক শেষে রাইটার্স বিল্ডিংয়ের রোটান্ডায় স্থানীয় সময় সন্ধ্যা সাতটায় (বাংলাদেশ সময় সাড়ে সাতটা) তিনি সংবাদ সম্মেলনের জন্য উপস্থিত হন।
 
সংবাদ সম্মেলনে তিনি মন্ত্রিসভার বৈঠকের সিদ্ধান্ত জানিয়ে তার সরকারের অগ্রাধিকারমূলক ১১টি কাজের কথা বলেন। রবীন্দ্রনাথ বিষয়ক অনুষ্ঠানও তার এই অগ্রাধিকার কাজের মধ্যে রয়েছে।

মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি বলেন, ‘রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের সার্ধশত জন্মবর্ষ উপলক্ষে কেন্দ্রের উদ্যোগে অনুষ্ঠান হলেও বাংলায় কিছুই হয়নি। টুকটাক কেউ করলেও রাজ্য সরকার কিছু করেনি। ’

তিনি বলেন, ‘আগামী ২২ শ্রাবণের আগে মাসব্যাপী অনুষ্ঠান করবে রাজ্য সরকার। ’

মমতা বলেন, ‘বাংলাদেশের সঙ্গে কথা বলে ১ মাস জুড়ে বাংলায় বিভিন্ন কর্মসূচি হবে। জেলায়, ব্লকে, জাতীয় ও আন্তর্জাতিক স্তরে অনুষ্ঠানগুলো হবে। ’

মমতা ব্যানার্জি জানান, মন্ত্রিসভায় আরও ৬ জন নতুন মুখ আসবে। এদের একজন তৃণমূল কংগ্রেসের, ৫ জন আসবেন কংগ্রেস থেকে।

মন্ত্রিসভার বৈঠক প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘প্রথম দিন, কোনো এজেন্ডা ছিল না। তবে আমরা সরকারের কাজ করার জন্য কিছু সিদ্ধান্ত নিয়েছি। ’

তিনি আরও বলেন, ‘এ রাজ্যে আগে মাসে একদিন মন্ত্রিসভার বৈঠক হতো। এখন থেকে ১৫দিন পর পর বৈঠক হবে। ’

মন্ত্রিসভায় নেওয়া সিদ্ধান্ত জানিয়ে মমতা বলেন, ‘টাটার ন্যানো কারখানার জন্য সিঙ্গুরে অধিগ্রহণ করা জমির মধ্যে ৪০০ একর জমি কৃষকদের আইন মোতাবেক ফিরিয়ে দেওয়া হবে। ’

তিনি বলেন, ‘টাটা যদি বাংলায় কারখানা করার আগ্রহী হয়, তবে তাদের সহযোগিতা করা হবে। ’

টাটার সঙ্গে করা বিগত বামফ্রন্ট সরকারের চুক্তি জনসম্মুখে প্রকাশ করা হবে কীনা- এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘এটা পরে দেখা হবে। ’   

রাজ্যে বামফ্রন্ট সরকারের সমালোচনা করে গতবছর দেওয়া সাচার কমিশনের প্রতিবেদন সম্পর্কে তিনি বলেন, ‘সাচার কমিটির সুপারিশ অনুযায়ী সংখ্যালঘুদের উন্নয়নের জন্য আমরা কাজ করবো। জাস্টিস সাচার নিজে বাংলায় আসতে চাইলে ভালো, তার সুপারিশ অনুযায়ী কাজ হবে। ’

রাজ্যে গত কয়েক বছর ধরে রাজনৈতিক বিবেচনায় জেলে থাকা নেতাকর্মীদের মুক্তি প্রসঙ্গে মমতা মন্ত্রিসভার সিদ্ধান্তের কথা প্রসঙ্গে বলেন, ‘প্রতিহিংসার কারণে, অবিচারের জন্য অনেক রাজবন্দী দীর্ঘদিন জেলে রয়েছেন। ১০ জনকে নিয়ে একটি রিভিউ কমিটি করছি। কেস টু কেস রিভিউ করার জন্য মানবাধিকারকর্মী ও বিচারকদের নিয়ে কমিটি কয়েকদিনের মধ্যেই ঘোষণা করা হবে। ’  

দুর্যোগ মোকাবেলায় রাজ্যের কোনো বিশেষায়িত প্রতিষ্ঠান ও উদ্যোগ নেই বলে জানিয়ে মমতা ব্যানার্জি বলেন, ‘এখানে ডিজাস্টার হলে ম্যানেজমেন্ট করার কিছু নেই। কারণ রাজ্যের তো নূন আনতে পান্তা ফুরায়। কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে রাজ্যে দুর্যোগ মোকাবেলা সেল করা হবে। ’

রাজ্যের বন্যার পানি সংরক্ষণের জন্য উদ্যোগ নেওয়ার ওপর গুরুত্ব দিয়ে মন্ত্রিসভার নেওয়া সিদ্ধান্ত প্রসঙ্গে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘এ রাজ্যে বন্যা হয়। কত গ্রাম আছে, যেখানে খাবার পানি নেই। এখানে পানি নষ্ট করা বন্ধ করা হবে। বন্যার ক্ষেত ডুবিয়ে দেওয়া পানি ধরে রাখার পদ্ধতি বের করতে হবে। ’
 
রাজ্যের অনগ্রসর মানুষের রেশন কার্ড ও ১০০দিনের কাজের কার্ড অনেকে পায় না বলে মন্তব্য কওে মমতা ব্যানার্জি বলেন, ‘এসব দেখার জন্য পৃথক একটি ডিপার্টমেন্ট করা হবে। ’

উত্তরের দার্জিলিংয়ে পাহাড়ের পৃথক রাজ্য গঠনের জন্য একটি সংগঠন দাবি জানিয়ে আসছে। তাদের সমস্যা দেখার ব্যাপারেও মন্ত্রিসভায় সিদ্ধান্ত হয়েছে বলে জানান মুখ্যমন্ত্রী।

তিনি বলেন, ‘পাহাড়ের সমস্যা নিয়ে আমরা শিগগির বৈঠকে বসবো। কেন্দ্রীয় সরকারের সঙ্গেও বসা হবে। ’

মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘পাহাড়ের সমস্যা তিনমাসের মধ্যে সমাধান করবো। এ জন্য প্রয়োজন হলে কোনো সংগঠনের সঙ্গেও কথা বলে, তাদের বক্তব্য শোনা হবে। নেগোসিয়েশন করে হলেও আমরা সমস্যার সমাধান করবো। ’

রাজ্যের দক্ষিণ-পশ্চিমের অবহেলিত এলাকা জঙ্গলমহলের উন্নয়নেও বিশেষ প্যাকেজ করার সিদ্ধান্ত নেয় মন্ত্রিসভা। মমতা বলেন, ‘সেখানকার উন্নয়নের জন্য প্যাকেজ হবে। আমরা চাই সেখানে হাসপাতাল হোক, স্কুল-মাদ্রাসা হোক। ’

উত্তরবঙ্গের উন্নয়নের জন্য একটি ছোট মন্ত্রণালয় করা হবে।

স্বাস্থ্য ও শিক্ষার উন্নয়নে তার সরকার বিশেষ নজর দেবে বলেও জানান মমতা ব্যানার্জি।

রাজ্যে বেআইনি অস্ত্র উদ্ধারে প্রশাসনকে বিশেষ নির্দেশ দেওয়া হয়েছে বলে জানান মুখ্যমন্ত্রী।

তিনি বলেন, ‘আমরা শান্তি বজায় রাখতে চাই। যারা অশান্তি করার চেষ্টা করবে তাদের বলছি, শান্তির সঙ্গে কোনো কম্প্রোমাইজ করতে চাই না। ’ সবাইকে হাতজোড় করে অনুরোধ করবো শান্তি বজায় রাখুন।    

আর্ন্তজাতিক বঙ্গ সংস্কৃতি উৎসব হবে পশ্চিমবঙ্গে উদযাপন করা হবে বলেও মন্ত্রিসভায় সিদ্ধান্ত হয়েছে।

এছাড়া ২০১৩ স্বামী বিবেকাননন্দের জন্মশতবাষিকীও রাজ্য সরকার পালন করবে বলে সিদ্ধান্ত নেয় মন্ত্রিসভা।

এক প্রশ্নের জবাবে মমতা বলেন, ‘আমি বুলেটপ্রুফ গাড়ি চড়ি না। আমার নিজের দলের যে ছোট কার আছে, সেটাই আমি ব্যবহার করবো। ’

অপর এক প্রশ্নের জবাবে নয়া মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘আমার ওপর কত অত্যাচার হয়েছে, তা মনে রাখতে চাই না। বাংলার সামাজিকতা, মূল্যবোধ অবক্ষয় হয়ে গেছে। এটাকে স্বাভাবিক করাই আমার লক্ষ্য। ’

এদিকে সংবাদ সম্মেলনে মমতা ব্যানার্জি বলেন, ‘আজকে প্রশ্ন করে আর কী করবেন। লেখার জায়গাই তো থাকবে না। এক্সট্রা পেইজ করুন। ’

সাংবাদিকদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, ‘এখানে (রাইটার্স বিল্ডিং) আগে সাংবাদিকদের জন্য প্রেস কর্নার ছিল। সেটি উঠিয়ে দেওয়া হয়েছে। আমি আপনাদের জন্য ব্যবস্থা করবো। একটি ক্যান্টিনও করবো। ’

বাংলাদেশ সময়: ২০১৫ ঘণ্টা, মে ২০, ২০১১

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa