ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৪ শ্রাবণ ১৪২৮, ২৯ জুলাই ২০২১, ১৮ জিলহজ ১৪৪২

অর্থনীতি-ব্যবসা

বিমানের অতিরিক্ত বৈমানিক, মাসে বাড়তি ব্যয় ৪০ লাখ টাকা

ইশতিয়াক হুসাইন, সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০১৩৯ ঘণ্টা, আগস্ট ২৯, ২০১০
বিমানের অতিরিক্ত বৈমানিক, মাসে বাড়তি ব্যয় ৪০ লাখ টাকা

ঢাকা: প্রয়োজন নেই তবুও চুক্তি ভিত্তিতে ছয়জন বৈমানিক কাজ করায় বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের প্রতি মাসে অতিরিক্ত ব্যয় হচ্ছে ৪০ লাখ টাকা।

সম্প্রতি বিমানের পরিচালনা পর্ষদ বৈমানিকদের ৬২ বছর পর্যন্ত কাজের সুযোগ দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।



সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, স্বাস্থ্য পরীক্ষায় অযোগ্য না হলে বিমানের বৈমানিকরা ৬২ বছর পর্যন্ত চুক্তি ভিত্তিতে কাজ করতে পারবেন। বাংলাদেশ এয়ারলাইন পাইলট অ্যাসোসিয়েশন (বাপা) অবশ্য ইন্টারন্যাশনাল সিভিল অ্যাভিয়েশন অর্গানাইজেশন (আইকাও)-এর নির্দেশনা অনুযায়ী বৈমানিকদের চাকরির বয়সসীমা ৬৫ বছর করার দাবি জানিয়ে আসছে।

বিমান সূত্রে জানা গেছে, চুক্তি ভিত্তিতে কাজ করা প্রত্যেক বৈমানিককে বিমান মাসিক ভাতা দেয় নয় হাজার ৫০০ ডলার। সে হিসাবে ৬ বৈমানিকের জন্য বিমানকে প্রতি মাসে ৫৭ হাজার ডলার (৩৯ লাখ ৯০ হাজার টাকা) ব্যয় করতে হয়।

কাজের বয়সসীমা বাড়ানোর সিদ্ধান্তের ফলে চুক্তি ভিত্তিতে বিমানে বৈমানিক নিয়োগের সংখ্যা আরও বেড়ে যেতে পারে।

জানা গেছে, ৫৭ বছরের মধ্যে স্বাস্থ্য পরীক্ষায় অযোগ্য হলে প্রত্যেক বৈমানিককে বিমানের পক্ষ থেকে এক কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ দিতে হয়। এ বয়সসীমা ৬২ বছর করায় এ ক্ষতিপূরণ দেওয়ার পরিমাণও বেড়ে যাবে।

বিমান সূত্রে জানা গেছে, রাষ্ট্রীয় পতাকাবাহী এয়ারলাইন্সে বর্তমানে ১১৬ জন বৈমানিক কাজ করছেন। বিমানের সঙ্গে চুক্তি অনুযায়ী প্রত্যেক বৈমানিক প্রতি মাসে ৭০ ঘণ্টা ফাই করার কথা।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, যে পরিমাণ বৈমানিক রয়েছেন তা দিয়ে চারটি ডিসি-১০ ও তিনটি এয়ারবাসের বৈমানিকদের মাসে ৫০ ঘণ্টার বেশি ফাই করতে হয় না।

এরপরেও বৈমানিকদের চুক্তিভিত্তিক কাজ ও তাদের বয়স বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে।

এ বিষয়ে বিমানের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা জাকিউল ইসলাম বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম.বিডিকে বলেন, ‘বৈমানিক স্বল্পতার কারণেই বয়স বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। এর সঙ্গে অন্য কোনো উদ্দেশ্য নেই। প্রয়োজনে আরও বৈমানিক নিয়োগ দেওয়া হবে। ’

অনুসন্ধানে দেখা গেছে, ৫৫ বছরের পর বাংলাদেশের বেশির ভাগ বৈমানিক শরীরের বিভিন্ন সমস্যায় ভোগেন। ডায়াবেটিস, হৃদরোগ, অনিয়ন্ত্রিত রক্তচাপ হলে বৈমানিকরা স্বাস্থ্য পরীক্ষায় অযোগ্য হবেন।

৫৭ বছর পর বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের বৈমানিকদের জন্য ৬২ বছর পর্যন্ত চুক্তিভিত্তিক কাজের সিদ্ধান্ত নেওয়ায় বিমানের আর্থিক ক্ষতি আরও বাড়বে বলে ধারণা করছেন সংশ্লিষ্টরা।

বিমানের একজন বৈমানিক এ প্রতিবেদককে বলেন, ‘বাংলাদেশের প্রেক্ষাপটে বেশির ভাগ মানুষের মধ্যে ৫৫ বছর পর সচরাচর ডায়াবেটিস, হৃদরোগ, উচ্চ রক্তচাপ দেখা যায়। আর বৈমানিকরা এদেশেরই মানুষ। এ বিবেচনায় বয়স বৃদ্ধির সিদ্ধান্ত বিমানের জন্য আর্থিক ক্ষতি ডেকে আনবে। ’

বাংলাদেশ সময়: ১৩২০ ঘণ্টা, আগস্ট ২৯, ২০১০

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa